অ্যাম্বুলেন্সে রোগীর সঙ্গে ইয়াবা পাচার!

  

পিএনএস ডেস্ক: দেশের সীমান্ত অঞ্চল থেকে নিত্যনতুন কৌশলে ইয়াবার চালান আসছে রাজধানীসহ সারাদেশে। প্রতিনিয়তই নতুন ও অভিনব কৌশল ব্যবহার করছে মাদক ব্যবসায়ীরা। এবার রোগী বহনকারী অ্যাম্বুলেন্সে পাওয়া গেল ইয়াবা।

সাইরেন বাজিয়ে আসছে অ্যাম্বুলেন্স। কক্সবাজারের চকরিয়া থেকে রোগী নিয়ে আসার সময় যানবাহনগুলো জায়গা করে দিচ্ছে। কিন্তু পুলিশের কাছে গোপনে খবর ছিলো সেই অ্যাম্বুলেন্সে শুধু রোগী নয়, ছিলো ইয়াবাও। সেই খবরের ভিত্তিতে শনিবার (৮ জুন) দুপুর দেড়টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর শাহ আমানত সেতু দক্ষিণ পাড়ে অ্যাম্বুলেন্সটির গতিরোধ করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ।সেই অ্যাম্বুলেন্সে তল্লাশি চালিয়ে ৮ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করে পুলিশ ।

এ ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্সের দুই মালিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- ফারুক হোসেন ও দুলাল আহমদ।

পরে অ্যাম্বুলেন্সে থাকা রোগীকে পুলিশ নিজেই নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এ ঘটনায় কর্ণফুলী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে।

গোয়েন্দা পুলিশ জানায়, ফারুক ও দুলাল বৃহস্পতিবার সকালে অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে নোয়াখালী থেকে কক্সবাজার যায়। কক্সবাজার থেকে তারা ইয়াবা সংগ্রহ করে।

রাতে চকরিয়ার জমজম হাসপাতাল থেকে হূদরোগে আক্রান্ত আনুমানিক ৬৫ বছর বয়সী এক রোগীকে নিয়ে তারা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা দেয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অ্যাম্বুলেন্সটি আটকে তল্লাশি চালানো হয়।

গোয়েন্দা পুলিশের এএসআই শন্তু শর্মা বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি অ্যাম্বুলেন্সে করে রোগীর সঙ্গে ইয়াবা আনছে একটি চক্র।

অ্যাম্বুলেন্সটি থামানোর পর সেখানে মুমূর্ষু একজন রোগীকে দেখতে পাই। আমরা ফারুক ও দুলালকে গাড়ি থেকে নামিয়ে আনি। তারপর আমি নিজেই অ্যাম্বুলেন্সটি চালিয়ে চমেক হাসপাতালে নিয়ে যাই।

রোগীকে আইউসিতে ভর্তি করি। এরপর গোয়েন্দা পুলিশের এডিসি হুমায়ুন কবিরের উপস্থিতিতে গাড়ি থেকে ইয়াবাগুলো উদ্ধার করি।

ফারুক ও দুলালের বিরুদ্ধে নগরীর কর্ণফুলী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech