‘ঋণ অনুমোদন, বিতরণ কিংবা তদারকিতে কোনো প্রকার গাফিলতি হলেই শাস্তি’ - অর্থনীতি - Premier News Syndicate Limited (PNS)

‘ঋণ অনুমোদন, বিতরণ কিংবা তদারকিতে কোনো প্রকার গাফিলতি হলেই শাস্তি’

  


পিএনএস ডেস্ক: ঋণ অনুমোদন, বিতরণ কিংবা তদারকিতে কোনো প্রকার গাফিলতি হলে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক আদেশে এই হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

জানা গেছে, ২০১৭ সালের ১৩ মার্চ 'ক্রেডিট রিস্ক ম্যানেজমেন্ট গাইডলাইনস' অনুসরণ কর করতে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর ব্যত্যয় হলে ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর আওতায় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। ব্যাংক কোম্পানি আইনে এ ধরনের অপরাধে চাকুরিচ্যুতিসহ জেল-জরিমানার বিধান রয়েছে।

গ্রাহককে যে উদ্দেশ্যে ঋণ দেওয়া হয়েছে বা হবে, সে উদ্দেশ্যেই ঋণের যথাযথ ব্যবহার হচ্ছে কি না, তা নিশ্চিত করতে বলেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ঋণ গ্রহীতা নির্বাচন থেকে শুরু করে ঋণ বিতরণ পরবর্তীকালে তদারক করতেও বলা হয়েছে।

সার্কুলারে বলা হয়, বিশেষত কিস্তি ভিত্তিক প্রকল্প ঋণের ক্ষেত্রে পূর্ববর্তী কিস্তির সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত হয়ে পরবর্তী কিস্তি ছাড়করণের জন্য পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া কোনো ঋণের অর্থ নির্দিষ্ট খাতের পরিবর্তে অন্যত্র ব্যবহৃত হলে ব্যাংককে তার কারণ উদঘাটনসহ তা রোধকল্পে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও নির্দেশনা প্রদান করা যাচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক কর্মকর্তা বলেন, খেলাপি ঋণের লাগাম টেনে ধরতেই এই সার্কুলার জারি করা হয়েছে। সার্কুলারে দায়িত্ব পালনে অবহেলা করলে শাস্তির কথা স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য বলছে, মার্চ শেষে ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮৮ হাজার ৫৮৯ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। মার্চ পর্যন্ত দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো মোট আট লাখ ২২ হাজার ১৩৭ কোটি ৪৪ লাখ টাকার ঋণ বিতরণ করেছে।

এ হিসাবে দেখা যাচ্ছে, বিতরণ করা ঋণের প্রায় ১১ শতাংশই খেলাপি হয়ে পড়েছে। এই বিপুল পরিমাণ খেলাপি ঋণের সঙ্গে ৪৮ হাজার ১৯২ কোটি টাকার অবলোপন (রাইট অফ) যোগ করলে প্রকৃত খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়ায় এক লাখ ৩৬ হাজার ৭৮১ কোটি টাকা।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech