ইসলাম

দান-খয়রাতে ধর্মীয় নিয়ম মানা হচ্ছে না : হতদরিদ্রদের জীবন নিয়ে চলছে চরম তামাশা

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : চাঁদ দেখা গেলে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে রমজান মাস শুরু হবে। জাকাত-ফেতরা আদায়ের মাস রমজান। ধনী-দরিদ্রের মধ্যে সমতা আনয়নের জন্যই মূলত জাকাত-ফেতরার বিধান। এর মধ্য দিয়ে মালদার তার সম্পদের পবিত্রা রক্ষা করেন। আর নিম্ন আয়ের মানুষ জাকাত-ফেতরার পেয়ে নিজেদের দারিদ্র্যতা দূরীকরণে সক্ষম হন। বহুবিধ কারণে উত্তম এই নিয়মটি হালে জীবনহানির আকরে পরিণত।জাকাত-ফেতরা সবার জন্য কল্যাণকর। মহান আল্লাহর পক্ষ থেকে পাওয়া এমন উত্তম নিয়মটি নিয়ে আমাদের দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করছে একটি

মুহাম্মদ (স)-এর ওপর যেসব পদ্ধতিতে ওহি নাজিল হয়েছিল

  

পিএনএস ডেস্ক: ‘আলিফ লাম মিম। এটি সেই গ্রন্থ যাতে কোনো সন্দেহ নেই। আল্লাহভীরুদের জন্য এটি পথনির্দেশিকা।’ (সূরা বাকারা: ১-২)। পবিত্র কোরআন আল্লাহর পক্ষ থেকে নাজিলকৃত সর্বশেষ আসমানি গ্রন্থ। হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর ওপর এ গ্রন্থ নাজিল হয়েছে। সময় ও প্রয়োজনের আলোকে কখনও অল্প পরিমাণে আবার কখনও বেশি পরিমাণে। এভাবে প্রায় ২৩ বছর লেগেছে পূর্ণ কোরআন নাজিল হতে। অনেকের মনে প্রশ্ন জাগে, কোরআন কীভাবে নাজিল হতো? ওহির মাধ্যমে। তা ঠিক। কিন্তু ওহির ধরন-রকম কেমন ছিল তা যদি জানা যেত! পাঠক! ওহির ধরন সম্পর্কে

আমিরাতে বাংলাদেশিকে 'সার্টিফিকেট অব এক্সিলেন্স' সম্মাননা

  

পিএনএস : জাতির জনক ও প্রয়াত প্রেসিডেন্ট শেখ যায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের শততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ২০১৮ সালকে 'ইয়ার অব যায়েদ' ঘোষণা করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকার। সালটি স্মরণীয় করে রাখতে একশ' দেশের কমিউনিটি নেতাকে সমাজ উন্নয়নে ‘অনুকরণীয় নেতৃত্ব’ সম্মাননা সূচক স্বীকৃতি দেয় আবুধাবি পুলিশ ও আহলিয়া গ্রূপ।এই তালিকায় শীর্ষ বাংলাদেশি হিসেবে ‘অনুকরণীয় নেতৃত্ব’র সম্মাননা অর্জন করেন আবুধাবি বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি, আবুধাবির বাংলাদেশ ইসলামিয়া স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা বোর্ডের সদস্য ইফতেখার হোসেন

আখিরাতে বিশ্বাস সত্কর্মের অনুপ্রেরণা

  

পিএনএস ডেস্ক : ধর্মের মূল হলো বিশ্বাস, আশা ও ভালোবাসা। বিশ্বাস মানুষের জীবনের মূল চালিকাশক্তি। বিশ্বাসই মানুষের সব কর্মকাণ্ডের মূল নিয়ন্তা। বিশ্বাসের মৌলিক বিষয় তিনটি। যথা: তাওহিদ বা আল্লাহর একত্ববাদে বিশ্বাস, রিসালাত তথা নবী-রাসুলদের প্রতি বিশ্বাস; আখিরাত অর্থাৎ পরকালের প্রতি বিশ্বাস। আখিরাত বা পরকালের প্রতি বিশ্বাসই মানুষকে সৎকর্মে অনুপ্রেরণা জোগায়। পরকালে বিশ্বাস মানে হলো মৃত্যুর পর পুনরায় অনন্ত জীবন লাভ করা। এই জীবনের সকল কর্মের পুঙ্খানুপুঙ্খ বিচার ও যথাযথ ভালো বা মন্দ ফল প্রাপ্তি এবং

রমজানের প্রস্তুতি

  

পিএনএস ডেস্ক : রমজানের পূর্বাভাস নিয়ে হাজির হওয়া শাবান মাস ক্রমেই এগিয়ে যাচ্ছে সমাপ্তির দিকে। ক্ষমার মহান বারতা নিয়ে সমহিমায় হাজির হচ্ছে পবিত্র রমজান। দিকে দিকে ছড়িয়ে পড়ছে রমজানের আগমনী বার্তা। মুমিনের হৃদয়মাত্রই প্রহর গুনছে রমজানের একফালি চাঁদের জন্য। এ মাসে প্রতিটি ইবাদতের প্রতিদান যেমন বহুগুণে বেড়ে যায়, তেমনি সব পাপ ছেড়ে দিয়ে ভালো মানুষ হিসেবে নিজের জীবনকে নতুন করে সাজানোর সুযোগও এনে দেয় রমজান। কোরআনে নিষিদ্ধ জিনিসগুলোকে ‘না’ বলে, নির্দেশিত বিষয়গুলোর চর্চার মহাসুযোগ রমজান। প্রতিটি

যেভাবে শবে বরাতে হালুয়া-রুটি প্রচলন চালু হলো!

  

পিএনএস ডেস্ক:মুসলমানদের জন্য 'অতি পবিত্র রজনী' হিসেবে পরিচিত শবে বরাত। বাংলাদেশে শবে বরাতের রাতে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের অনেকেই মসজিদে প্রার্থনা করবেন।এর সাথে আরেকটি বহুল প্রচলিত এবং গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ হচ্ছে, বাড়িতে হালুয়া-রুটি তৈরি এবং প্রতিবেশীদের মাঝে সেটি বিতরণ। বাংলাদেশের সমাজে শবে বরাতের প্রসঙ্গ আসলেই অবধারিতভাবে হালুয়া-রুটি তৈরির বিষয়টি চলে আসে।কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, হালুয়া-রুটি তৈরির এ সংস্কৃতি বাংলাদেশ ভূখণ্ডে কিভাবে চালু হয়েছে?ইসলামের ইতিহাস যারা বিশ্লেষণ করেন,

ঢাকাসহ সারা দেশে ইবাদত-বন্দেগিতে উদযাপিত পবিত্র শবে বরাত

  

পিএনএস ডেস্ক:ইবাদত-বন্দেগি ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আজ মঙ্গলবার (১ মে) দিনগত রাতে পালিত হচ্ছে মুসলিম সম্প্রদায়ের সৌভাগ্যের রজনী পবিত্র শবে বরাত। বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা মহান আল্লাহর রহমত ও নৈকট্য লাভের আশায় নফল নামাজ আদায়, কোরআন তিলাওয়াত, জিকির, ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিলসহ নানা ইবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে রাতটি অতিবাহিত করছেন। মহিমান্বিত এ রজনীতে মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশ্বের মুসলমানদের মতো বাংলাদেশের মুসলমানরাও বিশেষ মোনাজাত ও দোয়াখায়েরে

শবে বরাতে করণীয় ও বর্জনীয়

  

পিএনএস ডেস্ক : ইসলামি তমুদ্দুন তথা মুসলিম কৃষ্টিতে যেসব দিবস ও রজনী বিখ্যাত, এর মধ্যে একটি হলো শবে বরাত। শাবান মাসের ১৪ তারিখ দিবাগত রাত ‘শবে বরাত’। শবে বরাত শব্দটি ফারসি। শব মানে রাত, বরাত মানে মুক্তি; শবে বরাত অর্থ মুক্তির রজনী। এর আরবি হলো ‘লাইলাতুল বারাআত’। হাদিস শরিফে একে ‘নিসফ শাবান’ বা শাবান মাসের মধ্যরাত বলা হয়েছে। ভারতীয় উপমহাদেশ, পারস্যসহ পৃথিবীর অনেক দেশের ফারসি, উর্দু, বাংলা, হিন্দিসহ নানান ভাষায় যা ‘শবে বরাত’ নামেই পরিচিত।আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘হা মীম! শপথ! স্পষ্ট কিতাবের,

জেনে নিন পবিত্র শবে বরাতের নামায এবং নিয়ম কানুন

  

পিএনএস ডেস্ক : পহেলা মে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে সারাদেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে। এই রাত্রি সম্পর্কে হযরত মোহাম্মদ (সা:) বলেন, এই রাত্রিতে এবাদত-কারিদের গুনাহরাশি আল্লাহ তা’আলা ক্ষমা করে দেন। তবে কেবল আল্লাহর সাথে শিরককারী, সুদখোর,গণক, যাদুকর, কৃপণ, শরাবী, যিনাকারী এবং পিতা-মাতাকে কষ্টদানকারীকে আল্লাহ মাফ করবেন না।অন্য হাদীসে বর্ণিত হয়েছে, যে ব্যাক্তি সাবান চাঁদের পঁনের তারিখে রাতে এবাদত করবে এবং দিনে রোজা রাখবে, দোজখের আগুন তাকে স্পর্শ করতে পারবে না।এ রাতে করনীয়ঃএ পুরো রজনী হল ক্ষমা

শবে বরাতে পুরান ঢাকায় বিশেষ আয়োজন

  

পিএনএস ডেস্ক : শবে বরাত পালন পুরান ঢাকার ঐতিহ্যেরই অংশ। এই দিনের উৎসব আয়োজন ও আনুষ্ঠানিকতা আনন্দময়। তারাবাতি, আগরবাতি, মোমবাতি জ্বালানোসহ পুরো ঢাকা শহর সেজে ওঠে আলোকসজ্জায়। শবে বরাত পালন আর প্রস্তুতিতে কী করা হয়, তা দেখতে যেতে হবে পুরান ঢাকায়। সেই আদিকাল থেকেই বিশেষ মর্যাদায় শবে বরাত পালন করে পুরান ঢাকাবাসী। এই দিনকে কেন্দ্র করে নতুন পোশাক কেনা ও পরার চল রয়েছে। রায়সাহেব বাজার, বেচারাম দেউড়ি, নাজিরাবাজার, কলতাবাজার, বেগমগঞ্জ, চকবাজারসহ পুরো পুরান ঢাকায় একই দৃশ্য দেখতে পাবেন। শবে বরাতের

Developed by Diligent InfoTech