উত্তরায় হোস্টেলে মেডিকেল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ

  


পিএনএস ডেস্ক: রাজধানীর উত্তরায় একটি হোস্টেল থেকে তানহা রহমান (২১) নামে এক মেডিকেল ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ছাত্রী মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী ছিলনে।

শনিবার (১০ মার্চ) রাত ৮টার দিকে উত্তরা পশ্চিম থানাধীন ৯ নম্বর সেক্টরের ২ নং সড়কের ৩৪ নম্বর বাড়ির হোস্টেলের তৃতীয় তলায় ফ্যানের সাথে ওড়না লাগিয়ে গলায় ফাঁস দেয়।

পরবর্তীতে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উত্তরা আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

নিহত মেডিকেল ছাত্রী নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর থানাধীন নয়াতলা এলাকার মজিবুর রহমানের মেয়ে। বর্তমানে উত্তরার ওই হোটেলে দুই বোনের সাথে থাকত।

উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, নিহতের গলায় ফাঁস লাগানোর দাগ করেছে। ধারণা করা হচ্ছে সে আত্মহত্যা করেছে।

এদিকে নিহতের এক স্বজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, তানহার এক ছেলের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ওই প্রেমিকের সাথে অভিমান করে সে আত্মহত্যা করেছে।

নিহতের দুলা ভাই লিটন আহমেদ বলেন, তারা তিন বোন উত্তরার ওই হোস্টেলের তৃতীয় তলায় থাকত। কিন্তু দুই বোন বাহিরে যাওয়ার পর তানহা শনিবার সন্ধ্যায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

আত্মহত্যার বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আমিনুল কবীর বলেন, আত্মহত্যার পর লাশ উত্তরা আধুনিক মেডিকেলে নিয়ে যাওয়ার পর রাত নয়টার দিকে খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা প্রকৃয়াধীন রয়েছে। নিহতের লাশ ময়নাতন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তা জানা যায়নি। প্রেম জড়িত কোন কারণে সে আত্মহত্যা করেছে কিনা তা বলা যাচ্ছে না। তদন্ত সাপেক্ষে তা বেরিয়ে আসবে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech