দাম বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির

  




পিএনএস ডেস্ক: দাম বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির। এক সপ্তাহের ব্যবধানে রাজধানীর খুচরা বাজারে ব্রয়লার মুরগি কিনতে কেজিতে অন্তত ১০ থেকে ১৫ টাকা বেশি খরচ করতে হচ্ছে ক্রেতাদের। মুরগির বাচ্চার দাম বেড়ে যাওয়া এবং মুরগির মাংসের বাড়তি চাহিদা তৈরি হওয়া এই দাম বাড়ার কারণ বলছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর রামপুরা, কারওয়ান বাজার, ফার্মগেট, বাড্ডা, গুদারাঘাটসহ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে, যা আগে ছিল ১৩০ থেকে ১৩৫ টাকা। বিভিন্ন খুচরা বাজারের তুলনায় কারওয়ান বাজারে একটু কম দামেই ব্রয়লার মুরগি কেনা যায়। এই বাজারে এক সপ্তাহ আগে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হয় সর্বোচ্চ ১৩০ টাকা কেজি দরে। এখন বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৪৫ টাকায়।

কারওয়ান বাজারের মা আয়েশা ব্রয়লার হাউসের বিক্রেতা হারুনুর রশীদ জানান, সাপ্লাই ঠিক থাকলেও চাহিদা কিছুটা বেড়েছে। পিকনিকের মৌসুম হওয়ায় মুরগির চাহিদা একটু বেশি। দুই দিনের ব্যবধানে কেজিতে অন্তত ১০ টাকা দাম বেড়েছে।

রামপুরা, ফার্মগেট, বাড্ডাসহ এলাকাভিত্তিক বিভিন্ন খুচরা বাজারে ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৪৫ থেকে ১৫০ টাকা কেজি। গুদারাঘাটের মায়ের দোয়া চিকেন হাউসে দাম জানতে চাইলে বিক্রেতা হাসান মিয়া বলেন, ‘১৫৫ টাকা কেজি।’ তবে ১৫০ টাকা হলে তিনি বিক্রি করবেন বলেও জানান। দাম বাড়ার বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারেননি।

পোল্ট্রি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মাস দুয়েক আগে ব্রয়লার মুরগির বাচ্চার দাম একেবারে তলানিতে নেমে যায়। দাম কমে প্রতিটি বাচ্চা বিক্রি হয়েছে ১৭ থেকে ২০ টাকায়। চাহিদার চেয়ে বেশি পরিমাণে মুরগির বাচ্চা উৎপাদন করায় এ অবস্থার তৈরি হয়েছিল। প্রতি সপ্তাহে এক কোটি ৪০ লাখ বাচ্চার চাহিদার বিপরীতে তখন এক কোটি ৬০ লাখ বাচ্চা উৎপাদিত হয়েছে।

দাম পড়ে যাওয়ায় বাচ্চা উৎপাদনে জড়িত ব্যবসায়ীরা উৎপাদন কমিয়ে আনে। নতুন অনেক ব্যবসায়ী ব্রয়লার মুরগির বাচ্চা উৎপাদন থেকে সরেও আসে। ফলে এখন আবার উৎপাদন এক কোটি ৪০ লাখের কাছাকাছি নেমে এসেছে। বাচ্চার অতি উৎপাদন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এখন আবার দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। প্রতিটি ব্রয়লার মুরগির বাচ্চা এখন বিক্রি হচ্ছে ৪২ থেকে ৪৫ টাকা দরে; যার প্রভাব পড়েছে ব্রয়লার মুরগিতে।

ওয়ার্ল্ডস পোল্ট্রি সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশনের বাংলাদেশ শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. মাহবুব হাসান বলেন, ‘ব্রয়লার মুরগির বাচ্চার দাম বেড়ে গেছে। কারণ বাচ্চার উৎপাদন কমে গেছে। অনেকে উৎপাদন বন্ধ করেছে, অনেকে কমিয়ে এনেছে। এর প্রভাব পড়েছে ব্রয়লার মুরগির দামে।’

ব্যবসায়ীরা জানায়, সাধারণ যে চাহিদা রয়েছে সে অনুযায়ী মুরগির উৎপাদন রয়েছে। তবে এ সময়টা পিকনিক ও নানা অনুষ্ঠানের। এ কারণে বাড়তি কিছু চাহিদা রয়েছে। দাম বাড়ার পেছনে এই বাড়তি চাহিদাও কিছুটা ভূমিকা রেখেছে।

শুধু ব্রয়লার মুরগি নয়, ডিমের দামও কিছুটা বেড়েছে। প্রতি হালি ব্রয়লার মুরগির ডিমে কমপক্ষে দুই টাকা বেড়েছে। প্রতি হালি ব্রয়লার মুরগির ডিম কিনতে খরচ পড়ছে ৩৫ টাকা, যা আগে ৩২-৩৩ টাকায় পাওয়া যেত। আর প্রতি ডজন ডিম কিনতে হচ্ছে ১০০ টাকায়, যা দু-তিন দিন আগেও ৯৫ টাকায় বিক্রি হয়েছে।

চড়া দামে বিক্রি হওয়া হাঁসের ডিমের দামও ডজনে পাঁচ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। সপ্তাহখানেক আগেও এক ডজন হাঁসের ডিম বিক্রি হয়েছে ১৫৫ টাকায়। এখন ১৬০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech