শেরপুরে নাশকতার মামলায় বিএনপি-জামায়াতের ১৩নেতাকর্মী গ্রেফতার

  

পিএনএস, শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার শেরপুরে নাশকতার মামলায় বিএনপি-জামায়াতের ১৩ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার (০৬নভেম্বর) পৌরশহরসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় রাতভর অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- শেরপুর পৌর যুবদলের সভাপতি ও শহরের শ্রীরামপুর পাড়ার মৃত গাজীউর রহমানের ছেলে মো. মঞ্জুরুল আলম বাপ্পী (৪৫), পোদ্দারপাড়া এলাকার আব্দুস সামাদের ছেলে যুবদল নেতা আনোয়ার হোসেন (৩২), জগন্নাথ পাড়ার আব্দুস সাত্তারের ছেলে তাইফুর রহমান পাভেল (৩৮), একই এলাকার মোজাহার আলীর ছেলে মো. কাওসার (৩৮), টাউন কলোনীপাড়া এলাকার ফরিদুল ইসলামের ছেলে আল আমিন (২৮), আতাউর রহমানের ছেলে আশিকুর রহমান আশিক (৩০), উপজেলার হলদীবাড়ি গ্রামের বশির উদ্দিনের ছেলে বিএনপি নেতা ইয়াকুব আলী রাঙা (৫৬), গোসাইবাড়ী বটতলার ওমর আলীর ছেলে শহিদুল ইসলাম পাশা (৩৫), খামারকান্দি গ্রামের মোসলেম উদ্দীনের ছেলে ইয়াহিয়া (২৫), মির্জাপুর দক্ষিণ পাড়ার ইসাহাক আলীর ছেলে আব্দুল মুন্নাফ (২৬), ঘৌরদৌড় গ্রামের আব্দুল মালেক ফকিরের ছেলে আব্দুর রউফ বাচ্চু ফকির (৫০) ও জামায়াত নেতা শেরুয়া দহপাড়া এলাকার রইচ উদ্দিনের ছেলে সামছুল হক (৪৫), শাহনগর গ্রামের রোস্তম আলীর ছেলে শাহাদত হোসেন (৩৮)।

শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) বুলবুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, গেল ৫সেপ্টেম্বর রাতে উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নে চন্ডিপুর গ্রামস্থ বিএনপির আঞ্চলিক কার্যালয়ে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডের উদ্দেশ্যে গোপন বৈঠক করছিলেন বিএনপি-জামায়াতের নেতাকমীরা। একপর্যায়ে পুলিশ খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালায়। তবে পুলিশের উপস্থিতি আঁচ করতে পেরে পালিয়ে যায় তারা। এসময় বিএনপির ওই আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে দেশীয় অস্ত্রসহ বিস্ফোরকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। আর ওই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করে গতকাল বুধবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

এদিকে এই গণগ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বগুড়া জেলা বিএনপির উপদেষ্টা ও শেরপুর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক আলহাজ্ব জানে আলম খোকা। তিনি বলেন, আওয়মীলীগ সরকার ফাকা মাঠে গোল দিতে চায়। তাই নির্বাচনের আগে ধড়পাকড় শুরু করেছে। গায়েবী মালায় দলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। যাতে করে বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। তবে তাদের সেই স্বপ্ন পুরণ হবে না। তাই অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি করেন বিএনপি নেতা জানে আলম খোকা।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech