ইসলাম

যে দোয়া পড়লে দু:খ ও অস্থিরতা এড়ানো যায়

  

পিএনএস ডেস্ক: দোয়াদু:খ ও অস্থিরতা মানুষকে দুর্বল করে দেয়। দু:খগ্রস্ত মানুষজন স্বাভাবিক কর্ম পালনে ব্যর্থ হয়। ফলে জীবন দুর্বিষহে পরিণত হয়। অস্থিরতা মনোযোগে বিঘ্ন ঘটায়। ফলে মারাত্মক দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। তাই কোনো ব্যক্তি দু:খ, অস্থিরতা, কষ্ট, চিন্তার সম্মুখীন হতে চায় না। আর প্রতিটি সমস্যা সমাধানের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।হজরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন কোনো দু:খ, কষ্ট বা চিন্তা ও অস্থিরতায় পড়তেন তখন

ইসলামের দৃষ্টিতে যাদের বিবাহ করা হারাম

  

পিএনএস ডেস্ক: ইসলামের দৃষ্টিতে – মহান আল্লাহ মানুষকে সৃষ্টি করার সঙ্গে সঙ্গে তার জীবন ধারণের জন্য কিছু চাহিদা দিয়েছেন এবং চাহিদা মেটানোর পদ্ধতিও বলে দিয়েছেন। মানব জীবনে খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসার ন্যায় জৈবিক চাহিদাও গুরুত্বপূর্ণ। এই চাহিদা পূরণের জন্য ইসলাম বিবাহের বিধান দিয়েছে।আল্লাহ তাআলা পৃথিবীর প্রথম মানুষ আদম (আঃ)-কে নিজ হাতে সৃষ্টি করেছেন। পরবর্তী বংশ বৃদ্ধির জন্য হাওয়া (আঃ)-কে সৃষ্টি করে আদম (আঃ)-এর সঙ্গে বিবাহের ব্যবস্থা করেন। মানব জীবন প্রণালী

ইসলামে আংটি ও পাথর ব্যবহারের বিধান

  

পিএনএস ডেস্ক:মানুষের ভাগ্যের বিধাতা আল্লাহ, আল্লাহই পারেন তা পরিবর্তন করতে; আর তিনি তা পরিবর্তন করেন বান্দার আমলের কারণে। যেমন নেক আমল বা সৎকর্ম, পিতামাতার ও গুরুজনের দোয়া বা শুভাশিষ, সদকাত বা দান খয়রাত ইত্যাদি দীর্ঘায়ু নেক হায়াত, সুখী সুন্দর নিরাপদ ও আনন্দময় জীবন লাভের কারণ। অনুরূপভাবে গুনাহ বা পাপকাজ ও অন্যায় অপরাধ-অপকর্ম দ্বারা আয়ু কমে, দুর্ভাগ্য আসে ও সঙ্কটে পতিত হতে হয়। কিছু মানুষ পর্যাপ্ত ধর্মীয় জ্ঞান না থাকায় ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য নাজায়েজ ও অবৈজ্ঞানিক পন্থাবলম্বন করে। এর

নবী করিমকে (সা.) প্রথম যে নারী দেখেন

  

পিএনএস ডেস্ক:হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর মুবারক শরীর স্পর্শ করেন প্রথম যে নারী তিনি হযরত ওয়ারাকা (রা.) একজন ইথুপিয়ান রমণী। নবীজি (সা.) জন্ম নেবার সময় উক্ত স্থানে ওয়ারাকা (রা.) ছিলেন এবং তার কোলেই প্রথম চোখ খোলেন নবীজি (সা.)।তখন এই মহিমান্বিত জননীর বয়স ৯ অথবা ১০ বছর। তার সম্বন্ধে জানা যায়, তিনি খুবই কম কথা বলতেন এবং যোগাত্মক মানসিকতার ছিলেন। সব বিষয় বস্তুর মধ্যেই ভালো কিছু লক্ষ্য করতে চেষ্টা করতেন। হযরত আমিনা বিনতে ওয়াহাব (রা.) যখন অন্ত:সত্ত্বা ছিলেন, তিনি স্বপ্নে দেখেন যে তার পেট থেকে একটি

যে রাতের দোয়া আল্লাহ ফিরিয়ে দেন না

  

পিএনএস ডেস্ক:আল্লাহ তাআলার দরবারে যে কোনো সময় দোয়া করা যায়। তবে কিছু দিন, কিছু মুহূর্ত এবং কিছু সময় আছে সুনির্ধারিত; যখন আল্লাহ তাআলা বান্দার দোয়া কবুল করে থাকেন। ইতিপূর্বে সে সময় ও ক্ষণগুলো তুলে ধরা হয়েছে।এ ছাড়াও কিছু রাত এমন রয়েছে যে রাতে দোয়া করলে আল্লাহ তাআলা বান্দার দোয়া কবুল করে থাকেন। সে রাতগুলোর মধ্যে একটি হলো রজব মাসের প্রথম রাত। এ রজব মাস জুড়েই আল্লাহর নবি বেশি বেশি বরকত এবং রমজান পর্যন্ত হায়াত বৃদ্ধির দোয়া করতেন।হাদিসে পাকে এসেছে, রজব মাসের প্রথম রাত, বান্দার দোয়া কবুলের

আল্লাহর নৈকট্য লাভে মনকে নরম করার উপায়

  

পিএনএস ডেস্ক:ইসলামের ফিতরাতের ওপরই মানুষ জন্ম লাভ করে। জন্ম থেকেই মানুষের অন্তর দরদ শূন্য হয় না। শিশুদের প্রতি তাকালেই প্রমাণ পাওয়া যায়। কারণ দুনিয়ার প্রতিটি শিশুই স্বভাব সুলভভাবে প্রত্যেককে অকাতরে মিষ্টি হাসি উপহার দেয়। এ থেকে প্রমাণ হয় যে আল্লাহ তাআলা মানুষের হৃদয়কে কঠিন করে সৃষ্টি করেন না।মানুষ যেভাবে বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ধীরে ধীরে কঠিন ও শক্ত হতে থাকে তেমনি মানুষের অন্তরও বেড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে কঠিন হতে থাকে। তবে সব মানুষের অন্তর কঠিন হয় না। ইসলামের এমন কিছু আচার ও নিয়ম রয়েছে যা

কাবাঘর সম্পর্কিত ৯ বিস্ময়কর তথ্য

  

পিএনএস ডেস্ক: পবিত্র কাবাঘর সম্পর্কিত যে ৯ টি তথ্য সম্ভবত আপনার অজানা: ১. কাবাঘরের ভেতর পৃথিবীর একমাত্র স্থান যেখানে আপনি যে কোন দিকে মুখ করে নামাজ আদায় করতে পারেন। ২. আমাদের পৃথিবীর কাবাঘরের ঠিক উপরে আসমানে ফেরেশতাদের জন্য আরেকটি কাবা রয়েছে যার নাম বাইতুল মামুর। সেখানে প্রতিদিন ৭০ হাজার ফেরেশতা তাওয়াফ করার সুযোগ পান। আর যারা একবার তাওয়াফ করেছেন তারা আর দ্বিতীয়বার এর সুযোগ পান না। মিরাজের রাত্রিতে রাসুলুল্লাহকে (সঃ) এ বাইতুল মামুর দেখানো হয়। (অনেকে কাবা বলতে সম্পূর্ণ মাসজিদুল হারামকে

পবিত্র শবেমেরাজ ১৪ এপ্রিল

  

পিএনএস ডেস্ক : বাংলাদেশের আকাশে রোববার পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। সোমবার ৩০ দিন পূর্ণ হবে জমাদিউস সানি মাসের। মঙ্গলবার থেকে রজব মাস গণনা শুরু হবে। এ হিসাবে ১৪ এপ্রিল শনিবার দিবাগত রাতে সারাদেশে পবিত্র লায়লাতুল মিরাজ পালিত হবে।রোববার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মুকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্ম মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব এ. বি. এম আমিন উল্লাহ নূরী। উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম সচিব মিজান-উল-আলম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব সাইদুর

নামায আদায় না করার কি শাস্তি হবে ?

  

পিএনএস ডেস্ক:ঈমান আনয়নের পর মুমিন বান্দাদের জন্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবশ্যপালনীয় ইবাদাত হচ্ছে পাঁচ ওয়াক্ত নামায। প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পর থেকে ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবার ওপর নির্ধারিত সময়ে এই নামায আদায় করা ফরয। কালামুল্লাহ শরিফে আল্লাহ তা’আলা জানিয়ে দিচ্ছেন, “নিশ্চয়ই নির্ধারিত সময়ে নামায আদায় করা বিশ্বাসীদের জন্য ফরয করা হয়েছে।” (সুরা নিসা, আয়াত ১০৩)নামাযের মাধ্যমে আল্লাহর সাথে বান্দার নিবিড়তম সম্পর্ক তৈরি হয়। আবার যে সকল বান্দা নামায ছেড়ে দেয়, আল্লাহ তা’আলাও তার থেকে নিজের দায়িত্ব

শরীর ব্যথায় যে দোয়া পড়তেন বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদ (সঃ)

  

পিএনএস ডেস্ক: মাটি ও মানুষের থুথুর মাঝে আরোগ্য রয়েছে। হজরত মোল্লা আলি কারি রাহমাতুল্লাহি আলাইহি বলেন, ‘আমি চিকিৎসা শাস্ত্রের কিছু আলোচনায় দেখেছি পরিশুদ্ধ ও মেজাজ পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে থুথুর বিশেষ প্রভাব রয়েছে। আর মূল স্বভাব সংরক্ষণ করার ক্ষেত্রে মাটির বিশেষ উপকারিতা রয়েছে। এমনিভাবে অসুস্থতার পাশ্বপ্রতিক্রিয়া প্রতিরোধের ক্ষেত্রেও এর প্রভাব রয়েছে। (মিরকাত) এ প্রসঙ্গে বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের একটি হাদিস তুলে ধরা হলো-হজরত আয়িশা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত তিনি

Developed by Diligent InfoTech