রাজধানীতে ভুয়া দুদক কর্মকর্তা আটক

  

পিএনএস ডেস্ক: দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে অনৈতিক অর্থ দাবি করায় মো. ফয়েজ উদ্দিন (ফয়েজ) ওরফে ফয়সল রানা (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে দুদক।

গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে দুদকের একটি বিশেষ টিম বুধবার রাজধানীর গুলিস্থান এলাকার হোটেল রাজধানী থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

দুদক গোয়েন্দা ইউনিটের পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে আরও ছিলেন- উপপরিচালক এসএমএম আখতার হামিদ, উপপরিচালক মো. মাহাবুবুর রহমান প্রমুখ।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী মো. আবদুল জলিল পল্টন থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। মামলার বাদী নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার খাসকান্দা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. আবদুল জলিল মামলার এজাহারে বলেন, চট্টগ্রামের চন্দনাইশ থানার দোহাজারি ঈদ পুকুরিয়া গ্রামের বাসিন্দা ফয়সল রানা নিজেকে দুদকের তদন্তকারী পরিচয় দিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন।

বাদীর বিরুদ্ধে দুদকে অভিযোগ রয়েছে মর্মে জানায় এবং উক্ত অভিযোগটি তার কাছে তদন্তাধীন আছে মর্মেও জানায়। দুদকে উত্থাপিত অভিযোগ হতে রেহাই পেতে হলে তাকে সাত লাখ টাকা দিতে হবে; তা না হলে সে আমার বিরুদ্ধে মামলা করে চার্জশিটে দেবেন বলে শাসান।

চাকরি হারানোর ভয়ে ভীত হয়ে বাদী কোনো উপায় না পেয়ে তাকে দুই-তিন মাস পূর্বে প্রথমে দুই লাখ টাকা সরাসরি প্রদান করেন। এর কিছুদিন পর আরও ২০ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে প্রদান করেন। কিছুদিন ধরে বাকি পাঁচ লাখ টাকা দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে।

এমনই পরিস্থিতিতে দুর্নীতি দমন কমিশন, প্রধান কার্যালয়ের শরণাপন্ন হলে আসামিকে হাতেনাতে গ্রেফতারের উদ্দেশ্যে পদক্ষেপ নেয়া হয়। বাদী দুদকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পরামর্শক্রমে টাকা দিতে রাজি হন। এরপর আসামি গুলিস্তানের রাজ হোটেলে আজ ওই টাকা গ্রহণ করতে সম্মত হয়।

দুপুর দেড়টায় দুদক কর্মকর্তাদের সাথে হোটেলে উপস্থিত হন বাদী। দুদকের কর্মকর্তাগণ ওঁৎপেতে বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান নেন। হোটেলটির দ্বিতীয় তলায় উপস্থিত হয়ে আসামিকে তিনি ফোন করেন। তাকে হোটেলের সামনে যেতে বলেন। সেখানে গেলে আসামি এসে করমর্দন করলে তার হাতে পাঁচ হাজার টাকা দেই। এ সময় দুদকের কর্মকর্তারা তাকে হাতে নাতে গ্রেফতার করে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech