নারীঘটিত কারণে বন্ধুকে পুড়িয়ে হত্যা; গ্রেফতার ছাত্রলীগের নেতাসহ ৫

  


পিএনএস ডেস্ক: বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলায় কলেজছাত্র নাইম হোসেনকে (২০) নারীঘটিত কারণে হত্যা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় নিহত নাইমের মা নাজমা বেগম বাদী হয়ে গ্রেফতার পাঁচজনসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে শুক্রবার রাতে হত্যা মামলা করেছেন। নিহত নাইমের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মামলার পর গ্রেফতার দুই সহপাঠী ও তিন বন্ধুকে হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ। তবে এজাহারভুক্ত অপর আসামি পলাতক রয়েছেন।

পুলিশ জানায়, গ্রেফতারকৃত আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রোববার বগুড়া আদালতে হাজির করে পাঁচদিনের রিমান্ড চাওয়া হবে।

বগুড়ার গাবতলী উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের মরিয়া গ্রামের ইনতেজার সোনারের ছেলে নাইম হোসেন সদরের একটি বেসরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের শেষবর্ষের ছাত্র ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকলে বন্ধুর ফোন পেয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান তিনি।

পরদিন শুক্রবার সকালে সারিয়াকান্দি বাজারের পূর্বপাশে একটি খোলা জায়গা থেকে আগুন দিয়ে পোড়ানো তার গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরনের কাপড় দেখে মা নাজমা বেগম মরদেহ তার ছেলে ইমরান হোসেনের বলে শনাক্ত করেন। হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে সারিয়াকান্দি পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং তিন বন্ধুসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ মামলায় আসামি করা হয়েছে- সারিয়াকান্দি উপজেলা সদরের বাড়ইপাড়া গ্রামের কান্টু মোল্লার ছেলে স্থানীয় পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম অনন্ত শ্রাবণ (২০), ধুনট উপজেলার গোলাইর তাইড় গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে মনির হোসেন (২০) একই উপজেলার চিকাশি দক্ষিণপাড়া গ্রামের লিয়াকত আলীর ছেলে অন্তর মিয়া (২০), সারিয়াকান্দি ভেলাবাড়ি ইউনিয়নের সোনাপুর গ্রামের শাহাদৎ হোসেনের ছেলে বাবু মিয়া (১৯) ও বাড়ইপাড়া গ্রামের বেলাল উদ্দিনের ছেলে আতিকুর রহমান (১৮)।

সারিয়াকান্দি থানা পুলিশের ওসি আল আমিন বলেন, নিহত নাইমকে হত্যার অভিযোগে যে পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে তারা সবাই মাদকাসক্ত। প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে অসংলগ্ন কথা বলছে তারা। তবে তাদের কথায় জানা যায়, নারীঘটিত কারণে তাদের মধ্যে বিরোধ ছিল। বিরোধের জের ধরেই বন্ধুকে হত্যা করা হয়। আসামিদের আরও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নেয়া হবে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech