চিত্র-বিচিত্র - Premier News Syndicate Limited (PNS)

চিত্র-বিচিত্র

যৌনতার চরম পরিতৃপ্তি উৎসব 'সেক্সপো'

  

পিএনএস ডেস্ক: যৌনতার চরম পরিতৃপ্তিটুকু নিতেই দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অস্ট্রেলিয়া এই দুই দেশে আয়োজিত হয় উৎসব সেক্সপো। বিশ্বের অন্যতম অ্যাডাল্ট ফেস্টিভ্যাল এটি।যৌনতার চরম পর্যায়ের উপস্থিতি দেখা যায় এই উৎসবে। এখানে আসা সব মহিলা এবং পুরুষরা ড্রেসআপ করে আসেন কোনও সিনেমা বা কমিক চরিত্র অনুযায়ী।এর সঙ্গে এই ফেস্টিভ্যালের আরেকটি বৈশিষ্ট্য হল, এখানে ছেলে এবং মেয়েদের উদ্দাম নাচের সঙ্গে থাকে রগরগে পর্নোগ্রাফির মতো সেক্সের ছোঁয়াও।পিএনএস/আল-আমীন

মস্তিষ্ক ছাড়া দেড় দিন বেঁচে ছিল শূকরটি!

  

পিএনএস ডেস্ক:একটি শূকরের মস্তিষ্ক তার শরীর থেকে আলাদা করে বাইরে নিয়ে এসে পরীক্ষাগারে গবেষণা চালানো হয়। খবর বিবিসিরসে সময় তার মস্তিষ্কে রক্ত সঞ্চালন চালু রাখার জন্য ব্যবস্থা করা হয়, পাম্প, হিটার এবং কৃত্রিম রক্তের। যার মাধ্যমে মস্তিষ্কে রক্ত সঞ্চালন প্রক্রিয়া নিরবচ্ছিন্নভাবে চালিয়ে যান বিজ্ঞানীরা।৩৬ ঘণ্টা পর সেই মস্তিষ্ক পুনঃস্থাপন করা হয়।পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর পুনঃস্থাপিত মস্তিষ্কে রক্ত সঞ্চালন চালু করতে সমর্থ হয়েছেন বিজ্ঞানীরা।এরপর বেঁচে ওঠা শূকরটি আবার ক্রমে স্বাভাবিক

পর্নোগ্রাফি দেখাই যাদের চাকরি

  

পিএনএস ডেস্ক: ফেসবুকে কিছু আপত্তিকর চোখে পড়লে আপনি যদি সেটা রিপোর্ট করেন- তাহলে সেই অনুরোধ চলে আসে বার্লিনে ফেসবুকের এক লুকানো অফিসে।আর সেখানে বসেই তাদের কনটেন্ট রিভিউয়াররা প্রতিদিন হাজার হাজার ছবি আর ভিডিও দেখে যাচাই করেন, সেগুলো ফেসবুকে রাখার উপযুক্ত কি-না! কিন্তু এখানে একটা সমস্যা আছে।ওই অফিসে কাজ করতেন, এমন এক কর্মী বিবিসিকে বলেছেন, আমাকে রোজ কাঁদতে হতো। ফেসবুকে বোধহয় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ এটা। আর সবচেয়ে খারাপও, কিন্তু কারও যেন সেটা নিয়ে মাথাব্যথা নেই।‘রোজ অসম্ভব সব

মশা যাদের রক্ত বেশি পছন্দ করে!

  

পিএনএস ডেস্ক : আপনি হয়তো একটু লক্ষ্য করলে দেখবেন, আপনারা দু'জন একসঙ্গে বসে আছেন। অথচ আপনার পাশের লোককেই বেশি মশা কামড়াচ্ছে! দু'জনই ব্যাপারটা খেয়াল করছেন। কিন্তু এর কারণ বুঝতে পারেন না?তাহলে জেনে রাখুন, মশারা কিন্তু ‘ও’ পজিটিভ গ্রুপের রক্ত খেতে বেশি পছন্দ করে! তাই যদি আপনার 'ও' পজিটিভ গ্রুপের রক্ত হয়, মশা তো আপনাকে কিছুতেই ছাড়বে না। আপনি মশার কাছে প্রায় অমৃত সমান। তাছাড়া আরও কিছু অদ্ভূত কিন্তু বিজ্ঞানসম্মত কারণে মশা আমাদের কামড়িয়ে থাকে। মশা কেন বেছে বেছে কিছু মানুষদেরই বেশি

টুকটুকে লাল দুপুরমণি

  

পিএনএস, ঘিওর (মানিকগঞ্জ) অরুণ রঙের অনিন্দ্য সুন্দর ফুল দুপুরমণি। ফুলটি বড্ড নিয়মে বাঁধা। ফোটে দুপুরে, ঠিক ১২টায়। এ জন্য এর নাম দুপুরমণি। এটি এক বুনো প্রকৃতির অনাদৃত গাছ। তবে রক্তরাঙা ফুলগুলো যখন ফোটে তখন কিন্তু এর সৌন্দর্যকে আর উপেক্ষা করা যায় না। টুকটুকে লাল। পিরিচের আকৃতিতে ছোট ছোট ফুল ফুটে গাছ আলো করে।এ ফুল দুপুরে ফোটে বিকেল হলেই ধীরে ধীরে নেতিয়ে পড়ে। ফুলপ্রেমীরা বাগানের শোভাবর্ধনে এটি বাড়ির আঙিনায় বা বাগানে বুনে থাকেন।ভেষজ চিকিৎসায় এ গাছের ব্যাপক গুরুত্ব রয়েছে। একে কেউ বলেন

যে কলার দাম এক লাখ টাকা

  

পিএনএস ডেস্ক:যুক্তরাজ্যের সুপারমার্কেট আসডা থেকে অনলাইনে মেয়ের জন্য একটি কলা কিনেছিলেন ববি গর্ডন। এরপর তিনি জানতে পারলেন, সেই কলার বিল হয়েছে ৯৩০ পাউন্ড বা বাংলাদেশি টাকায় এক লাখ ১০ হাজার টাকা।যদিও এর দাম হওয়ার কথা ১১ পেন্স বা কমবেশি ১৩ টাকার মতো। নটিংহ্যামের শেরউডের ববি গর্ডন বলছেন, প্রথমে বিলটি দেখে তিনি হতবাক হয়ে যান।তার ক্রেডিট কার্ডে বিলটি চার্জ করা হলেও, কার্ড কোম্পানির প্রতারণা ঠেকানোর টিম সেটি আটকে দিয়ে তাকে ক্ষুদে বার্তা পাঠায়।মিজ গর্ডন প্রথমে বিলটি দেখে অবাক

বালিশ যখন জীবন্ত চিতাবাঘ!

  

পিএনএস ডেস্ক : ডল্ফ সি ভলকর। দক্ষিণ আফ্রিকান এই প্রাণীবিদ পেশায় অ্যানিম্যাল অ্যাডভোকেট। ডল্ফ চিতা এক্সপিরিয়েন্সে ভলেন্টিয়রের কাজ করতেন। কাজ করতে করতেই চিতাদের সঙ্গে তার গভীর বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে উঠে। রাতের বেলা নরম বালিশ হলে ঘুম ভাল হয়। কিন্তু তা বলে সব ছেড়ে ছুড়ে চিতা! হ্যাঁ, শেষ পর্যন্ত খোদ চিতার পশমে মোড়া শরীরকেই বালিশ হিসাবে ব্যবহার করলেন এই ব্যক্তি! শুধু তাই নয়, চিতার সঙ্গে কাটানো সেই মুহূর্তের ভিডিও তুলে শেয়ারও করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। বন্য পশুর সঙ্গে মানুষের গভীর হৃদ্যতার সেই

গোপাল ভাঁড় কে ছিলেন?

  

পিএনএস ডেস্ক : মিষ্টির দোকানে থরে থরে সাজানো রয়েছে সন্দেশ, পানতোয়া, রসগোল্লাসহ হরেক মিষ্টান্ন। এমন রসাল মিঠাই দেখে কার না জিবে জল আসে! ছোট্ট গোপালেরও এল। মামাবাড়ি থেকে নিজের বাড়িতে ফিরছিলেন তিনি। পথিমধ্যে দোকানে মিষ্টি দেখে জিবে জল আসার সঙ্গে সঙ্গে তাঁর খিদেও গেল বেড়ে। পেটে যেন শুরু হলো ছুঁচোর কেত্তন। কিন্তু হাতে কোনো টাকাপয়সা নেই। কী করা যায়? গোপাল দেখলেন, দোকানে বসে আছে ময়রার ছেলে। আর তার বাবা দুপুরের খাবার খাচ্ছে পেছনের ঘরে বসে। অমনি থালায় সাজানো মিষ্টি টপাটপ করে খেতে শুরু করলেন তিনি।

নববর্ষে চার হাজার টাকায় দুপুরের খাবার!

  

পিএনএস ডেস্ক: বাংলা নববর্ষ ১৪২৫ উপলক্ষে লা মেরিডিয়ান ঢাকা আয়োজন করেছে মাস্টার শেফ শীতলের বিশেষ বৈশাখী বুফে লাঞ্চ ও ডিনার। সাথে থাকবে ঐতিহ্যবাহী নানা খাবারের সমারোহ।খাবারের আয়োজনে থাকছে শুকনা মরিচ ও পেঁয়াজের সাথে মাছ ভাজা, ট্যাংরা মাছের দো-পেঁয়াজা, মাছের পোলাও, মোরগ পোলাও, হাঁস ভুনা, গরুর মাংসের কালা ভুনা, শোল মাছের ঝোল, বাইন মাছ ভুনা, খাসির চুইঝাল, চিংড়ি দিয়ে করলা ভাজি, ধনে পাতার ডাল চচ্চড়িসহ সুস্বাদু নানা পদ। আরও থাকবে ভারতীয়, পশ্চিমা ও চীনা খাবারের আয়োজন হিসেবে ইন্ডিয়ান স্টেশন, ওয়েস্টার্ন

গাড়ির নম্বর প্লেটের মূল্য ১৩২ কোটি টাকা!

  

পিএনএস ডেস্ক:কী এমন অমূল্য হতে পারে গাড়ির নম্বর প্লেট। যে তার জন্য কোটি কোটি টাকার বাজি ধরবেন ক্রেতারা। এমনই অসম্ভব কাণ্ড ঘটেছে ব্রিটেনে। এক দেড় লাখ টাকায় নয়, গাড়ির একটি নম্বর প্লেট বিক্রি হয়েছে ১৩২ কোটি টাকায়। বাইরের দেশের তারকারা অনেক সময় নিজের পছন্দের নম্বর প্লেটের জন্য লাখ খানেক টাকা খরচ করেন বটে। তবে ১৩২ কোটি টাকা খরচ করার কথা শোনা যায়নি কখনও। এমন অসম্ভব ঘটনা সত্যিই ঘটেছে ব্রিটেনে। F1 নম্বর প্লেটটি কেনার জন্য যেকোনও মূল্য দিতে রাজি ছিলেন ব্রিটেনের একাধিক ব্যক্তি। এই নম্বর

Developed by Diligent InfoTech