ইসলাম

যে রাতের দোয়া আল্লাহ ফিরিয়ে দেন না

  

পিএনএস ডেস্ক:আল্লাহ তাআলার দরবারে যে কোনো সময় দোয়া করা যায়। তবে কিছু দিন, কিছু মুহূর্ত এবং কিছু সময় আছে সুনির্ধারিত; যখন আল্লাহ তাআলা বান্দার দোয়া কবুল করে থাকেন। ইতিপূর্বে সে সময় ও ক্ষণগুলো তুলে ধরা হয়েছে।এ ছাড়াও কিছু রাত এমন রয়েছে যে রাতে দোয়া করলে আল্লাহ তাআলা বান্দার দোয়া কবুল করে থাকেন। সে রাতগুলোর মধ্যে একটি হলো রজব মাসের প্রথম রাত। এ রজব মাস জুড়েই আল্লাহর নবি বেশি বেশি বরকত এবং রমজান পর্যন্ত হায়াত বৃদ্ধির দোয়া করতেন।হাদিসে পাকে এসেছে, রজব মাসের প্রথম রাত, বান্দার দোয়া কবুলের

আল্লাহর নৈকট্য লাভে মনকে নরম করার উপায়

  

পিএনএস ডেস্ক:ইসলামের ফিতরাতের ওপরই মানুষ জন্ম লাভ করে। জন্ম থেকেই মানুষের অন্তর দরদ শূন্য হয় না। শিশুদের প্রতি তাকালেই প্রমাণ পাওয়া যায়। কারণ দুনিয়ার প্রতিটি শিশুই স্বভাব সুলভভাবে প্রত্যেককে অকাতরে মিষ্টি হাসি উপহার দেয়। এ থেকে প্রমাণ হয় যে আল্লাহ তাআলা মানুষের হৃদয়কে কঠিন করে সৃষ্টি করেন না।মানুষ যেভাবে বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ধীরে ধীরে কঠিন ও শক্ত হতে থাকে তেমনি মানুষের অন্তরও বেড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে কঠিন হতে থাকে। তবে সব মানুষের অন্তর কঠিন হয় না। ইসলামের এমন কিছু আচার ও নিয়ম রয়েছে যা

কাবাঘর সম্পর্কিত ৯ বিস্ময়কর তথ্য

  

পিএনএস ডেস্ক: পবিত্র কাবাঘর সম্পর্কিত যে ৯ টি তথ্য সম্ভবত আপনার অজানা: ১. কাবাঘরের ভেতর পৃথিবীর একমাত্র স্থান যেখানে আপনি যে কোন দিকে মুখ করে নামাজ আদায় করতে পারেন। ২. আমাদের পৃথিবীর কাবাঘরের ঠিক উপরে আসমানে ফেরেশতাদের জন্য আরেকটি কাবা রয়েছে যার নাম বাইতুল মামুর। সেখানে প্রতিদিন ৭০ হাজার ফেরেশতা তাওয়াফ করার সুযোগ পান। আর যারা একবার তাওয়াফ করেছেন তারা আর দ্বিতীয়বার এর সুযোগ পান না। মিরাজের রাত্রিতে রাসুলুল্লাহকে (সঃ) এ বাইতুল মামুর দেখানো হয়। (অনেকে কাবা বলতে সম্পূর্ণ মাসজিদুল হারামকে

পবিত্র শবেমেরাজ ১৪ এপ্রিল

  

পিএনএস ডেস্ক : বাংলাদেশের আকাশে রোববার পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। সোমবার ৩০ দিন পূর্ণ হবে জমাদিউস সানি মাসের। মঙ্গলবার থেকে রজব মাস গণনা শুরু হবে। এ হিসাবে ১৪ এপ্রিল শনিবার দিবাগত রাতে সারাদেশে পবিত্র লায়লাতুল মিরাজ পালিত হবে।রোববার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মুকাররম সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্ম মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব এ. বি. এম আমিন উল্লাহ নূরী। উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম সচিব মিজান-উল-আলম, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব সাইদুর

নামায আদায় না করার কি শাস্তি হবে ?

  

পিএনএস ডেস্ক:ঈমান আনয়নের পর মুমিন বান্দাদের জন্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবশ্যপালনীয় ইবাদাত হচ্ছে পাঁচ ওয়াক্ত নামায। প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পর থেকে ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবার ওপর নির্ধারিত সময়ে এই নামায আদায় করা ফরয। কালামুল্লাহ শরিফে আল্লাহ তা’আলা জানিয়ে দিচ্ছেন, “নিশ্চয়ই নির্ধারিত সময়ে নামায আদায় করা বিশ্বাসীদের জন্য ফরয করা হয়েছে।” (সুরা নিসা, আয়াত ১০৩)নামাযের মাধ্যমে আল্লাহর সাথে বান্দার নিবিড়তম সম্পর্ক তৈরি হয়। আবার যে সকল বান্দা নামায ছেড়ে দেয়, আল্লাহ তা’আলাও তার থেকে নিজের দায়িত্ব

শরীর ব্যথায় যে দোয়া পড়তেন বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদ (সঃ)

  

পিএনএস ডেস্ক: মাটি ও মানুষের থুথুর মাঝে আরোগ্য রয়েছে। হজরত মোল্লা আলি কারি রাহমাতুল্লাহি আলাইহি বলেন, ‘আমি চিকিৎসা শাস্ত্রের কিছু আলোচনায় দেখেছি পরিশুদ্ধ ও মেজাজ পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে থুথুর বিশেষ প্রভাব রয়েছে। আর মূল স্বভাব সংরক্ষণ করার ক্ষেত্রে মাটির বিশেষ উপকারিতা রয়েছে। এমনিভাবে অসুস্থতার পাশ্বপ্রতিক্রিয়া প্রতিরোধের ক্ষেত্রেও এর প্রভাব রয়েছে। (মিরকাত) এ প্রসঙ্গে বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের একটি হাদিস তুলে ধরা হলো-হজরত আয়িশা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত তিনি

নামাজের ওয়াক্তের যে উপকারিতাগুলো চিন্তাও করেননি

  

পিএনএস ডেস্ক: মানুষের দেহ চলমান। সুস্থতার জন্য নড়া-চড়া, হাঁটা-চলা ও ওঠা-বসা দরকার। ৫ ওয়াক্ত সালাতে মসজিদে যাওয়া-আসা করতে হয়। নামাজে ওঠা-বসা করতে হয়। এ সবই উপকারী।৫ ওয়াক্ত সালাতের জন্য ৫টি সময় রয়েছে। এছাড়াও সুন্নত ও নফল নামাজের সময় রয়েছে। এ সময়গুলোর চিকিৎসা বিজ্ঞানগত উপকারিতা রয়েছে।ফজরের সময় ও চিকিৎসা বিজ্ঞানফজরের সময় নামাজ আদায় করলে সারা রাত ঘুমের পর হালকা অনুশীলন হয়ে যায়। এ সময় পাকস্থলী খালি থাকে তাই কঠিন অনুশীলন শরীরের জন্য ক্ষতিকর। এ সময়ে নামাজ আদায় করলে নামাজি অবসাদগ্রস্ততা

যে কাজের বিনিময়ে জান্নাত নিশ্চিত

  

পিএনএস ডেস্ক: মহানবী হজরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘যে ব্যক্তি আমাকে তার দুই চোয়ালের মধ্যবর্তী জিনিস (জিহ্বা) এবং দুই উরুর মধ্যবর্তী জিনিসের (লজ্জাস্থান) হেফাজতের নিশ্চয়তা দিবে। আমি তার জন্য, জান্নাতের নিশ্চয়তা দেব।’ হাদিসে বর্ণিত এই তাৎপর্যপূর্ণ বক্তব্য বর্তমান প্রেক্ষাপটে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ বর্তমান সমাজের বাস্তবতা হচ্ছে, দুনিয়ার যত গোনাহ, মারামারি, কাটাকাটি, দাঙ্গা-হাঙ্গামা, জেল-জুলুম, খুন-খারাবি, নারী-নির্যাতন, বেহায়াপনা, অশ্লীলতা থেকে শুরু করে যত ধরনের

পশু কিনে এতিমখানায় দিলে কি আকিকা হবে ?? জানুন

  

পিএনএস ডেস্ক:নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় বেসরকারি একটি টেলিভিশনের জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দর্শকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ।প্রশ্ন : আমরা যদি আকিকার পশু কিনে কোনো এতিমখানায় দিয়ে আসি, তাহলে কি আকিকা আদায় হবে?উত্তর : আকিকার পশু জবেহ করে দিতে হবে। আকিকা এবং মানতের পশু যদি কেউ এতিমখানায় দিতে চান, তিনি দিতে পারেন; কিন্তু জবেহ করে দিতে হবে। কারণ,

ইসলামে নারীর মর্যাদা

  

পিএনএস ডেস্ক: মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব। মানুষকে আল্লাহ তাআলা নারী-পুরুষে বিভক্ত করে পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন। মানুষের সৃষ্টি সম্পর্কে আল্লাহ তাআলা বলেন-‘হে মানব সম্প্রদায়! তোমরা তোমাদের প্রতিপালককে ভয় কর। যিনি তোমাদের (নারী-পুরুষ) কে একটি প্রাণ থেকে সৃষ্টি করেছেন এবং তা থেকে তার সঙ্গীনি সৃষ্টি করেছেন। যিনি তাদের দু’জন থেকে বহু নর-নারী (পৃথিবীতে) বিস্তার করেছেন। সেই আল্লাহকে ভয় কর, যার নামে তোমরা একে অপরকে যাঞ্চা করে থাক এবং আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্ন করাকে ভয় কর। নিশ্চয় আল্লাহ তোমাদের ওপর তীক্ষ্ণ দৃষ্টি

Developed by Diligent InfoTech