বেসরকারি ব্যাংকগুলো ৬ শতাংশ সুদে পাবে

  



পিএনএস ডেস্ক: সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী এক অংকে সুদহার নামানোর সিদ্ধান্ত বাস্তাবায়নে সরকারি ব্যাংকগুলোতে পড়ে থাকা অলস অর্থ ৬ শতাংশ সুদে বেসরকারি ব্যাংকগুলোকে দেয়া হবে। এতদিন রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলো এই অর্থ ঋণ হিসেবে ১০ শতাংশ সুদের উপরে বেসরকারি ব্যাংকগুলোকে প্রদান করতো।

সোমবার ব্যাংকার্স সভার পর বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের সঙ্গে রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকের ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এসময় বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মোহাম্মদ রাজি হাসান, বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং রিফর্ম উপদেষ্টা এস কে সুর চৌধুরীসহ রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের এমডিরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা রাজি হাসান বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের অর্থ ৬ শতাংশ সুদে বেসরকারি ব্যাংকগুলোকে ঋণ দেয়ার বিষয়ে একমত হয়েছেন। বৈঠক শেষে সোনালী ব্যাংকের এমডি ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদও একই তথ্য জানিয়েছেন।

ব্যাংকার্স সভা সম্পর্কে ডেপুটি গভর্নর বলেন, আজকে সভায় বেশকিছু ইস্যু ছিল। এর মধ্যে সিঙ্গেল ডিজিটে সুদহার নামানোর সিদ্ধান্তর বিষয়ে আলোচনা হয়। ইতোমধ্যে দুই একটি ব্যাংক সুদহার নামিয়ে এনেছে। অনেকে বোর্ড মিটিং করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অন্যরাও মিটিং করে কাজ শুরু করবে। বেসরকারি ব্যাংকগুলো সরকারি প্রতিষ্ঠানের আমানতের কথা বলেছে। এ বিষয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট পর্যায়ে আলোচনা চলছে। সরকার এ বিষয়ে সিদ্ধন্ত নিবে। এটি সমাধান হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, সুদহার কমাতে ব্যাংকগুলো নিজেরা সিদ্ধান্ত নেবে। এক অংকে সুদহার কমিয়ে আনার সময় যদি কোনো ব্যাংক সমস্যায় পরে কেন্দ্রীয় ব্যাংক তাদের সহায়তা করবে।

ব্যাংকার্স সভার বিষয়ে জানতে চাইলে ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) চেয়ারম্যান ও বেসরকারি ঢাকা ব্যাংকের এমডি সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, সুদের হার এক অংকে নামিয়ে আনার সিদ্ধান্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকের। এ কারণে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকেই ভূমিকা রাখতে হবে। দেশ ও অর্থনীতির স্বার্থে এটা করতে হবে। এটা করতে গিয়ে যেন কোনো বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি না হয়। সে দিকেও খেয়াল রাখতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এবিবির চেয়ারম্যান বলেন, সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে আনতে গিয়ে কোনো সমস্যা হলে বাংলাদেশ ব্যাংক দেখবে। প্রয়োজনে ঋণ-আমানত অনুপাতসীমা কিছুটা লঙ্ঘন হলেও বাংলাদেশ ব্যাংক ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবে। অনেকটা নমনীয় থাকবে। দেশ ও উন্নয়নের স্বার্থে এটি বাস্তবায়ন করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংক সবধরনের সহযোগিতা করবে সভায় জানানো হয়।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে ব্যাংকগুলো সুদহার কমানোর সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন শুরু করেছে। বেশকিছু ব্যাংক আজকে থেকেই কাজ শুরু করেছে। অন্যান্যরাও শিগগিরই এটি বাস্তবায়ন করবে। কারণ হঠাৎ করেই সবাই কাজ করতে পারবে না। এতে হিসাব-নিকাশের বিষয় আছে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech