কৃষি

ড্রাগন চাষে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন দেখছেন চুয়াডাঙ্গার কৃষকরা

  

পিএনএস, চুয়াডাঙ্গা:চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগরে নতুন জাতের ফল ড্রাগন চাষ করে সফলতার স্বপ্ন দেখছেন উপজেলার নারায়নপুর গ্রামের মো. সিরাজুল ইসলাম। মাত্র দেড় বিঘা জমিতে ড্রাগন চাষে তার খরচ হচ্ছে ১লক্ষ টাকা। তার বাগান থেকে ড্রাগন ফল বিক্রি করে ব্যাপক টাকা লাভের আশা করছেন তিনি। এচাষে চারা লাগানোর পর শুধু জৈব সার ব্যবহার করে অনেকটা বিনা খরচে ফলন পাবেন মনে করছেন তিনি। তার এ চাষ এলাকায় ব্যাপক সাড়া ফেলার পাশাপাশি ভাগ্য বদল হতে শুরু করার কথা শুনে অনেকই ড্রাগন চাষে আগ্রহী হয়েছেন। প্রতিনিয়ত অসংখ্য মানুষ আসেন

অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিক : কৃষিপণ্যের রফতানি প্রবৃদ্ধি ২১ শতাংশ

  

পিএনএস : কৃষিপণ্যের রফতানি আয় বেড়েছে। বছরের শুরু থেকেই রফতানি আয়ে ভাল করছে কৃষি খাত। চলতি (২০১৭-১৮) অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে রফতানি আয়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে প্রায় ২১ শতাংশ। বাংলাদেশ রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) সর্বশেষ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদন অনুসারে, বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই- সেপ্টেম্বর) এ খাতের আয় হয়েছে ১৪ কোটি ৭৯ লাখ মার্কিন ডলার বা প্রায় ১ হাজার ২৩০ কোটি টাকা; যা এ সময়ের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৮ শতাংশ বেশি। একই সঙ্গে আগের (২০১৬-১৭) অর্থবছরে একই সময়ের তুলনায়ও আয় বেড়েছে

বগুড়ায় বাণিজ্যিকভাবে শুরু হচ্ছে মাল্টার চাষ

  

পিএনএস, বগুড়া:এবার মাল্টা চাষ হচ্ছে বগুড়ায়। জেলার ১২ উপজেলায় কৃষি বিভাগের সহযোগিতা নিয়ে চাষিরা মাল্টা চাষ শুরু করে দিয়েছেন। চাষিরা মাল্টার চারা রোপণ করার পর এখন বাগানের যত্ন নিচ্ছেন।জেলার কৃষি বিভাগ বলছে, কয়েকটি বাগানের মাল্টা ফল ইতোমধ্যে পাওয়া গেছে। আগামী বছর থেকে স্থানীয়ভাবে চাষকৃত মাল্টা ভোক্তার হাতে পৌঁছানো যাবে। জেলায় এ পর্যন্ত প্রায় ১৫ হেক্টর জমিতে মাল্টা চাষ হয়েছে।কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, ২০১৫ সালে বগুড়ার নন্দীগ্রাম, শাজাহানপুর, কাহালু, বগুড়া সদর ও শেরপুর উপজেলায় কয়েকজন ব্যক্তি

সুন্দরগঞ্জে তিস্তার চরে নবান্ন উৎসব

  

পিএনএস, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তিস্তা চরাঞ্চলে শুরু হয়েছে নবান্ন উৎসব। আগাম নবান্ন উৎসব চরের কৃষক-কৃষাণীর মাঝে প্রান চাঞ্চল্যতা ফিরে এসেছে। ব্যস্ত হয়ে পড়েছে চরাঞ্চলের প্রতিটি পরিবারের স্ত্রী, ছেলে, মেয়েসহ অন্যান্য সদস্যরা। আমন ধানের ফলন তেমন ভাল না হলেও অনেক খুশি কৃষকরা। কারন আগাম ধান যেন কৃষকদের অভাব দুর করে দিয়েছে। উপজেলার তারাপুর, বেলকা, হরিপুর, চন্ডিপুর, শ্রীপুর, কাপাসিয়া ইউনিয়নের উপর দিয়ে প্রবাহিত তিস্তার চরাঞ্চলে ইতিমধ্যে পুরোদমে কাটামাড়াই

শিবচরে বৃষ্টিতে শীতের আগাম সবজির ব্যাপক ক্ষতি

  

পিএনএস, মাদারীপুর : গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে মাদারীপুরের শিবচরে ধানসহ শীতের আগাম সবজির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। রোপা আমন, বোনা আমন, মাসকলাই, খেসারি,শাক, মূলা, কলা সবজি ছাড়াও আক্রান্ত হয়েছে সামগ্রিক কৃষি খাত।এতে কৃষকদের মাঝে চরম হতাশা নেমে এসেছে। ক্ষয়ক্ষতি নিরুপনে মাঠে নেমেছে কৃষি বিভাগ। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর উপজেলার প্রায় ৬ হাজার হেক্টর জমিতে ধান আবাদ হয়েছে। এরমধ্যে ৩ হাজার ৭শ’ ৫০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন, ২ হাজার ২শ’ ৫০ হেক্টর জমিতে বোনা আমন, ৫০ হেক্টর জমিতে আগাম

চিরিরবন্দরে ধানের ভালো দাম থাকায় কৃষকের মুখে হাসি

  

পিএনএস, দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে এবার রোপা আমন মৌসুমে বন্যা পরবর্তী সময়ে কাটিয়ে সার ও বীজের সংকট না থাকায় উপজেলার প্রতিটি মাঠে এবার রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষকের মুখে ফুটেছে হাসির ঝিলিক। প্রতিটি মাঠে মাঠে এখন কৃষকেরা রোপা আমন ধান কাটা-মাড়াই পুরোদমে শুরু করেছে।সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন মাঠ ঘুরে দেখা যায়, কৃষক ও মজুররা দলবদ্ধ ভাবে বিভিন্ন স্থানে ধান কাটা ও মাড়াইয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। চলতি মৌসুমে রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলনের পাশাপাশি বাজারে ধানের দাম বেশী থাকায়

শেরপুরে বেগুন চাষে ভাগ্য বদলেছে শতাধিক চাষির

  

পিএনএস, শেরপুর (বগুড়া) সংবাদদাতা : বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় বেগুন চাষে ভাগ্য বদলেছে শতাধিক বেগুন চাষির। অভাব মোচন করে তাদের সংসারে এসেছে স্বচ্ছলতা। নাগাল পেয়েছেন সুখের দিনের। এমনকি বেগুন চাষ করে অনেকেই শুন্য থেকে লাখপতিও হয়েছেন। তাদেরই একজন উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের মুরাদপুর গ্রামের চাষি মোফাজ্জল হোসেন। মাত্র দশ শতক জমিতে হাইব্রিড জাতের বেগুন চাষ করে ইতিমধ্যে প্রায় অর্ধলাখ টাকা আয় করেছেন। এছাড়া জমিতে যে পরিমান বেগুন রয়েছে তা বিক্রি করে আরও অর্ধলাখ টাকা বিক্রি করা সম্ভব হবে আশা করছেন তিনি।

চিরিরবন্দরে ধান কাটা শুরু, ভালো দাম থাকায় কৃষকের মুখে হাসি

  

পিএনএস, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে এবার রোপা আমন মৌসুমে বন্যা পরবর্তী সময়ে কাটিয়ে সার ও বীজের সংকট না থাকায় উপজেলার প্রতিটি মাঠে এবার রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষকের মুখে ফুটেছে হাসির ঝিলিক। প্রতিটি মাঠে মাঠে এখন কৃষকেরা রোপা আমন ধান কাটা-মাড়াই পুরোদমে শুরু করেছে।সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন মাঠ ঘুরে দেখা যায়, কৃষক ও মজুররা দলবদ্ধ ভাবে বিভিন্ন স্থানে ধান কাটা ও মাড়াইয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। চলতি মৌসুমে রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলনের পাশাপাশি বাজারে ধানের দাম

বগুড়ায় বেগুন চাষে কৃষকের ভাগ্যবদল, সফল কৃষি বিভাগ

  

পিএনএস, বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে কৃষকের মধ্যে বইছে আনন্দের বন্যা। সবজি চাষে শতশত কৃষকের ভাগ্য বদল হচ্ছে। এবছর কৃষি অফিসের দিকনির্দেশনায় ব্যাপক সফলতা এনেছে। কৃষকেরা ধান চাষের চেয়ে সবজি চাষে ঝুঁকে পড়েছেন। সবজি চাষে খরচ খুবই কম। সারের তেমন প্রয়োজন হয় না বললেই চলে। লাভ বেশি হওয়ায় কৃষকেরা সবজি চাষে বেশি বিনিয়োগ করে থাকেন।নন্দীগ্রাম উপজেলায় বিপুল পরিমাণ সবজি উৎপাদিত হয়। এলাকার কৃষকদের ভাগ্যবদলের জন্য উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে প্রযুক্তিগত সকল প্রশিক্ষণ ও সহযোগিতা দিচ্ছেন। এছাড়া কৃষি

শেরপুরে পানিতে লুটোপুটো খাচ্ছে কৃষকের স্বপ্ন

  

পিএনএস, শেরপুর (বগুড়া) সংবাদদাতা : চারদিকে শোভা পাচ্ছিল মাঠ ভর্তি আমন ধানের ক্ষেত। সোনা মাখা রঙ ধারণ করতে শুরু করেছে দিগন্ত বিস্তৃত মাঠের ধানক্ষেত। এছাড়া আগাম জাতের ধান পাকা শেষে কেবল কাটার অপেক্ষায় দিন গুনছিলেন কৃষক পরিবারগুলো। এ অবস্থায় এই আমন ধান নিয়ে কৃষক সম্প্রতি বন্যায় ক্ষতির কিছুটা হলেও পুষিয়ে নেয়ার স্বপ্নে ছিলেন বিভোর। কিন্তু কৃষকের সেই স্বপ্ন ভয়াবহ দুঃস্বপ্নে পরিনত হয়েছে। পানিতে লুটোপুটো খাচ্ছে তাঁদের সেই স্বপ্ন। কেননা গেল দুইদিনের ভারী বর্ষণ ও ঝড়ো হাওয়ায় বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় শত

Developed by Diligent InfoTech