ইসলাম

রাজ পরিবারের অতিথি হয়ে হজে যাচ্ছেন সাকিব

  

পিএনএস ডেস্ক : পবিত্র হজ পালন করতে যাচ্ছেন সাকিব আল হাসান। আজ রাত সাড়ে ১১টায় সাকিব আল হাসানের হজ ফ্লাইট। বিসিবির সূত্র জানিয়েছে, সৌদি রাজ পরিবারের অতিথি হয়েই হজ পালন করবেন সাকিব। তার সফরসঙ্গী হবেন এনআরবি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এবং কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা।নিজের ফেসবুক পেজে সাকিব লিখেছেন, এই পবিত্র জিলহজ মাসে, একজন অনুগত মুসলিম হিসেবে পরম করুণাময় আল্লাহর নৈকট্য লাভের আশায় আল্লাহর ঘরে পবিত্র হজ পালনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করতে পেরে আমি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছি। আপনাদের সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা

মৃত ব্যক্তির নামে কোরবানি কি জায়েয? ইসলাম যা বলে!

  

পিএনএস ডেস্ক : কোরবানি’ শব্দটি আরবি ‘কোরবান’ শব্দ থেকে আগত। যার অর্থ উৎসর্গ করা। অন্যদিকে কোরবান শব্দটি কুরবু ধাতু থেকে উৎপন্ন, যার অর্থ নব তথা নিকটবর্তী হওয়া।হজরত যায়েদ বিন আরক্বাম (রা.) বলেন, রাসূল (স.)-এর সাহাবিরা জিজ্ঞেস করলেন, হে আল্লাহর রাসূল! এই কোরবানিটা কী? রাসূল (স.) জবাবে বললেন, তোমাদের পিতা ইব্রাহিম (আ.)-এর সুন্নত বা আদর্শ। তাঁরা জিজ্ঞেস করলেন, এতে আমাদের জন্য কী ফায়েদা রয়েছে হে আল্লাহর রাসূল? তিনি বললেন, (কোরবানির পশুর) প্রতিটি পশমের বিনিময়ে একটি করে নেকি রয়েছে। সাহাবিরা

পবিত্র হজ ২০ আগস্ট

  

পিএনসে ডেস্ক: সৌদি আরবে পবিত্র জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে। সে অনুযায়ী ২০ আগস্ট পবিত্র হজ। গতকাল শনিবার দেশটি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের এক ঘোষণায় বলা হয়, ১২ আগস্ট রোববার হবে জিলহজ মাসের প্রথম দিন। সৌদি প্রেস এজেন্সির বরতে এ খবর জানিয়েছে আরব নিউজ।হিজরি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী, বছরের ১২তম বা শেষ মাস হচ্ছে জিলহজ। এ মাসের ১০ তারিখে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়। এই জিলহজ মাসেই আল্লাহর নির্দেশে নিজের প্রাণপ্রিয় সন্তান হজরত ইসমাইল আলাইহিস সালামকে কুরবানির মাধ্যমে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন হজরত

এবার ঈদুল আজহার প্রধান জামাত সকাল ৮টায়

  

পিএনএস ডেস্ক :চলতি বছর ঈদুল আজহার প্রধান জামাত সকাল ৮টায় জাতীয় ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হবে। তবে আবহাওয়া প্রতিকূল হলে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে।ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা আনোয়ার হোসাইন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।সেই বিজ্ঞপ্তিতে ঈদ উপলক্ষে সরকারি, আধাসরকারি ভবন, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, বেসরকারি ভবন

সূরা আন-আম এর রুকু ভিত্তিক মূল বক্তব্য

  

পিএনএস (মোহাম্মদ সোলাইমান) : প্রথম রুকু(১-১০): প্রশংসা আল্লাহর জন্য, যিনি পৃথিবী ও আকাশ সৃষ্টি করেছেন এবং অন্ধকার ও আলোর উৎপত্তি ঘটিয়েছেন, তবুও সত্যের দাওয়াত অস্বীকারকারীরা অন্যদেরকে তাদের রবের সমকক্ষ দাড় করাচ্ছে, আল্লাহইতো তোমাদের সৃষ্টি করেছেন মাটি থেকে এবং তিনিই এক আল্লাহ আকাশেও আছেন এবং পৃথিবীতেও আছেন, তোমাদের গোপন ও প্রকাশ্য সব অবস্থাই তিনি জানেন, এবং ভালো-মন্দ যা-ই তোমরা উপার্জন করো তাও তিনি ভালভাবেই অবগত আছেন।দিতীয় রুকু(১১-২০): লোকদেরকে বলো, পৃথিবীর বুকে একটু চলাফেরা করে দেখো যারা

জান্নাতের ৮টি দরজা একজন মুমিনের জন্য জন্য খুলে দেয়া হবে

  

পিএনএস ডেস্ক : ফরজ, ওয়াজিব, সুন্নাত তো অবশ্যই পালন করব এর পাশাপাশি কিছু মুস্তাহাব বা ঐচ্ছিক আমল আছে যা করলে একজন মুমিনের জান্নাতে যাওয়ার রাস্তা সুগম হয়।যেমন হাদিস শরিফে এসেছে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন- “যে ব্যক্তি পূর্ণভাবে ওজু করবে এবং কালিমায়ে শাহাদাত পাঠ করবে, তার জন্য জান্নাতের আটটি দরজাই খুলে দেয়া হবে। সে যেটা দিয়ে ইচ্ছা প্রবেশ করতে পারবে”। (মুসলিম ১/২০৯,,মিশকাতঃ ২৮৯)কালিমা শাহাদাত- উচ্চারণঃ আশহাদু আল্-লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারিকা-লাহু ওয়া

সূরা আল আন'আম এর নাযিলের প্রেক্ষাপট

  

পিএনএস (মোহাম্মদ সোলাইমান) :এ সুরার ১৬ ও ১৭ রুকু’তে কোন কোন আন'আমের (গৃহপালিত পশু) হারাম হওয়া। এবং কোন কোনটির হালাল হওয়া সম্পর্কিত আরববাসীদের কাল্পনিক ও কুসংস্কারমূলক ধারণা বিশ্বাসকে খ-ন করা হয়েছে। এ প্রেক্ষিতে এ সূরাকে আল আন’আম নামকরণ করা হয়েছে।নাযিল হওয়ার সময়-কালঃইবনে আব্বাসের বর্ণনা মতে এ সম্পূর্ণ সূরাটি একই সাথে মক্কায় নাযিল হয়েছিল। হযরত মুআ’য ইবনে জাবালের চাচাত বোন হযরত আসমা বিনতে ইয়াযীদ বলেন, “রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উটনীর পিঠে সওয়ার থাকা অবস্থায় এ সূরাটি

পৃথিবীর প্রথম জমিন পবিত্র কাবা শরিফ

  

পিএনএস ডেস্ক : পবিত্র কাবা শরিফ পৃথিবীতে আল্লাহর জীবন্ত নিদর্শন। সৃষ্টির সূচনা থেকেই মহান আল্লাহ কাবাকে তাঁর মনোনীত বান্দাদের মিলনমেলা হিসেবে কবুল করেছেন। ভৌগোলিকভাবেই গোলাকার পৃথিবীর মধ্যস্থলে কাবার অবস্থান, যা পৃথিবীর কেন্দ্রস্থল হিসেবে বিবেচিত। এ বিষয়ে পিএইচডি করেছেন ড. হুসাইন কামাল উদ্দীন আহমদ। তাঁর থিসিসের শিরোনাম হলো—‘ইসকাতুল কুররাতিল আরধিয়্যা বিন্ নিসবতে লি মাক্কাতিল মুকাররামা।’ (মাজাল্লাতুল বুহুসুল ইসলামিয়া, রিয়াদ : ২/২৯২)ওই থিসিসে তিনি প্রাচীন ও আধুনিক দলিল-দস্তাবেজের আলোকে এ

হজ্জ আগ্রহীদের এইসব বিষয় অবশ্যই জানা জরুরি

  

পিএনএস ডেস্ক : ইবরাহিম (আ.) কাবাঘরের পুনর্নির্মাণকার্য সমাপ্ত করে আল্লাহ তাআলার নির্দেশে হজের ঘোষণা করেন। তাঁর এ ঘোষণা তখন পৃথিবীতে বিদ্যমান ও কিয়ামত পর্যন্ত আগমনকারী সব মানুষের কানে পৌঁছে দেওয়া হয়। কিয়ামত পর্যন্ত যারা হজ করবে, তারা সেদিন ইবরাহিম (আ.)-এর ওই আহ্বানে সাড়া দিয়ে বলেছিল, ‘লাব্বাইক, আল্লাহুম্মা লাব্বাইক।’ (তাফসিরে ইবনে কাসির : ৩/২৬০)হজ ও ওমরাহর সংজ্ঞা : ‘হজ’ অর্থ—কোনো মহৎ কাজের ইচ্ছা করা। হজের নিয়তসহ ইহরাম ধারণ করে নির্দিষ্ট দিনে আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করা ও কাবা শরিফ তাওয়াফ

বিপদে পড়লে মহানবী (সা) যে ৩টি দোয়া পাঠ করতে বলেছেন!

  

পিএনএস ডেস্ক :আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) মহান আল্লাহর দীন প্রতিষ্ঠাকালে বহু বিপদের সম্মুখীন হয়েছেন। বেশ কয়েকবার কাফেরদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হয়েছে। অনেক জুলুম, অন্যায়, অত্যাচার পাড়ি দিয়ে তিনি ইসলাম প্রতিষ্ঠা করেছেন। বিপদের সময় মহানবী (সা.) যে ৩টি দোয়া পাঠ করতেন সেই দোয়াগুলো উম্মতদেরও পাঠ করাতে বলেছেন।দোয়া ৩টি হলো-১। সাদ ইবনে আবি ওক্কাস রা. বলেন, নবীজি সা. দুঃখ-কষ্টের সময় বলতেন :লা-ইলাহা ইল্লা আনতা সুবহানাকা ইন্নি কুনতু মিনাজ জোয়ালিমিন। (দোয়া ইউনূস)অর্থ : একমাত্র তুমি

Developed by Diligent InfoTech