স্বাস্থ্যকথা

রসুনের উপকারিতা

  

পিএনএস ডেস্ক : রসুন হল একটি প্রাচীন ওষধি ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যাবিশেষ হিসেবে পরিচিত৷ এটি শুধু যে খাবার স্বাদ এনে দেয় তা নয়, এটি শরীরে সেলেনিয়াম ও ভিটামিন সি-য়ের মাত্রাকে বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে যা শরীর পক্ষে অত্যন্ত উপযোগী৷ তাই আপনাদের জন্য রসুনের কিছু গুণাবলীর তথ্য রইল৷এটি রক্তকে তরল রাখতে সাহায্য করে৷ এর ফলে রক্ত সহজেই জমাট বাঁধতে পারে না৷রসুন খুব ভাল ডিটক্সিফাইয়ের কাজ করে৷ এটি শরীর থেকে ক্ষতিকর টক্সিন বের করে শরীরকে পরিস্কার ও কার্যক্ষম রাখতে সাহায্য করে৷গবেষণায় দেখা গেছে রসুন

পিছিয়ে পড়া জেলাগুলোতে মা ও নবজাতকের মৃত্যুহার হ্রাস

  

পিএনএস ডেস্ক: গত কয়েক দশকে মাতৃমৃত্যুহার হ্রাস, শিশুর বেঁচে থাকার হার বৃদ্ধি এবং পরিবার পরিকল্পনা ব্যবস্থার উন্নয়নে বাংলাদেশ যথেষ্ট অগ্রগতি সাধন করেছে। তবে এসব অর্জন সত্ত্বেও কিশোরীদের গর্ভধারণ, নিরাপদ মাতৃত্ব এবং নবজাতকের স্বাস্থ্যসেবা, নবজাতকের মৃত্যুহার এখনও বড় চ্যালেঞ্জ। মাতৃমৃত্যু হার হ্রাসের ক্ষেত্রে এখন একটা স্থিতাবস্থা বিরাজ করছে এবং প্রতিবছর প্রায় ৬২ হাজার নবজাতক মারা যাচ্ছে।এ সব সমস্যা সমাধানে ‘যৌন, প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার এবং মা ও নবজাতকের স্বাস্থ্যসেবা উন্নতি’ শীর্ষক একটি

রাগ কতটা ক্ষতিকারক?

  

পিএনএস ডেস্ক : রাগ কোনও ভাবেই আমাদের উপকারে লাগে না, বরং শরীর এবং মনের এত মাত্রায় ক্ষতি করে যে অনেক সময়ই সেই ক্ষতি সমলানো সম্ভব হয়ে ওঠে না। তাই তো রাগ থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকৎসকেরা। রাগের সময় আমাদের মস্তিষ্কের অন্দরে কর্টিজল এবং অ্যাড্রিনালিনের মতো স্ট্রেস হরমেনারে ক্ষরণ বেড়ে যায়। ফলে মন খারাপ হতে শুরু করে। সেই সঙ্গে হার্ট রেট এবং রক্তচাপ মারাত্মক বেড়ে যায়। ফলে যে কোনও সময় মারাত্মক কোনও ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে একাধিক রোগে আক্রান্ত হওয়ার

মধুর যে দারুণ ব্যবহারটি জানেন না আপনি

  

পিএনএস ডেস্ক:প্রতিদিনের অনেকগুলো কাজের মাঝে মুখ্য একটি কাজ হলো আমাদের মুখের স্বাস্থ্য রক্ষা। নিয়ম করে দিনে দুইবার দাঁত মাজেন না এমন মানুষ কমই আছেন। এর পাশাপাশি অনেকেই ফ্লস এবং মাউথওয়াশ ব্যবহার করেন। মাউথওয়াশ ব্যবহারে অনেকেরই একটি অভিযোগ হলো, এর স্বাদ ও গন্ধ অনেকটাই রাসায়নিক, যা তারা অপছন্দ করেন। এর পাশাপাশি মাউথওয়াশ ব্যবহারে অনেকের মুখের ভেতরটা শুষ্ক হয়ে যায়, এটাও তারা পছন্দ করেন না। একেবারে কোন ধরণের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াবিহীন মাউথওয়াশ চাইলে আপনি নিতে পারেন মধুর সাহায্য। হ্যাঁ, মধু দিয়েই

যে তিনটি ইমোশন কন্ট্রোল করলেই হার্ট সুস্থ থাকে

  

পিএনএস ডেস্ক: আবেগ ছাড়া মানুষ হয় না। কারো আবেগ অনেক বেশি, কারো বা কম। কেউ কথায় কথায় আবেগী হয়ে পড়েন কেউবা আবেগকে পাশ কাটিয়ে চলতে পারেন। সুস্থ থাকার জন্য পরিমিত খাওয়া, এক্সারসাইজ, ঘুমের প্রয়োজন রয়েছে ঠিকই। কিন্তু তার পাশাপাশি বেশি দিন সুস্থ থাকতে ও হার্টের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে মানসিক সুস্থতা ও আবেগের ওপর নিয়ন্ত্রণ রাখাও গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, শুধু তিনটি ইমোশন কন্ট্রোল করলেই সুস্থ থাকতে পারে হার্ট।রাগমানুষ মাত্রই রাগ রয়েছে। অনেকে রাগ সহজেই প্রকাশ করেন। অনেকে আবার চেপে রাখেন।

সকালে যে কাজগুলো বদভ্যাস

  

পিএনএস ডেস্ক: ঘুম ভেঙে জেগে ওঠা মানেই নতুন আরেকটি দিনের শুরু। সকাল দেখেই নাকি বলে দেয়া যায় সারাটা দিন কেমন যাবে। সকালে উঠেই প্রথমে কী করেন আপনি? কেউ দিন শুরু করেন কফির কাপে চুমুক দিয়ে, কেউ বা এক্সারসাইজ করে। জানেন কী এসব অভ্যাসের অনেকগুলোই আসলে বদভ্যাস? জেনে নিন কোন বদভ্যাসগুলো ত্যাগ করা উচিত।সকালে ওঠে কফির সুগন্ধ সবারই ভালো লাগে। নিউট্রিশনিস্টরা জানাচ্ছেন, যতই আমরা মনে করি না কেন সকালে কফি এনার্জি জোগায়, তা আসলে কর্টিসল বা স্ট্রেস হরমোনের ক্ষরণ বাড়ায়। ঘুম থেকে ওঠার কয়েক ঘণ্টা পর্যন্ত কফির

সর্বরোগের মহৌষধ বাদাম!

  

পিএনএস ডেস্ক: বাদাম হচ্ছে শক্তি, প্রোটিন ও ভালো চর্বির উৎস। এছাড়াও রয়েছে বাদামের অনেক গুণাগুণ। এই বাদামটি আমাদের শরীরকে চাঙ্গা রাখতে নানাভাবে সাহায্য করে থাকে। চলুন জেনে নেয়া যাক বাদামের গুণাগুণ- ১. ভিটামিনের ঘাটতি দূর করেচীনাবাদামে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স। সেই সঙ্গে রয়েছে নিয়াসিন, থায়ামিন, ভিটামিন বি৬, ভিটামিন বি৯ এবং প্যান্টোথেনিক অ্যাসিড, যা শরীরের সচলতা বজায় রাখতে নানাভাবে কাজে আসে। ২. ক্যান্সার প্রতিরোধ করেচীনা বাদামের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে পলি-ফেনলিক

হার্ট সুস্থ রাখবে চিজ!

  

পিএনএস ডেস্ক: চিজের নাম শুনলে জিভে জল চলে আসে অনেকেরই। কিন্তু মোটা হয়ে যাওয়ার ভয়ে চিজ এড়িয়ে চলেন অনেকেই। এবার নিশ্চিন্তে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনার প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায়। গবেষকরা জানাচ্ছেন, হার্ট সুস্থ রাখতে প্রতি দিনের ডায়েটে অবশ্যই রাখুন ৪০ গ্রাম চিজ।ছোট এক টুকরো এই চিজই আপনার হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক বা যে কোনও করোনারি সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমিয়ে দিতে পারে ১৪ শতাংশ পর্যন্ত। চিজে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন, মিনারেল ও প্রোটিন। যা কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা দূরে রাখে। সেই সঙ্গেই চিজে হাই

ছোট্ট ১টি কৌশলে যেভাবে স্মৃতিশক্তি বাড়াতে পারেন

  

পিএনএস ডেস্ক:আমরা খুব সহজেই ছোটোখাটো জিনিস ভুলে যাই। চাবি কোথায় রেখেছি বা কোন জিনিসটি কোথায় ছিল কিংবা পড়ার বিষয়বস্তু। আমরা যতোই মনে করার চেষ্টা করি আমাদের মস্তিষ্ক যেন তা একেবারেই ধুয়ে মুছে ফেলে দেয়।কিন্তু আপনি জানেন কি, এই ধরণের সমস্যার রয়েছে খুব সহজ সমাধান? ব্যাপারটি ঠিক সমাধানও নয়। এটি মূলত একটি কৌশল। কোনো বিষয় মনে রাখার এবং মনে করার কৌশল। এই একটি মাত্র কৌশলে আপনি বাড়িয়ে নিতে পারেন আপনার স্মৃতিশক্তি।শুনতে অবাক শোনালেও এই কৌশলটি শুধুই চোখ বন্ধ করা। অন্য কিছুই নয়। ভাবছেন, শুধুমাত্র

মটরশুটির পুষ্টিগুণ

  

পিএনএস ডেস্ক: মটরশুটিতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, আঁশ এবং অনেক ধরনের পুষ্টিসমৃদ্ধ উপাদান রয়েছে। এতে ফ্যাট কম থাকায় এটি ওজন কমাতে সাহায্য করে। মটরশুটিতে প্রচুর পরিমাণে পলিফেনল আছে। গবেষণায় দেখা গেছে, কেউ যদি প্রতিদিন ২ মিলিগ্রাম পলিফেলনসমৃদ্ধ খাবার খান তাহলে তার পাকস্থলী ক্যানসারের ঝুঁকি অনেকটাই কমে যায়। আর এক কাপ মটরশুটিতে অন্তত ১০ মিলিগ্রাম পলিফেলন থাকে। তাই এটি পাকস্থলী ক্যানসারের ঝুঁকি কমাতে দারুণ কার্যকরী।প্রচুর পরিমাণে এন্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় মটরশুটি বয়স ধরে রাখতে সাহায্য করে, শরীরে রোগ

Developed by Diligent InfoTech