স্বাস্থ্যকথা

জেনে নিন ক্যান্সার থেকে মুক্ত থাকার সহজ দুইটি উপায়!

  

পিএনএস ডেস্ক:মরণব্যাধি ক্যান্সারের কেড়ে নিচ্ছে অসংখ্য মানুষের প্রাণ। ক্যান্সার বা কর্কটরোগ অনিয়ন্ত্রিত কোষ বিভাজন সংক্রান্ত রোগসমূহের সমষ্টি। এখনও পর্যন্ত এই রোগে মৃত্যুর হার অনেক বেশি। কারণ প্রাথমিক অবস্থায় ক্যান্সার রোগ সহজে ধরা পড়ে না, ফলে শেষ পর্যায়ে গিয়ে ভালো কোন চিকিৎসা দেয়াও সম্ভব হয় না। বাস্তবিক অর্থে এখনও পর্যন্ত ক্যান্সারের চিকিৎসায় পুরোপুরি কার্যকর কোনও ওষুধ আবিষ্কৃত হয় নি। ক্যান্সার সারানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়। তবে প্রাথমিক অবস্থায়

ঘুম থেকে উঠে “Do’s and don’ts”

  

পিএনএস ডেস্ক : কী বলি আর কী বলি না! সকালে ঘুম থেকে ওঠবার পর থেকেই আমরা নিজের মনে কতবার কত কী বলি, এটা করব, সেটা করব না, এটা বলব, ওখানে যাব না-র মতো আরও কত কিছু৷ কিন্তু জানেন কি এমন কিছু কথা রয়েছে, যা কখনও নিজেকে বলতে নেই৷ বললে নিজের উপর আত্মবিশ্বাস চলে তো যাবেই, উল্টে বাড়বে নেগেটিভ এনার্জিও৷ আর সারাদিন যখন এই ধরনের নেতিবাচক ভাবনাচিন্তাগুলো মনের মধ্যে ক্রমাগত ঘুরপাক খায়, তখন একসময় আপনি সেগুলো ধ্রুব সত্য বলে বিশ্বাস করতে শুরু করবেন৷তাই সারাদিনে যখনই নিজেকে নিয়ে বিশ্লেষণ করবেন, তখন

সকাল হলেই মাথা ব্যথা, ব্রেন টিউমারের লক্ষণ নয়তো?

  

পিএনএস ডেস্ক: ব্রেন টিউমার একটি মরণব্যাধি। টিউমার যখন আমাদের মাথার ভেতরে অবস্থান করে তখন তাকে ব্রেন টিউমার বলা হয়। ব্রেন টিউমার থেকে ক্যান্সারও হতে পারে। যখন মাথায় এই টিউমার বৃদ্ধি পায় তখন মস্তিষ্কের ভেতরে চাপ বেড়ে যায়, যা মস্তিষ্ককে ক্ষতিগ্রস্থ করে। তাই সঠিক সময়ে ব্রেন টিউমার চিকিৎসা করা প্রয়োজন। তবে তার আগে জেনে নিন ব্রেন টিউমার কি, এটি কেন হয়, এর লক্ষণগুলো কী কী এবং এর চিকিৎসা সম্পর্কে-ব্রেন টিউমার কি?ব্রেন টিউমার মস্তিষ্কে কোষের সংগ্রহ। যখন কোষ অস্বাভাবিক ভাবে বেড়ে যায় তখন

বেপরোয়া হার্টবিট নিয়ন্ত্রণ করবে কলা-কিসমিস

  

পিএনএস ডেস্ক: সোজা কথায়, প্রতি মিনিটে কারো হার্ট যতবার বিটস করে, সেটাই হল তার হার্ট রেট বা পালস রেট। সাধারণত প্রাপ্তবয়স্কদের ক্ষেত্রে হেলদি হার্ট রেট হলে মিনিটে ৬০ থেকে ১০০ বিটস। অবশ্য অ্যাথলেটদের ক্ষেত্রে প্রতি মিনিটে হার্ট রেট বা পালস রেট ৪০-এর কম হতে পারে। যেহেতু হার্টের ছন্দকে কাউন্ট করে, তাই কোনোভাবেই হার্টরেটকে হেলাফেলা করা উচিত নয়। এ থেকে হার্টে রক্তের প্রবাহের একটা আন্দাজ মেলে। হার্টরেট বেশি হলে হার্টের অসুখের আশঙ্কা থাকেই। হতে পারে স্ট্রোকও। কিডনির বারোটা বাজাও অস্বাভাবিক নয়।

ক্যালসিয়ামের অভাবে যা খাবেন

  

পিএনএস ডেস্ক: ক্যালসিয়াম আমাদের হাড় ও দাঁতের প্রধান উপাদান। এর অভাবে শরীরে অনেকরকম সমস্যার সৃষ্টি হয়। মাংসপেশী সংকুচিত হওয়া, হাড়ে ভঙ্গুরতা, খাদ্য গ্রহণে অরুচি, হার্টে সমস্যার সৃষ্টি হওয়া, উচ্চ রক্তচাপ, কোলন ক্যান্সার ইত্যাদি আরও নানা রকম সমস্যা বাসা বাঁধে শরীরে। ক্যালসিয়াম শরীরে শক্তি যোগায় এবং এটি হাড় গঠনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা পালন করে। সঠিক পরিমাণ ক্যালসিয়াম না পেলে শরীর দুর্বল হয়ে হাড় ভঙ্গুরতার মতো মারাত্মক রোগের সৃষ্টি হয়।ক্যালসিয়ামের অভাবজনিত রোগ:* ক্যালসিয়ামের অভাবে রিকেট রোগ হয়।

প্রতিদিন যতোটুকু লবণ খাওয়া উচিৎ

  

পিএনএস ডেস্ক: যত সুস্বাদু খাবারই হোক, এক চিমটি লবণের অভাবে তা মুহূর্তেই বিস্বাদ হতে বাধ্য। লবণ এমনই এক উপাদান যা খাবারের তালিকা থেকে বাদ পড়লে স্বাদের পাশাপাশি ঘাটতি পড়বে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় খনিজ পদার্থেও। অর্থাৎ, লবণ আপনাকে প্রতিদিন খেতে হবেই। আবার পরিমাপের থেকে বেশি খেলে আর দেখতে হবে না, ব্লাড প্রেশার সংক্রান্ত সমস্যা থাকলে তার হাত ধরে হার্টের সমস্যা, ডায়াবেটিস বা কিডনির সমস্যা ছুটে আসবে তখনই।কী? বুঝতে পারছে না কী করবেন? এই পরিস্থিতিতে আপনাকে প্রথমেই জানতে হবে ঠিক কতটা লবণ আমাদের

লিভার সুস্থ রাখবে যে পানীয়

  

পিএনএস ডেস্ক : আখের রস হাতের কাছে পাওয়া গেলেও আমরা অনেকে এই রস খাই না। আখের রস খেলে বিপাকীয় গতি বাড়িয়ে দেয়। বাড়ে কর্মশক্তি। ওজন কমানোর ক্ষেত্রে এই দুটিই জরুরি।এছাড়া এ আখের রসের রয়েছে নানা উপকারিতা। আখের রস আছে বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করে আখের রস।আসুন জেনে নেই আখের রসের উপকারিতা।১. আখের রসে থাকা কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, আয়রন, পটাশিয়ামসহ অন্যান্য উপাদান কর্মশক্তি বাড়িয়ে দেয়।২. জন্ডিস হলে আখের রস খেতে বলেন চিকিৎসকরা।এই পানীয় আপনার যকৃতকে সহজে হজম

এলাচে আছে ৭ সমস্যার সমাধান

  

পিএনএস ডেস্ক : একটা সময় ছিল যখন মানুষ প্রকৃতির উপরই পুরোপুরি নির্ভরশীল ছিল। তখন ছিল না কোনও হসপিটাল, ছিল না ফার্মেসি কিংবা বাহারি ওষুধপত্র। মানুষ তখন প্রকৃতি থেকেই খুঁজে নিতো রোগ নিরাময়ের উপাদানগুলো। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পাল্টেছে জীবনধারাও। তাই বলে ভেষজ উদ্ভিদের গুণাবলি ও কার্যকারিতা কমেনি এতটুকুও। যার মধ্যে এলাচ অন্যতম। শুধু খাবারে স্বাদ বাড়ানোই নয়, নিয়মিত এলাচ খেলে শরীর স্বাস্থ্যও থাকে ভালো। এছাড়া এলাচ এমন একটি মসলা জাতীয় খাবার, যা অন্তত ৭টি রোগের হাত থেকে সদাসর্বদা আপনাকে

টাকায় লেগে থাকা ময়লা থেকে সাবধান!

  

পিএনএস ডেস্ক : টাকাকে বলা হয় ‘হাতের ময়লা’। তবে সেটি খরুচে মানুষের জন্য। এমন মানুষও আছে, যাদের পকেটে টাকা থাকলে উড়ায়, কেবল উড়ায়। কিন্তু সেই টাকার মধ্যেই যে লেগে থাকে ‘ময়লা’ সেদিকে খেয়াল থাকে না অনেকেরই। আর টাকায় লেগে থাকা সেই ময়লা থেকে ব্যাকটেরিয়া আমাদের হাতে লেগে তা পেট পর্যন্ত পৌঁছায়। তখনই দেখা দেয় পেটের অসুখ। কিন্তু টাকায় লেগে থাকা ময়লা বা ব্যাকটেরিয়া থেকে কিভাবে মুক্ত থাকা যায় এ নিয়েই এক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞানের ছাত্রী নিশাত তাসনিম।

হলুদ ও গোল মরিচ একসঙ্গে খেলে যা হয়

  

পিএনএস ডেস্ক: কিছু অসুখ নিজ থেকেই সেরে যায়। কিছু অসুখ আবার নাছোড়বান্দা। ওষুধ না খেলে ছেড়ে যাওয়ার নাম মুখে আনে না। আর তাইতো অসুখ সারাতে ট্যাবলেট, সিরাপ আর ইনজেকশনের ওপর আস্থা রাখেন বেশিরভাগ মানুষ।প্রকৃতি আমাদের এমন কিছু জিনিস উপহার দিয়েছে, যা শরীর-স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিতে পারে। প্রাচীনকাল থেকে রান্নায় ব্যবহার হওয়া অনেক মশলাই সেই প্রাকৃতিক উপহারের অন্যতম। তার মধ্যেই রয়েছে হলুদ এবং গোল মরিচ।হলুদ এবং গোল মরিচ উভয়ই শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী। এখানে প্রশ্ন জাগতে পারে যে

Developed by Diligent InfoTech