গাঁজা বিক্রেতাকে ধরতে গিয়ে ছাত্রদের মার খেল পুলিশ

  

পিএনএস ডেস্ক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায় গাঁজা বিক্রেতাকে আটক করতে গিয়েছিলেন শাহবাগ থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. তৌহিদ। বাবু নামে এক গাঁজা বিক্রেতাকে ধরেও ছিলেন তিনি। কিন্তু গাঁজা সেবনকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী ওই পুলিশ সসদ্যের ওপর হামলা চালিয়ে গাঁজা বিক্রেতাকে ছাড়িয়ে নেয়ার চেষ্টা করে।

বুধবার বিকেল ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। মারধর করার নেতৃত্বে ছিলেন সিরামিক বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র সাহাবুদ্দীন। এ ঘটনায় গাঁজা সেবনরত মাসুদ ও রবিন নামে দুজনসহ গাঁজা বিক্রেতা বাবু ও সাহাবুদ্দীনকে আটক করা হয়েছে। মাসুদ ও রবিন শান্তিনগরের বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শাহবাগ থানার এএসআই তৌহিদের নেতৃত্বে একটি টিম চারুকলা থেকে গাঁজা ব্যবসায়ী বাবুকে আটক করে। পরে সেখানে থাকা সিরামিক বিভাগের সাহাবুদ্দিনের নেতৃত্বে ৪-৫ জন বাবুকে ছাড়িয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এসময় বাধা দিলে এএসআই তৌহিদকে মারধর করা হয়। এতে তার গলায় আঘাত লাগে এবং নেমপ্লেট ভেঙে যায়। পরে থানা থেকে অন্য পুলিশরা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে এবং তাদের আটক করে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর মো. রবিউল ইসলাম বলেন, দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের ওপর হামলা কোনোভাবেই কাম্য নয়। পুলিশ বলেছে তারা মারধর করেনি, ছাত্ররা মেরেছে। অন্যদিকে ছাত্ররা বলেছে, পুলিশ মেরেছে। ঘটনাটি আমরা তদন্ত করে দেখব।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হাসান বলেন, এ ঘটনায় সাহাবুদ্দীনকে আমরা শনাক্ত করেছি। সেসহ গাঁজা বিক্রেতা বাবু থানাহাজতে আছে। বাকিদের শনাক্ত করা হচ্ছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech