পিঁয়াজের কেজি ১৪০!

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : বাজারে দেশি পেঁয়াজের ঝাঁজ বেড়ে গেছে। এ সপ্তাহে কেজিপ্রতি দর ২০ টাকা বেড়ে ১৪০ টাকায় গিয়ে ঠেকেছে। নতুন পিঁয়াজও বিক্রি হচ্ছে প্রায় একই দামে! পিঁয়াজ পাতার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়। ভারতীয় পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকায়। বাজারে গিয়ে পিঁয়াজের দাম শুনে ক্রেতারা বিপাকে পড়ছেন।

দোকানদাররা বৃষ্টি আর বাজারে সরবরাহ কম বলে বাড়তি দাম নিচ্ছেন। যদিও আড়ত ও দোকানের কোথাও পিঁয়াজের বিন্দুমাত্র ঘাটতি দেখা যাচ্ছে না। আসলে নিয়ন্ত্রণের অভাবে পিঁয়াজের বাজার অস্থিতিশীল হয়ে পড়েছে। সিন্ডিকিটের কাছে ক্রেতারা জিম্মি। জিম্মিদশা থেকে বাজারকে বেরিয়ে আসার পথের অন্তরায়গুলো দায়িত্বশীলদের অবহেলায় দূর হচ্ছে না।

ক্রেতাদের স্বার্থ রক্ষার দায়িত্ব যাদের, তাদের সিদ্ধান্তহীনতা তথা রহস্যজনক আচরণের কারণেই মূলত সিন্ডিকেট মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। পার পেয়ে যাচ্ছে বারবার। তারা চাল, তেল, লবণসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য নিয়ে কারসাজি করে আসছে। সিন্ডিকেটকে শক্ত হাতে মোকাবিলা না করায় তারা বেপরোয়া হয়ে গেছে। মাঝখানে ক্রেতাসাধারণ ঠকছেন।

মৌসুমে পিাঁজের দাম ছিল ১৪ থেকে ১৬ টাকা। ক্রমে বেড়ে হয় ৩০ টাকা। যেখান থেকে একলাফে বেড়ে হয় ৪৫ থেকে ৫০ টাকা। এর পর ৬০ কাটায় পৌঁছে যায়। কদিন আগে ৬৫, ৭০, ৮০, ৯০, থেকে ১০০ টাকা হয়। এরপর বেড়ে হয় ১২০ টাকা। সবশেষে গতকাল ১২ ডিসেম্বর এবং আজ ১৩ ডিসেম্বর ১৪০ টাকা কেজি অবাধে বিক্রি হয়।

দেশে বছরে পিঁয়াজের প্রয়োজন ২২ লাখ টন। এর মধ্যে দেশে উৎপাদন হয় ১৮ লাখ টন। মাত্র ৪ লাখ টন ঘাটতি নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড ঘটাচ্ছে অসাধু ব্যবসায়ীরা। যদিও ইতিমধ্যে প্রয়োজনের কাছাকাছি আমদানি করেছেন ব্যবসায়ীরা। আরো পিঁয়াজ দেশে পৌঁছার অপেক্ষায়। নতুন পিঁয়াজও বাজারে আসা শুরু হয়েছে। অথচ দাম বাড়ছেই।

মাথার ঘাম পায়ে ফেলে উদয়-অস্ত হাড়ভাঙা পরিশ্রম করে যে কৃষক পিঁয়াজ আবাদ করেছেন, সে কৃষক কিন্তু অতিরিক্ত দামের সুবিধা পান না। যারা পান, তারা মধ্যসত্তভোগী অথবা সিন্ডিকেট। বাজার নিয়ন্ত্রণে টিসিবির মাধ্যমে পিঁয়াজ আমদানি করে তা খোলাবাজারে বিক্রি করা ছিল জরুরি। এটা না করায় সিন্ডিকেটের পোয়া বারো হয়। পিঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা জরুরি।

লেখক : সাধারণ সম্পাদক- ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন
ই-মেইল : jalam_prodhan72@yahoo.com

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech