ইসলাম

সূরা আল আন'আম এর নাযিলের প্রেক্ষাপট

  

পিএনএস (মোহাম্মদ সোলাইমান) :এ সুরার ১৬ ও ১৭ রুকু’তে কোন কোন আন'আমের (গৃহপালিত পশু) হারাম হওয়া। এবং কোন কোনটির হালাল হওয়া সম্পর্কিত আরববাসীদের কাল্পনিক ও কুসংস্কারমূলক ধারণা বিশ্বাসকে খ-ন করা হয়েছে। এ প্রেক্ষিতে এ সূরাকে আল আন’আম নামকরণ করা হয়েছে।নাযিল হওয়ার সময়-কালঃইবনে আব্বাসের বর্ণনা মতে এ সম্পূর্ণ সূরাটি একই সাথে মক্কায় নাযিল হয়েছিল। হযরত মুআ’য ইবনে জাবালের চাচাত বোন হযরত আসমা বিনতে ইয়াযীদ বলেন, “রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উটনীর পিঠে সওয়ার থাকা অবস্থায় এ সূরাটি

পৃথিবীর প্রথম জমিন পবিত্র কাবা শরিফ

  

পিএনএস ডেস্ক : পবিত্র কাবা শরিফ পৃথিবীতে আল্লাহর জীবন্ত নিদর্শন। সৃষ্টির সূচনা থেকেই মহান আল্লাহ কাবাকে তাঁর মনোনীত বান্দাদের মিলনমেলা হিসেবে কবুল করেছেন। ভৌগোলিকভাবেই গোলাকার পৃথিবীর মধ্যস্থলে কাবার অবস্থান, যা পৃথিবীর কেন্দ্রস্থল হিসেবে বিবেচিত। এ বিষয়ে পিএইচডি করেছেন ড. হুসাইন কামাল উদ্দীন আহমদ। তাঁর থিসিসের শিরোনাম হলো—‘ইসকাতুল কুররাতিল আরধিয়্যা বিন্ নিসবতে লি মাক্কাতিল মুকাররামা।’ (মাজাল্লাতুল বুহুসুল ইসলামিয়া, রিয়াদ : ২/২৯২)ওই থিসিসে তিনি প্রাচীন ও আধুনিক দলিল-দস্তাবেজের আলোকে এ

হজ্জ আগ্রহীদের এইসব বিষয় অবশ্যই জানা জরুরি

  

পিএনএস ডেস্ক : ইবরাহিম (আ.) কাবাঘরের পুনর্নির্মাণকার্য সমাপ্ত করে আল্লাহ তাআলার নির্দেশে হজের ঘোষণা করেন। তাঁর এ ঘোষণা তখন পৃথিবীতে বিদ্যমান ও কিয়ামত পর্যন্ত আগমনকারী সব মানুষের কানে পৌঁছে দেওয়া হয়। কিয়ামত পর্যন্ত যারা হজ করবে, তারা সেদিন ইবরাহিম (আ.)-এর ওই আহ্বানে সাড়া দিয়ে বলেছিল, ‘লাব্বাইক, আল্লাহুম্মা লাব্বাইক।’ (তাফসিরে ইবনে কাসির : ৩/২৬০)হজ ও ওমরাহর সংজ্ঞা : ‘হজ’ অর্থ—কোনো মহৎ কাজের ইচ্ছা করা। হজের নিয়তসহ ইহরাম ধারণ করে নির্দিষ্ট দিনে আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করা ও কাবা শরিফ তাওয়াফ

বিপদে পড়লে মহানবী (সা) যে ৩টি দোয়া পাঠ করতে বলেছেন!

  

পিএনএস ডেস্ক :আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) মহান আল্লাহর দীন প্রতিষ্ঠাকালে বহু বিপদের সম্মুখীন হয়েছেন। বেশ কয়েকবার কাফেরদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হয়েছে। অনেক জুলুম, অন্যায়, অত্যাচার পাড়ি দিয়ে তিনি ইসলাম প্রতিষ্ঠা করেছেন। বিপদের সময় মহানবী (সা.) যে ৩টি দোয়া পাঠ করতেন সেই দোয়াগুলো উম্মতদেরও পাঠ করাতে বলেছেন।দোয়া ৩টি হলো-১। সাদ ইবনে আবি ওক্কাস রা. বলেন, নবীজি সা. দুঃখ-কষ্টের সময় বলতেন :লা-ইলাহা ইল্লা আনতা সুবহানাকা ইন্নি কুনতু মিনাজ জোয়ালিমিন। (দোয়া ইউনূস)অর্থ : একমাত্র তুমি

হজ ও ওমরাহ পালনে মুসলিমদের করণীয়

  

পিএনএস ডেস্ক : সারা বিশ্ব থেকে মুসলিম উম্মাহ হজ ও ওমরাহ পালনে পবিত্র ভূমি মক্কায় গমন করেন। হজের সব রোকনগুলো মক্কায় অবস্থিত। দুনিয়ার সবচেয়ে দামি স্থান কাবা শরিফ তথা আল্লাহ ঘরও মক্কায় অবস্থিত। এ কারণেই পবিত্র ভূমি মক্কার সম্মান ও মর্যাদা অনেক বেশি।হজ ও ওমরার রোকনগুলোতে করণীয় কাজ শ্রদ্ধা ও সম্মানের সঙ্গে আদায় করতে হয়। পবিত্র ভূমি মক্কার মর্যাদা ও সম্মান এত বেশি যে, সেখানে কোনো প্রকার অশান্তিমূলক কার্যক্রমই বৈধ নয়।মক্কা বিজয়ের পরের দিন প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এক হাদিসে

আজ থেকে জিলকদ মাস শুরু

  

পিএনএস ডেস্ক :দেশের আকাশে শনিবার ১৪৩৯ হিজরি সনের পবিত্র জিলকদ মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ফলে রবিবার (১৫ জুলাই) থেকে পবিত্র জিলকদ মাস গণনা শুরু হবে। শনিবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মোকাররমস্থ সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় বলা হয়, ১৪৩৯ হিজরি সনের পবিত্র জিলকদ মাসের চাঁদ দেখা সম্পর্কে সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়সমূহ, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর এবং মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান হতে প্রাপ্ত

দুনিয়া থেকেই অর্জন করুন জান্নাত

  

পিএনএস ডেস্ক :يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آَمَنُوا هَلْ أَدُلُّكُمْ عَلَى تِجَارَةٍ تُنجِيكُم مِّنْ عَذَابٍ أَلِيمٍ. تُؤْمِنُونَ بِاللَّهِ وَرَسُولِهِ وَتُجَاهِدُونَ فِي سَبِيلِ اللَّهِ بِأَمْوَالِكُمْ وَأَنفُسِكُمْ ذَلِكُمْ خَيْرٌ لَّكُمْ إِن كُنتُمْ تَعْلَمُونَ. يَغْفِرْ لَكُمْ ذُنُوبَكُمْ وَيُدْخِلْكُمْ جَنَّاتٍ تَجْرِي مِن تَحْتِهَا الْأَنْهَارُ وَمَسَاكِنَ طَيِّبَةً فِي جَنَّاتِ عَدْنٍ ذَلِكَ الْفَوْزُ الْعَظِيمُ. “মুমিনগণ, আমি কি তোমাদেরকে এমন এক বানিজ্যের সন্ধান দিব, যা

এই কাজগুলো করলে জীবনেও অভাব দূর হবে না

  

পিএনএস ডেস্ক :দুনিয়াতে অনেক মানুষ আছে যারা আল্লাহর হুকুম আহকাম পালনের ক্ষেত্রে অলসতা বা দেরি করে বা তা করার সময় হয়নি কিংবা পরে করবে বলে রেখে দেয়। এ সব বিষয়ে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর উম্মতকে সতর্ক করেছেন।আল্লাহ তাআলা ইবাদত-বন্দেগি ও তার বিধি-বিধান পালনে আগ্রহী ও অলসতাকারীদের জন্য সুসংবাদ ও কঠোরতা প্রকাশ করেছেন। হাদিসে কুদসিতে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে এমন একটি ঘোষণাই এসেছে।রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, আল্লাহ তাআলা

ফরজ হজ আদায় না করলে কি করবেন?

  

পিএনএস ডেস্ক : প্রশ্ন : কোনো ব্যক্তির ওপর হজ ফরজ হওয়ার পর সে তা আদায় করল না। এভাবে বিলম্ব করার পর একসময় তার সম্পদ খরচ হয়ে গেল এবং তার ওই পরিমাণ সম্পদ অবশিষ্ট থাকল না, যা দ্বারা তার ওপর হজ ফরজ হয়। এ অবস্থায় তার করণীয় কী?উত্তর : হজ ফরজ হওয়ার পর তা আদায় করার আগেই সম্পদ অন্য কোনো খাতে ব্যয় হয়ে গেলেও সে ব্যক্তির জিম্মায় হজ বাকি থেকে যায়। এক্ষেত্রে যত দ্রুত সম্ভব হজের জন্য টাকা ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ জরুরি। যদি মৃত্যুর আগপর্যন্ত সামর্থ্য ফিরে না পায়, তাহলে অসিয়ত করে যাবে যেন তার

ইসলামের দৃষ্টিতে চন্দ্রগ্রহণ

  

পিএনএস ডেস্ক : বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা:চন্দ্রগ্রহণ:পৃথিবী তার পরিভ্রমণ অবস্থায় চাঁদ ও সূর্যের মাঝখানে এলে কিছু সময়ের জন্য পৃথিবী, চাঁদ ও সূর্য একই সরল রেখায় অবস্থান করতে থাকে। তখন পৃথিবী-পৃষ্ঠের মানুষ/প্রাণীদের থেকে চাঁদ কিছু সময়ের জন্য অদৃশ্য হয়ে যায়। এটাকে চন্দ্রগ্রহণ বলে। আরবীতে খুসুফ এবং ইংরেজীতে Lunar eclipse বলে।সূর্যগ্রহণ:চাঁদ পরিভ্রমণরত অবস্থায় পৃথিবী ও সূর্যের মাঝখানে এলে পৃথিবীর মানুষদের কাছে কিছু সময়ের জন্য সূর্য আংশিক বা কখনো সম্পূর্ণরূপে অদৃশ্য হয়ে যায়। এ অবস্থাকে

Developed by Diligent InfoTech