ইসলাম - Premier News Syndicate Limited (PNS)

ইসলাম

রোজায় যা পালনীয় ও বর্জনীয়

  

পিএনএস ডেস্ক: রমজান মাস অফুরন্ত রহমত, বরকত, মাগফিরাত ও ফজিলতপূর্ণ মাস। তাই এ মাসের প্রতিটি মুহূর্তের সদ্ব্যবহার করা একজন বুদ্ধিমান মুমিন বান্দার অবশ্য কর্তব্য। নবী করিম (সা.) রমজান মাসে দিনে রোজা রাখতেন আর রাতে দীর্ঘক্ষণ ইবাদত-বন্দেগি করতেন। সাহাবায়ে কেরামও রমজান মাসকে বিশেষ গুরুত্ব দিতেন। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, সমাজের অনেককেই দেখা যায় রমজানের সিয়াম সাধনার পাশাপাশি কতিপয় ভ্রান্তিপূর্ণ কাজে লিপ্ত থাকতে। যা সিয়াম সাধনার মর্মার্থ ও উদ্দেশ্যের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয় বরং সাংঘর্ষিক। নিম্নে

মাজন বা টুথপেস্ট ব্যবহার করলে কি রোজার ক্ষতি হবে?

  

পিএনএস ডেস্ক : রোজা রেখে দিনের বেলা কয়লা চিবিয়ে বা মাজন দ্বারা দাঁত মাজা মাকরুহ। এর কিছু অংশ যদি কণ্ঠনালির নিচে চলে যায়, তাহলে রোজা নষ্ট হয়ে যাবে। কাঁচা বা শুকনা মিসওয়াক দিয়ে দাঁত মাজা জায়েজ। এমনকি যদি নিমের কাঁচা ডালের মিসওয়াক করা হয় এবং তার তিক্ততার স্বাদ মুখে অনুভূত হয়, তবুও মাকরুহ হবে না। বেহেশতি জেওর : ৩/১৩, মারাকিউল ফালাহ : ২১০)।কিন্তু রোজা অবস্থায় টুথপেস্ট ও টুথ পাউডারের অবস্থা এ থেকে ভিন্ন। এগুলো ব্যবহার করলে মুখে এক ধরনের স্বাদ অনুভব হয়। তাই টুথপেস্ট ও টুথ পাউডারকে মিসওয়াকের

রোজার তাৎপর্য ও ফজিলত

  

পিএনএস ডেস্ক:রোজা শুধু আল্লাহর জন্য। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন নিজের সঙ্গে রোজার সম্পর্ক ঘোষণা করেছেন। এমনিভাবে তিনি সব ইবাদত-বন্দেগি থেকে রোজাকে আলাদা মর্যাদা দিয়েছেন।যেমন তিনি এক হাদিসে কুদসিতে বলেন, 'মানুষের প্রতিটি কাজ তার নিজের জন্য, কিন্তু রোজা এর ব্যতিক্রম, তা শুধু আমার জন্য, আমিই তার প্রতিদান দেব। ' (মুসলিম -২৭৬০)এ হাদিস দ্বারা আমরা অনুধাবন করতে পারি, নেক আমলের মাঝে রোজা রাখার গুরুত্ব আল্লাহর কাছে কত বেশি।তাই সাহাবি আবু হুরাইরা (রা.) যখন বলেছিলেন, 'ইয়া রাসুলাল্লাহ! আমাকে অতি

রমজানের গুরুত্ব ও ফজিলত

  

পিএনএস ডেস্ক:ইসলামী আরবী বর্ষ পঞ্জির নবম মাস রমজান। ইসলামী আরবী বার মাসের মধ্যে রমজান মাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আল্লাহ এবং রাসূল (সা:)-এর উপর ঈমান আনয়নের পর প্রত্যেক বিশ্বাসী বান্দাহর উপর ধনী-গরীব নির্বিশেষে দুটি কাজ করা ফরজ বা অপরিহার্য। এর প্রথমটি হলো নামাজ এবং দ্বিতীয়টি হলো রোজা। যাকাত এবং হজ করা গরীবদের উপর ফরজ নয়। এ দুটি কাজ ধনীদের জন্য নির্ধারিত। প্রত্যেক বালিগ মুসলিম নর-নারীর উপর রমজান মাসের রোজা ফরজ।রোজা ফরজ হওয়ার বিধানকে অস্বীকার করলে সে আর মুসলমান থাকে না। মহান রাব্বুল আলামীন

চীনে রোজা পালনে নিষেধাজ্ঞা, মুসলমানদের সঙ্গে বিমাতাসুলভ আচরণ!

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : বাংলাদেশের পরীক্ষিত বন্ধু হিসেবে চীন বেশ পরিচিত। অথচ তারা মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার দিক দিয়ে এ দেশটি শীর্ষে। তারা সে দেশের মুসলমানদের রোজা রাখার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। চীনের শিনঝিয়াং প্রদেশে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এ নিষেধাজ্ঞা দ্রুত প্রত্যাহার করা জরুরি।অন্যান্য বছরের মতো এবারও চীনের মুসলিম অধ্যুষিত শিনঝিয়াং অঞ্চলে সরকারি চাকুরিজীবী, শিক্ষার্থী এবং শিশুদের ওপর রোজা রাখায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির সরকার। চীনের শিনঝিয়াং

শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র রোজা

  

পিএনএস ডেস্ক : আজ বুধবার দেশের কোথাও চাঁদ দেখা না যাওয়ায় আগামী শুক্রবার থেকে রোজা শুরু হচ্ছে। আজ বুধবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে বৈঠক করে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি এ কথা জানায়।বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ধর্মমন্ত্রী ও কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ মতিউর রহমান।বৈঠক শেষে জানানো হয়, বাংলাদেশের কোথাও পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে আগামী শুক্রবার থেকে শুরু হবে রমজান মাস গণনা। সে ক্ষেত্রে আগামীকাল বৃহস্পতিবার দেশের মসজিদগুলোতে বাদ এশা তারাবির নামাজের মধ্য দিয়ে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা পবিত্র

মাহে রমজান মাসের পবিত্রতা রক্ষায় গণমাধ্যমের ভূমিকা

  

পিএনএস, লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল : রমজান রহমত, বরকত ও নাজাতের মাস। এই মাস উম্মতের জন্যে আল্লাহ তায়ালা প্রদত্ত এক বিশেষ নিয়ামত। এই মাস হচ্ছে, অল্প সময়ে, কম আমলের মাধ্যমে অধিক নেকী অর্জন করার সুযোগ। মহান আল্লাহ তায়ালা বছরের বিভিন্ন মৌসুমকে বিভিন্ন ফসলের জন্য অপেক্ষাকৃত উপযোগী করে সৃষ্টি করেছেন। যদি সেই নির্দিষ্ট মৌসুমে তার উপযোগী ফসলের চাষ করা হয় তবে অধিক লাভবান হওয়া যায়। তেমনি করে বছরের কোন কোন মাস ও তার দিবা রাত্রিকেও তিনি ইবাদতের জন্যে বিশেষভাবে বরকতময় ও বৈশিষ্ট্যমন্ডিত করে রেখেছেন। এ সকল

রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় আশু করণীয়

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : আজ চাঁদ দেখা গেলে কাল থেকে রমজানের রোজা শুরু। রাতে তারাবির নামাজ পড়া হবে। শেষ রাতে সেহরী খাওয়ার পর নিয়ত করে রোজা পোলন করবেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। রোজার ফজিলত বর্ণাতীত।মাসব্যাপী রমজান তিনভাগে বিভক্ত। রহমত, মাগফিরাত, নাজাত। পুরো মাস যিনি নিয়ম মেনে রোজা পালন করবেন, তার অতীতের সব পাপ মহান আল্লাহ মাফ করে দেবেন। ওই রোজাদার হয়ে যাবেন মাছুম বাচ্চার মতো সম্পূর্ণ পাপমুক্ত।রমজানে কেউ মারা গেলে তার কবর আজাব মাফ হয়ে যায়। এমনকি রমজানে রোজাদারের মুখের দুর্গন্ধ

দেশের সকল মসজিদে একই পদ্ধতিতে তারাবীহ্ পড়ার আহবান

  

পিএনএস ডেস্ক:খতম তারাবীহ্ পড়ার সময় একই পদ্ধতি অনুসরণ করার জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে আহবান জানানো হয়েছে। দেশের প্রায় সব মসজিদে খতম তারাবীহ্তে পবিত্র কুরআনের নির্দিষ্ট পরিমাণ পারা তিলাওয়াত করার রেওয়াজ চালু আছে। তবে কোনো কোনো মসজিদে এর ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। এতে করে বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতকারী মুসল্লিদের মধ্যে কুরআন খতমের ধারাবাহিকতা রক্ষা করা সম্ভব হয় না। এই অবস্থায় ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের মধ্যে একটি মানসিক অতৃপ্তি ও অতুষ্টি অনুভূত হয়। কুরআন খতমের পূর্ণ সওয়াব থেকেও তারা বঞ্চিত হন। এ

দান-খয়রাতে ধর্মীয় নিয়ম মানা হচ্ছে না : হতদরিদ্রদের জীবন নিয়ে চলছে চরম তামাশা

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : চাঁদ দেখা গেলে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে রমজান মাস শুরু হবে। জাকাত-ফেতরা আদায়ের মাস রমজান। ধনী-দরিদ্রের মধ্যে সমতা আনয়নের জন্যই মূলত জাকাত-ফেতরার বিধান। এর মধ্য দিয়ে মালদার তার সম্পদের পবিত্রা রক্ষা করেন। আর নিম্ন আয়ের মানুষ জাকাত-ফেতরার পেয়ে নিজেদের দারিদ্র্যতা দূরীকরণে সক্ষম হন। বহুবিধ কারণে উত্তম এই নিয়মটি হালে জীবনহানির আকরে পরিণত।জাকাত-ফেতরা সবার জন্য কল্যাণকর। মহান আল্লাহর পক্ষ থেকে পাওয়া এমন উত্তম নিয়মটি নিয়ে আমাদের দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করছে একটি

Developed by Diligent InfoTech