ইসলাম

জোড়া কলা খেলে কি জমজ সন্তান হয়, ইসলাম কি বলছে?

  

পিএনএস ডেস্ক: আমাদের সমাজে কিছু প্রচলিত কুসংস্কার রয়েছে যেগুলো অধিকাংশই মানুষের তৈরি করা। কোথাও রওনা দিলে ঝাড়ু, খালি কলসি বা কেউ হাছি দিতে দেখলে অযাত্রা হয়! আসলে ইসলামে এ ধরনের কুসংস্কারের কোনো ভিত্তি নেই।আমাদের আজকের আলোচনা সমাজের প্রচলিত কুসংস্কারগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি। আর তা হলো জোড়া কলা খাওয়া। শুধু জোড়া কলা কেন কোনো খাবারেরই জোড়া সন্তান জন্মানোর ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখার কোনো ক্ষমতা নেই।এ প্রসঙ্গে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন পবিত্র কোরআনে পাকে ইরশাদ করেছেন :لِلَّهِ

ইসলামে অবৈধ শারীরিক সম্পর্কের শাস্তি কি ?? জানুন !!

  

পিএনএস ডেস্ক: অবৈধ শারীরিক সম্পর্কের- যে তিনটি শাস্তি দুনিয়াতে হয় তা হচ্ছে, তার চেহারার ঔজ্জ্বল্য বিনষ্ট হয়ে যাবে, তার আয়ুষ্কাল সংকীর্ণ হয়ে যাবে এবং তার দারিদ্রতা চিরস্থায়ী হবে। আল্লাহ তায়ালা বলেন,“তোমরা ব্যভিচারের নিকটবর্তী হয়ো না। এটা অশ্লীল কাজ এবং নিকৃষ্ট আচরণ”। (সূরা বনী ইসরাঈল -৩২)“আর যারা আল্লাহ ব্যতীত অপর কোন ইলাহের ইবাদত করে না, আল্লাহর নিষিদ্ধকৃত প্রাণী যথার্থ কারণ ব্যতীত হত্যা করে না এবং ব্যভিচার করে না। আর যে ব্যক্তি এসব কাজ করে, সে শাস্তি ভোগ করবে। কিয়ামতের দিন

যে দোয়া একবার পাঠ করলে দূর হবে ৭০টি বিপদ !

  

পিএনএস ডেস্ক: হযরত আবু নাঈম ও ইবনে আবি শায়বা রহ. একটি আমলের কথা বর্ণনা করেছেন।তাঁরা বলেন, যে ব্যক্তি নিম্নের দুয়া একবার পাঠ করবে- একশ’ বার নয়, মাত্র একবার- আল্লাহ তায়ালা তার সত্তরটি বিপদ দূর করে দিবেন। আর সর্বনিম্ন বিপদ হল দারিদ্রতা। আর অন্যান্য বিপদগুলো এর চেয়ে অনেক বড় বড়।দোয়াটি হলো:- لاحول ولاقوة الا بالله ولاملجا ولامنجا من الله الا اليهবাংলা উচ্চারণ:- লা হাওলা ওয়া লা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহি ওয়ালা মালজাআ ওয়ালা মানজাআ মিনাল্লাহি ইল্লাহ ইলাইহি।দোয়াটি মুখস্থ থাকলে তো ভালো। না

আল্লাহ পাক কোন ধরণের মানুষকে অপছন্দ করেন?

  

পিএনএস ডেস্ক: আল্লাহ ক্ষমাশীল। অশেষ দয়ালু। কিন্তু কিছু বিষয় আল্লাহ-তায়ালা পছন্দ করেন না। আর যে কাজ গুলো আল্লাহ পাক পছন্দ করেন না, সেই কাজ যে বা যারা করেন আল্লাহ তাদেরকেও পছন্দ করেন না। এ সম্মন্ধে কুরআন হাদীসের আলোকে আলোচনা করা হলো আল্লাহ পাক কোন ধরণের মানুষকে অপছন্দ করেন?প্রতিটি বান্দায় সৃষ্টিকর্তার তৈরি। নিজের তৈরি কোনো কিছু তখনই অপছন্দ হয়। যখন তা মনের মত হয় না। আল্লাহ অশেষ ক্ষমাশীল, দয়ালু হওয়া শর্তেও কিছু জিনিসে বিধি নিষেধ আরোপ করে দিয়েছেন। আর প্রত্যেকের উচিত সেই বিধি নিষেধ মেনে

যে ঘরে স্বামী ও স্ত্রী এক সাথে তাহাজ্জুত এর নামায পড়বে, সে ঘরে..

  

পিএনএস ডেস্ক:যে ঘরে স্বামী ও স্ত্রী এক সাথে তাহাজ্জুত এর নামায পড়বে, সে ঘরে জীবনে কোনো দিন অশান্তি হবেনা।১) তাহাজ্জুদে উঠে দোয়ারাসূলুল্লাহ (সঃ) বলেন, ‘যখন তোমাদের কেউ রাত্রে জাগ্রত হয় ও নিম্নের দোআ পাঠ করে এবং আল্লাহর নিকট প্রার্থনা করে, তা কবুল করা হয়। আর যদি সে ওযূ করে এবং ছালাত আদায় করে, সেই ছালাত কবুল করা হয়’।উচ্চারণ : লা ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু ওয়াহ্দাহু লা শারীকা লাহু; লাহুল মুলকু ওয়ালাহুল হামদু ওয়াহুয়া ‘আলা কুল্লি শাইয়িন ক্বাদীর। সুবহা-নাল্লা-হি ওয়াল হামদু লিল্লা-হি ওয়ালা

নারীদের চুলে সোনালি রং করা কি ইসলামের দৃষ্টিতে বৈধ?

  

পিএনএস ডেস্ক: নারীরা চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে অনেক সময় কিংবা প্রতিনিয়ত রং করেন। সোনালী,বাদামী, লালচে প্রভৃতি রং নিজের চুলে ধারণ করার ক্ষেত্রে অনেক মুসলিম নারী দ্বিধাগ্রস্ত থাকেন। মনে প্রশ্ন জাগে নারীদের চুলে সোনালি রং করা কি ইসলামের দৃষ্টিতে বৈধ?এমন প্রশ্নে মাওলানা উমায়ের কোব্বাদী নকশবন্দী হাদিসের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, নারীদের চুল কালো কলপ ব্যবহার করা বৈধ নয়।এছাড়া স্বামীর দৃষ্টি আকর্ষণের উদ্দেশ্যে এবং পরপুরুষকে দেখানো উদ্দেশ্য না হলে নারীরা চুল বাদামী,সোনালী,লালচে প্রভৃতির কলপ দিয়ে

মোবাইলের রিংটোনে কোরআনের আয়াত ব্যবহার করা কী ঠিক?

  

পিএনএস ডেস্ক:মোবাইল ফোনে কোরআনের আয়াতকে রিংটোন বা কলার টিউন করা হলে তা হারাম বলে মানা হবে৷ সৌদি আরবের মুফতিরা এটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছেন৷সৌদি মুফতিদের দেওয়া এই ফতোয়ার দেওবন্দী মুফতি-একরমও এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে বলেছে কোরআনের আয়াতকে যদি মোবাইলে রিংটোন বা কলার টিউন হিসেবে ব্যবহার করেন তাহলে, সেটিকে হারাম বলে মানা হবে৷সৌদি কাউন্সিল বা মুফতির জারি করা এই ফতোয়া কারণ কি সেটাও বলে দেওয়া হয়েছে৷ মুফতি-একরম থেকে জানানো হয়েছে মোবাইলে কোরাআনের আয়াতকে রিংটোন বা কলার টিউন করাটাকে

সিরিয়া সম্পর্কে রাসুল সা. এর ১০ ভবিষ্যদ্বাণী

  

পিএনএস ডেস্ক:বর্তমান সিরিয়ার প্রাচীন ও ঐতিহাসিক নাম হলো শাম। বিভিন্ন হাদিসে শাম সম্পর্কিত যেসব বর্ণনা পাওয়া যায় সে শামের সীমানা অবশ্য আজকের সিরিয়া থেকে কিছুটা বিস্তৃত ছিল। সিরিয়া, ফিলিস্তিন, জর্ডান এবং লেবানন নিয়ে তখনকার শাম গঠিত ছিল। তবে বর্তমান সিরিয়া প্রাচীন শামের প্রধান ও সর্ববৃহৎ অংশ হওয়ায় সিরিয়াকেই শাম বলা হয়।শামের অন্যতম বৈশিষ্ট্য, পৃথিবীর বেশিরভাগ নবী-রাসুল এ অঞ্চলেই আগমন করেছেন এবং এখানেই কেয়ামতের দিন মানুষ সমবেত হবে। এছাড়াও রাসুলুল্লাহ সা. আল্লাহর কাছ থেকে প্রাপ্ত ওহির আলোকে

হজের খরচ ঠিক করল মন্ত্রিসভা

  

পিএনএস ডেস্ক : হজে যেতে কত টাকা খরচ হবে, তা নির্ধারণ করে চলতি বছর হজ প্যাকেজ অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় দুই প্যাকেজে হজে যাওয়া যাবে। হজ ১ প্যাকেজ অনুযায়ী খরচ হবে ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা। সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ ২–এ খরচ হবে ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা। বিমানভাড়াসহ সব মিলে ১ লাখ ৩৮ হাজার ১৯১ টাকা খরচ পড়বে।বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় বিমানভাড়াসহ অন্যান্য সাধারণ খরচ ধরা হয়েছে ১ লাখ ৩৮ হাজার ২৭৭ টাকা। এর সঙ্গে হজ এজেন্সিগুলো অন্য সার্ভিস চার্জ মিলিয়ে বাকি খরচ নির্ধারণ

ইসলামে কেন নারী নবী আসেনি?

  

পিএনএস ডেস্ক :অনেক বোদ্ধাজনই মাঝেমধ্যে প্রশ্ন করেন, ইসলাম নারীদের এত সম্মান দিলে ইসলামে নারী নবী আসেনি কেন? পিসটিভিতে ডা. জাকির নায়েকের প্রশ্নোত্তর পর্বে এক নারী ঠিক এমন প্রশ্নটিই করেন। উত্তরে ডা. জাকির নায়েকের বলেন, যদি নবী বলতে আপনি বোঝেন, এমন এক ব্যক্তি যিনি আল্লাহর পক্ষ থেকে বাণী গ্রহণ করেন এবং যিনি মানবজাতির নেতা হিসেবে কাজ করেন; তাহলে সেই অর্থে নিশ্চিত করে বলতে পারি, ইসলামে কোনো নারী নবী আসেনি এবং এটাই সঠিক। কারণ একজন নারীকে যদি নবী হতে হয় তাহলে তাকে সমগ্র মানুষের নেতৃত্ব দিতে হবে।

Developed by Diligent InfoTech