স্বাস্থ্যকথা

ভাত না রুটি?

  

পিএনএস ডেস্ক: সারাদিনে যতকিছুই খান না কেন, অন্তত একবেলা ভাত না খেলে মন কেমন করে- এই হলো বাঙালির বৈশিষ্ট্য। বেশিরভাগ বাঙালিরই প্রিয় খাবার হলো গরম ধোয়াওঠা ভাতের সঙ্গে ঝাল ঝাল মাছের ঝোল। আধুনিক সময়ে আমাদের খাদ্যাভাস অনেকটাই বদলে গিয়েছে হয়তো, কিন্তু ভাতে অভ্যাস্ততার বিষয়টি এখনও রয়েছে।ভাতের বদলে আবার রুটি খেয়ে থাকেন অনেকে। কেউ কেউ মনে করেন, ভাতের থেকে রুটিই বেশি উপকারী। কেউ আবার মনে করেন, ভাতই বেশি উপকারী। তাই এর মধ্য থেকে কোনটি খাবেন তাই নিয়ে দ্বিধা-দন্দ্বে ভোগেন অনেকেই। তাই জেনে নিন ভাত বেশি

কাঁচা হলুদের ৫ গুণ

  

পিএনএস ডেস্ক: হলুদে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার, পটাশিয়াম, ভিটামিন বি-৬, ম্যাগনেশিয়াম ও ভিটামিন সি থাকে ও কারকিউমিন নামক রাসায়নিক থাকে যা বিভিন্ন রোগের হাত থেকে আমাদের বাঁচায়। সকালে ঘুম থেকে উঠে কাঁচা হলুদ খেলে যে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়ে, খাবার ঠিকমতো হজম হয়। চলুন জেনে নেই কাঁচা হলুদের আরও কিছু গুণ সম্পর্কে-খাদ্য পরিপাকে সহায়তা করে:কাঁচা হলুদের মধ্যে গ্যাস্ট্রো-প্রটেক্টিভ কিছু গুণ থাকে যা খাবার পরিপাকে সাহায্য করে। ফলে হজমের গোলমাল, গ্যাসের সমস্যার ক্ষেত্রে কাঁচা হলুদ খুবই উপকার দেয়।খাদ্য

বুড়ো বয়সেও শক্তিশালী হাড় গড়তে সহায়ক ১০ খাবার!

  

পিএনএস ডেস্ক :একটা বয়সের পর হাড় ক্ষয় হতে শুরু করে। হাড়ের সুস্থতা বজায় না থাকলে তা থেকে হতে পারে অস্টিওপোরোসিস। এমনকি বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হাড় ভেঙে যাওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে। উল্লেখ করতেই হয়, আমরা বেশির ভাগই হাড়ের সুস্থতা নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাই না। যার ফলে হাড় প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান থেকে বঞ্চিত হয়। হাড়ের সুস্থতার জন্য প্রয়োজন পর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন ডি। ভিটামিন ডি শরীরকে ক্যালসিয়াম শুষে নিতে সহায়তা করে। এ কারণে হাড় সুরক্ষিত রাখতে খাদ্যতালিকার দিকে অবশ্যই নজর দেয়া জরুরি। হাড়ের

দাঁতের যেসব ক্ষতি করে ফাস্ট ফুড ও সিগারেট!

  

পিএনএস ডেস্ক :ফাস্ট ফুডের স্বাদের জন্যই আমাদের পছন্দের তালিকায় এটি থাকে প্রথমে। দিনের যেকোনো সময়েই চকলেট বা অন্য ফাস্ট ফুড খাওয়া থেকে চাইলেও অনেকে দূরে থাকতে পারেন না। আর এই খাদ্যাভ্যাসই ক্ষতি করছে আমাদের দাঁতের। পিৎজা, বার্গারের মতো চিটচিটে কার্বোহাইড্রেট দাঁতের ফাঁকে আটকে থেকে বাড়াচ্ছে দাঁতের ক্ষয়। সেই সঙ্গে খাবারে অতিরিক্ত চিনিও দাঁতের জন্য মারাত্নক ক্ষতিকর।তবে এখানেই শেষ নয়। অত্যাধিক ঠাণ্ডা পানীয় এবং অ্যালকোহলের অ্যাসিডে দাঁতের উপরের আবরণ এনামেলের ক্ষয় হয়। এনামেলের পরের পর্যায় হলো

শিশুদের আইকিউ বাড়ানোর কয়েকটি সহজ উপায়

  

পিএনএস ডেস্ক: আইকিউ অর্থাৎ বুদ্ধি তীক্ষ্ম না হলে এখন প্রতিযোগিতার দুনিয়ায় টেকা দায়। কিন্তু শিশুদের আইকিউ কীভাবে বাড়ানো যায়? খুব সহজ কিছু উপায় দেখিয়েছেন শিশু বিশেষজ্ঞ ক্যারেন কুইন।সব বিষয়ে কথা বলুন...আপনার সন্তানের সঙ্গে সম্ভব হলে সব বিষয়েই কথা বলবেন। এতে অল্প অল্প করে জ্ঞান তো বাড়বেই, পাশাপাশি ভাষায় দক্ষতাও বাড়বে। শিশু বেশি কথা বললেই ভালো। কথা বলায় নিরুৎসাহিত করা তাদের বিকাশের জন্য ক্ষতিকর।এক গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব শিশু খুব কম কথা বলে, তাদের তুলনায় বেশি কথা বলতে অভ্যস্ত শিশুদের

শতভাগ নিরাময় হবে ক্যানসার

  

পিএনএস ডেস্ক: মরণব্যাধি বলে যেসব রোগের নাম শুনলেই মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়ে তার মধ্যে অন্যতম হল ক্যানসার। গোটা বিশ্বে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ নতুন করে ক্যানসারে আক্রান্ত কিংবা প্রাণ হারাচ্ছেন। প্রতিরোধ করা গেলেও এখন পর্যন্ত এ রোগের কোনো প্রতিষেধক তৈরি করা সম্ভব হয়নি। তবে ক্যানসার শতভাগ নিরাময়ের পথ পেয়েছেন বলে দাবি করছেন ইসরায়েলের একদল বিজ্ঞানী।ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ইসারয়েলের একটি বায়োটেক কোম্পানি নাকি দাবি করছে, আগামী ২০২০ সালের মধ্যে ক্যানসার রোগের

সকালে যে খাবারগুলো খাবেন না!

  

পিএনএস ডেস্ক :অনিয়মিত জীবনযাপন ও অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাসের কারণে মেদ বাড়া, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপের মতো অসুখ হতে পারে। চিকিৎসকরাও তাই খাওয়াদাওয়া নিয়ন্ত্রণে পরামর্শ দিয়ে থাকেন। পুষ্টিবিদ ও ডায়াটেশিয়ানরাও তাই কখন কোন খাবার খাচ্ছেন এবং কত ক্ষণ বিরতি দিয়ে খাচ্ছেন তার উপর গুরত্ব দেন।দিনের শুরুর খাবারটা শরীর গঠন ও রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে খুবই উপকারি। চিকিৎসকদের মতে, খাদ্যগ্রহণের নিয়ম হওয়া উচিত পিরামিড আকার মেনে। দিনের প্রথম খাবার তাই ভারি হওয়াই দরকার।এ দিকে লো ফ্যাট নো কার্বস ডায়েট না

অ্যাজমা থেকে বাঁচার উপায়

  

পিএনএস ডেস্ক: অ্যাজমার কষ্ট কেবল ভূক্তভোগীই জানেন। আমাদের ফুসফুসে অক্সিজেন বহনকারী যে সরু সরু নালীপথ ধুলো, অ্যালার্জি বা দূষণের প্রকোপে কুঁচকে যায়। শ্বাসনালীর পেশী ফুলে ওঠার কারণেই এই সংকোচন হয় ও শরীরে অক্সিজেন কম প্রবেশ করে। তাই শ্বাসের জন্য প্রয়োজনীয় অক্সিজেনের জোগান মেলে না। এই অসুখের প্রবণতা যাদের আছে, অনেকক্ষেত্রেই তাদের সারা জীবন এই সমস্যা বহন করতে হয়, সম্পূর্ণ নিরাময় হয় না। তবে খাওয়াদাওয়া ও জীবনযাপনের বেলায় কিছু নিয়মকানুন মেনে চললে অ্যাজমাকে দূরে রাখা সম্ভব-যা করবেন:যে ঘরে অ্যাজমার

অতিরিক্ত সেলফি তোলা মানসিক রোগের লক্ষণ!

  

পিএনএস ডেস্ক : সেলফি এখন আর অভ্যাস নয়, মানসিক রোগে পরিণত হয়েছে। ভারতীয় পত্রিকা নিউজ এইটিন জানাচ্ছে এমন তথ্য। সেলফি তুলতে ঝুঁকি নিতেও পিছপা হচ্ছেন না অনেকে।সেলফি ম্যানিয়া নিয়ে সমীক্ষা চালিয়ে এমনই ভয়াবহ ছবি তথ্য ধরছেন ভারতীয় চিকিৎসকরা। মানুষের মধ্যে নিজের ছবি তোলার এই অত্যধিক প্রবণতাই কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলছে চিকিৎসকদের। সেলফির প্রতি এই বাড়াবাড়ি আকর্ষণের ফলে কী ধরনের মনস্তাত্ত্বিক সমস্যা হচ্ছে সেটি জানাচ্ছেন তারা।১। সেলফিতে বাড়ছে উদ্বেগ। সেলফি তোলার সঙ্গে সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ

মানসিক চাপ কমায় কলা, রয়েছে আরও নানা গুণ

  

পিএনএস ডেস্ক : কলা সবচেয়ে সহজলভ্য ফল, যা সব ঋতুতেই পাওয়া যায়। পৃথিবীর প্রায় ১০৭টি দেশে মেলে স্বাস্থ্যগুণে ভরপুর এই ফলটি। কাঁচা কলা রান্না করে বা ভেজেও খাওয়া যায়। পুষ্টিবিদদের মতে, কলায় রয়েছে- প্রায় ৯০০ মিলিগ্রাম পটাশিয়াম, ২১০ ক্যালোরি, ৫৪ গ্রাম শর্করা, ২ গ্রাম ফাইবার, ২৮ গ্রাম সুগার ও ৬ গ্রাম প্রোটিন। এছাড়া কলায় ২ শতাংশ ভিটামিন এ, ৩৪ শতাংশ ভিটামিন সি, ২ শতাংশ আয়রন, ৪০ শতাংশ ভিটামিন বি-৬, ১৬ শতাংশ ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে। আসুন জেনে নিই কলার বিভিন্ন উপকারী গুণের বিষয়ে-১. কলায় থাকা ট্রিপটোফ্যান

Developed by Diligent InfoTech