স্বাস্থ্য পরীক্ষার নামে হজযাত্রীদের কাছ থেকে টাকা আদায়!

  



পিএনএস ডেস্ক: সরকারি হাসপাতালে হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার নামে জনপ্রতি এক হাজার ২শ’ টাকা আদায় করার অভিযোগ উঠেছে। বুকের এক্সরে, ইসিজি, ব্লাড গ্রুপ ও ব্লাড সুগারসহ কয়েক ধরনের পরীক্ষা ফি হিসেবে এ টাকা আদায় করা হচ্ছে বলে এ অভিযোগ করেছেন হজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) মহাসচিব শাহাদাত হোসেন তছলিম।

সোমবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে হজ কার্যক্রম প্রস্তুতির সর্বশেষ অগ্রগতি পর্যালোচনার জন্য জাতীয় হজ ব্যবস্থাপনা নির্বাহী কমিটির সদস্যদের অংশগ্রহণে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় তিনি এ অভিযোগ করেন। ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান এতে সভাপতিত্ব করেন।

হাব মহাসচিব বলেন, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ও কুমিল্লার একটি হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা তথা মেডিকেল প্রোফাইল তৈরির নামে নগদ এক হাজার ২শ’ টাকা আদায়সহ হজযাত্রীদের নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঢামেক হাসপাতালে কী কী পরীক্ষা করা হবে এবং এসব পরীক্ষার প্যাকেজিফি এক হাজার ২শ’ টাকা জানিয়ে ব্যানার টানানো হয়েছে।

এ সময় ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান ও ধর্মসচিব আনিচুর রহমান সভায় উপস্থিত স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (সংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাপক ডা. সানিয়া তাহমিনার কাছে এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি জানান, ব্যানার টানিয়ে টাকা আদায়ের বিষয়টি জানা নেই। এমনটি সরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ করার কথা নয়।

তিনি জানান, সৌদি আরবের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রত্যেক হজযাত্রীর মেডিকেল প্রোফাইল তৈরি করা হচ্ছে। সেখানে ইনফ্লুয়েঞ্জা ও ম্যানেনজাইটিস টিকার পাশাপাশি এক্সরে, ইসিজি, ব্লাড সুগার ও ব্লাড গ্রুপসহ কয়েকটি পরীক্ষার রিপোর্ট লিখে তবেই মেডিকেল বোর্ডের সদস্যদের স্বাক্ষর করতে হচ্ছে।

তিনি হজযাত্রীদের নিজেদের প্রয়োজনেও সব পরীক্ষা করা প্রয়োজন বলে জানান। সরকারি হাসপাতালে ইউজার ফি প্রদান করেই পরীক্ষা করাতে হবে বলে মন্তব্য করেন।

হাব সভাপতি আবদুস সোবহান ও মহাসচিব শাহাদাত হোসন তছলিম বলেন, আগামী ১৪ জুলাই থেকে হজ ফ্লাইট শুরু হচ্ছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষার নামে হজযাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় ও হয়রানি বন্ধ না হলে যাত্রীদের হজভিসা করার ক্ষেত্রে সমস্যা তৈরি হতে পারে।

তারা শুধুমাত্র ইনফ্লুয়েঞ্জা ও ম্যানেনজাইটিস টিকা দিয়ে স্বাস্থ্যসনদ প্রদানের পরামর্শ দেন।
তবে এ বিষয়ে দ্বিমত প্রকাশ করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধ্যাপক ডা. সানিয়া তাহমিনা। তিনি হজযাত্রীদের নিজের স্বার্থেই এক্সরে, ইসিজি, ব্লাড সুগার ও ব্লাড গ্রুপ- এ চার ধরনের পরীক্ষা করে তবেই হজে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech