আগাম আলু চাষে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কিশোরগঞ্জের কৃষক

  

পিএনএস ডেস্ক :আগাম জাতের ধান ঘরে তুলে এখন আগাম আলু চাষে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার কৃষকরা। আগাম জাতের আলু চাষ করে লাভবান হওয়ায় বরাবরের মতো এবারও আলু চাষে ঝাপিয়ে পড়েছে কৃষক। কিছুদিন আগে আগাম জাতের চায়না ধান ব্রি-ধান ৭১, ব্রি-ধান ৬৩ ঘরে তুলেছেন কৃষক। সেই জমিতে এখন আগাম আলুর বীজ বুনছে।

কয়েকটি গ্রামে গিয়ে দেখা যায় কৃষকরা আলু চাষে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। এসময় কথা হয় বাহাগিলি ইউনিয়নের উত্তর দুরাকুটি গ্রামের কৃষক আলম হোসেনের সাথে তিনি বলেন, বাজারে যার আলু যত আগে উঠবে, তার লাভ তত বেশি। তাই আগে ভাগেই আলু আবাদ করছি। এবার আবহাওয়া অনকূল। বীজের দাম কম। প্রয়োজনীয় সারের সরবরাহও স্বাভাবিক। তিনি এবার ১৪ বিঘা জমিতে আগাম জাতের আলু রোপন করছেন।

তিনি আরো জানান, প্রতি বিঘা জমিতে আগামজাতের আলু রোপনে খরচ হচ্ছে ১৫ হাজার টাকা। বিঘায় আলু উৎপাদন হবে প্রায় আড়াই হাজার কেজি। আগাম আবাদে আগাম বাজার ধরতে পারলে আলুর কেজি বিক্রি হবে প্রায় ৫০ থেকে ৫৫ টাকা করে। এতে বিঘা প্রতি আলু বিক্রি করে খরচ বাদে লাভ পাওয়া যাবে প্রায় ৩০ হতে ৪০ হাজার টাকা।

নিতাই ইউনিয়নের গাংবের গ্রামের আলু চাষী আলহাজ্ব আবুল কালাম আজাদ জানান, আগাম জাতের আলু চাষ করে ভালো দাম পাওয়া যায়। তাছাড়া ৬০-৬৫ দিনের মধ্যে এ আলু তে থেকে তোলা যায় বলে কৃষকদের আলু চাষের আগ্রহ বেশি। পানিয়াল পুকুর এলাকার আলু চাষী মোছারুল ইসলাম জানান, গতবার পাঁচ বিঘা জমিতে আলু আবাদ করলেও এবার দ্বিগুণ করেছেন। গতবার ভালো দাম পেয়েছেন বলে জানান তিনি। ফসলের মাঠে কৃষক ও কৃষি শ্রমিকদের বসে থাকার সময় নেই। প্রচুর কাজ হাতে। কাজ করে শেষ করতে পারছে না। শ্রমের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে বছরের এই সময়টা যে কৃষি শ্রমিকরা রাজধানী বা অন্যান্য শহরে দিন মজুরী করতে যেতেন, তারা মাঠেই রয়ে গেছেন। জিয়ারুল নামে এক কৃষি শ্রমিক জানান, আগে এ সময়টা কোন কাজ থাকতো না। এখন আগাম আলু চাষ হওয়ায় কাজের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। বেলাল নামের আরেক কৃষি শ্রমিক জানান, আগে বেকার থাকতে হতো আর এখন আলুতে কাজ করে প্রতিদিন ২ শ ৫০ থেকে ৩শ মজুরী পাওয়া যাচ্ছে। একই কথা জানালেন কয়েকজন শ্রমিক।

কিশোরগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এনামুল হক বলেন, উপজেলায় এবার ১৪ হাজার ৮৭০ হেক্টর জমিতে আগাম জাতের চায়না ও উচ্চ ফলনশীল ধান আবাদ হয়েছে। জমির আগাম জাতের ধান কাটা হয়েছে। এবার কৃষকরা আগাম জাতের আলু আবাদে নেমে পড়েছে। ৫০ থেকে ৫৫ দিনে এই আলু বাজারে পাওয়া যাবে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech