ইসলাম

জেনে নিন লাইলাতুল কদরের রাতের মর্যাদা-গুরুত্ব ও তাৎপর্য

  

পিএনএস ডেস্ক : রমজানের শেষ দশকের প্রতিটি মুহূর্তই অত্যন্ত দামি। তার মধ্যেও আবার সবচেয়ে বেশি দামি হলো লাইলাতুল কদর। হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ঠ রাত। এক কথায় বছরের শ্রেষ্ঠ রাত। এ রাতে মর্যাদা ও বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করে আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে ‘কদর’ নামে স্বতন্ত্র একখানা সুরা নাজিল করেছেন। ফলে এ রাত গুরুত্ব ও তাৎপর্যের দিক থেকে বছরের অন্যান্য রাতের চেয়ে শ্রেষ্ঠত্ব লাভ করেছে। বছরের বারো মাসের মধ্যে যেমন শ্রেষ্ঠ মাস, তেমনি রমজানের একটি রাত ‘লাইলাতুল কদর’ রমজানের অন্যান্য রাতের চেয়ে মর্যাদাপূর্ণ।

শাওয়ালের চাঁদ দেখা যেতে পারে শুক্রবার

  

পিএনএস : বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর থেকে প্রেরিত তথ্যানুয়াযী আগামী বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় মধ্যরাত ১টা ৪৩ মিনিটে অমাবস্যা শেষ হয়ে শুক্রবার ১৪৩৯ হিজরি সনের শাওয়াল মাসের নতুন চাঁদের জন্ম হবে।ওই দিন সূর্যাস্তের সময় সন্ধ্যা ৬টা ৪৭ মিনিটে বিএসটিতে চাঁদের বয়স হবে ১৭ ঘণ্টা ৪ মিনিট এবং সান্ধ্যকালীন গোধূলি শেষ হওয়ার ৯.৬ মিনিট পরে চন্দ্রাস্ত ঘটবে। ফলে ওইদিন বাংলাদেশে চাঁদ দেখা যাবে না।শুক্রবার সূর্যাস্তের সময় সন্ধ্যা ৬টা ৪৭ মিনিটে বিএসটিতে চাঁদের বয়স হবে ৪১ ঘণ্টা ৪ মিনিট এবং সান্ধ্যকালীন গোধূলি

জুমার নামাজ মিস হলে কী করবেন?

  

পিএনএস ডেস্ক : সপ্তাহের শ্রেষ্ঠ দিন হলো শুক্রবার। আর শুক্রবারের শ্রেষ্ঠ নামাজ হলো জুমা। জুমার নামাজের বিভিন্ন ফজিলত বর্ণিত হয়েছে হাদিসে।আর রমজান মাসের জুমা দিনের ফজিলত ও মর্যাদার দিক থেকে অন্য সময়ের চেয়ে অবশ্যই ভিন্ন আর তাই মুসল্লীরা রমজানের জুমা দিন গুলোকে একটু ভিন্ন পরিবেশেই দেখে থাকেন।রাসুলুল্লাহ সা. ইরশাদ করেছেন, জুমা হচ্ছে শ্রেষ্ঠ দিবস। তিনি আরও বলেছেন, যে ব্যক্তি সুন্দর রূপে ওজু করা করে জুমা নামাজ পড়তে আসবে তার পূর্ববর্তী জুমা থেকে বর্তমান জুমা পর্যন্ত সংগঠিত গুনাহসমূহ মাফ হয়ে

অসুস্থ এবং সফররত ব্যক্তিদের রোজা

  

পিএনএস ডেস্ক : অসুস্থ এবং সফররত ব্যক্তিদের রোজা পালন প্রসঙ্গে আল কোরআনে বলা হয়েছে ‘(তাও আবার সারা বছরের জন্য নয়—রোজা ফরজ করা হয়েছে) হাতে গোনা কয়েক দিনের জন্য। (তার পরেও তোমাদের) কেউ যদি অসুস্থ হয়ে যায় কিংবা কেউ যদি সফরে থাকে— সে ব্যক্তি সমপরিমাণ দিনের রোজা (সুস্থ হয়ে গেলে অথবা সফর থেকে ফিরে এলে) পরে আদায় করে নেবে। এর পরও যাদের জন্য রোজা রাখা একান্ত কষ্টকর ব্যাপার বলে মনে হবে, তারা এর পরিবর্তে একজন মিসকিনকে খাদ্য দান করবে। যে ব্যক্তি খুশির সঙ্গে সৎকর্ম করে তার জন্য তা কল্যাণকর হয়। আর যদি রোজা

জাকাত দিয়ে ইসলামের সাথে সেতুবন্ধন তৈরি করুন

  

পিএনএস ডেস্ক : রমযান মাস দয়া ও সহানুভূতির মাস। বস্তুত রাসূল (সা:) সর্বদাই গরীব-দুঃখীর সাহায্য সহানুভূতির প্রতি লক্ষ্য রাখতেন। কিন্তু রমযান মাসে এ ব্যাপারে তিনি সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতেন। রাসূল (সা:) সাধারণ সাদাকাহ ছাড়া প্রত্যেক মুসলমানের জন্য এক প্রকার বিশেষ সাদাকাহ ওয়াজিব সাব্যস্ত করেছেন। এ নির্ধারিত সাদাকাহ বা দানকে ‘সাদাকায়ে ফিতর’ বলা হয়। ফিতরা মানে রোযা ভঙ্গ। রোযা ভেঙ্গে তথা শেষ করার পরে এ সাদাকাহ দেয়া হয় বলে একে ‘সাদাকায়ে ফিতর’ বা ফিতরা বলা হয়। ঈদুল ফিতরের দিন সুবহে সাদিকের পূর্বে যে

নারীরাও বসতে পারেন এতেকাফে

  

পিএনএস ডেস্ক : এতেকাফ একটি গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। এতেকাফ আরবি শব্দ। এর আভিধানিক অর্থ অবস্থান করা, স্থির থাকা, কোনো স্থানে আটকে পড়া বা আবদ্ধ হয়ে থাকা। ইসলামী শরিয়তের পরিভাষায় রমজান মাসের শেষ দশক বা অন্য কোনো সময় জাগতিক কাজকর্ম ও পরিবার-পরিজন থেকে কিছুটা বিচ্ছিন্ন হয়ে আল্লাহকে খুশি করার নিয়তে পুরুষের জন্য মসজিদে এবং নারীদের জন্য ঘরে নামাজের নির্দিষ্ট একটি স্থানে ইবাদত করার উদ্দেশ্যে অবস্থান করা ও স্থির থাকাকে এতেকাফ বলে।পবিত্র কোরআনের আয়াতে সুরা বাকারার ১৮৭ নম্বর আয়াতে আল্লাহ ইরশাদ করেছেন, আর

আজ ঐতিহাসিক বদর দিবস, বিশ্বসভ্যতার ইতিহাসে মুসলিমদের বিজয়ের দিন

  

পিএনএস ডেস্ক :পবিত্র রমজান মাসের আজ ১৭ তারিখ। সত্য-মিথ্যার পার্থক্য নির্দেশক গ্রন্থ আল কুরআনুল কারিম নাজিলের মাসে আজকের দিনটি অসাধারণ তাৎপর্যের অধিকারী। আজ ঐতিহাসিক বদর দিবস। হিজরি দ্বিতীয় সনের সতেরই রমজান মদিনা থেকে প্রায় ৭০ মাইল দূরে বদর প্রান্তরে সংঘটিত হয়েছিল আল্লাহর একত্ব ও তার পাঠানো রাসূলের প্রতি অবিশ্বাসী বিশাল সুসজ্জিত বাহিনীর বিরুদ্ধে বিশ্বাসী মুষ্টিমেয় দলের প্রত্য সশস্ত্র লড়াই। তাতে মানুষের সব ধারণা নাকচ করে দিয়ে প্রায় উপকরণহীন ও নিরস্ত্র মুষ্টিমেয় দলটিকে জয়ী করেন মহান রাব্বুল

মুসলিমের জীবনে মাহে রমজান

  

পিএনএস ডেস্ক: ধর্মভীরু মানুষের ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও সামাজিক জীবনে মাহে রমজানের রোজার ভূমিকা অপরিসীম। রোজাদার ব্যক্তি মহান সৃষ্টিকর্তা আল্লাহর ভয়ে পাপাচার, অশ্লীলতা, মিথ্যাচার, পরচর্চা, পরনিন্দা, ঝগড়াবিবাদ, দ্বন্দ্বকলহসহ সব ধরনের মন্দ কাজ পরিহার করে আত্মশুদ্ধি লাভ করেন। রোজা অবস্থায় কেউ যদি রোজাদার ব্যক্তিকে গালিগালাজ, ঝগড়াবিবাদ, অশুভ ও ক্ষতিকর দুষ্কর্মে প্ররোচিত করে, তাহলে রাসুলুল্লাহ (সা.)এর শিক্ষা অনুযায়ী তিনি যেন বলে দেন, ‘আমি রোজাদার।’ ব্যক্তিগত জীবনে রোজাদার তাকওয়া অবলম্বন করে

ইসলাম শিশুদের যে অধিকার দেয়

  

পিএনএস ডেস্ক: মানুষের জীবনে এমন কিছু দুর্লভ মুহূর্ত আসে যা তার মধ্যে একই সময়ে আনন্দ এবং উদ্বেগ নিয়ে আসে। আর সেটি হলো প্রথমবারের মতো সন্তানের মা কিংবা বাবা হওয়ার সংবাদ। মায়ের গর্ভে সন্তান আসার কথা জানার পর সন্তানটি ছেলে না মেয়ে তা জানার জন্যও পিতা-মাতাসহ নিকটাত্মীয়রা খুবই কৌতূহলী হয়ে পড়েন। এরপর শুরু হয়ে যায় সন্তানের জন্য নাম নির্বাচন করা, ঘর-দোর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা, সম্ভব হলে শিশুর জন্য আলাদা একটি ঘরের ব্যবস্থা করা, নীল অথবা পিঙ্ক কালার দিয়ে রুমটিকে রাঙিয়ে তোলা, পরম মমতায় শিশুর রুমটিকে

ঘুমের মধ্য দিয়ে যে শিক্ষা নেওয়ার আছে

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : অফুরন্ত রহমত, বরকত, মাগফিরাত ও ফজিলতের মাস রমজান। এ মাসের ফজিলত বর্ণাতীত। দিনে রোজা আর রাতে এবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে এ মাসটি পালন করা প্রত্যেক মুসলমানের অন্যতম দায়িত্ব। কথা আর প্রতিটি কাজের সময় মনে রাখতে হবে রোজার অঙ্গহানি যেন না ঘটে। রোজার প্রতিটি মুহূর্ত অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।রোজাদারের দ্বারা কখনো অন্যের ক্ষতি হবে না। কথা-কাজে সব সময় রোজাদারকে সতর্ক থাকতে হয়। কারো মনে কষ্ট হয়, জেনে-বুঝে সে রকম আলাপ বর্জন করবেন রোজাদার। আর অধিক সতর্ক থাকবেন অন্যের হক

Developed by Diligent InfoTech