পাসপোর্ট বাতিল হওয়ায় 'দেশছাড়া' পাকিস্তানের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী

  

পিএনএস ডেস্ক : পাকিস্তানের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী ইসহাক দার ও তাঁর স্ত্রীর কুটনৈতিক পাসপোর্ট বাতিল করেছে পাকিস্তান সরকার। পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট তাদের হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিলেও সময়ের মধ্যে তারা তা করেননি। আর একারণেই তাদের পাসপোর্ট বাতিল করা হয়। ফলে এই মুহূর্তে পাসপোর্ট জটিলতায় লন্ডন থেকে দেশে ফিরতে পারছেন না তারা।

২০১২ সালে যখন ইসহাক দার পাকিস্তান সিনেটের বিরোধী নেতার পদে আসেন, তখন ইসহাক দার ও তাঁর স্ত্রী তাদের ‘ব্লু’ পাসপোর্ট কুটনৈতিক পাসপোর্ট পরিণত করেন। ২০১৩ সালের জুন মাসে বিরোধী দলনেতা হিসেবে পদত্যাগ করার পরও ইসহাক দার ও তাঁর স্ত্রী সেই একই পাসপোর্ট ব্যবহার করতে থাকেন। ততদিনে পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী পদে শপথ নিয়েছেন ইসহাক দার।

দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় দফতর সূত্রে খবর, নিয়ম অনুযায়ী প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী ইসহাক দার-এর উচিৎ ছিল পদত্যাগের ৩০ দিনের মধ্যে তাঁর সেই পাসপোর্ট সংশ্লিষ্ট দফতরের হাতে তুলে দেওয়া। কিন্তু তিনি তা করেননি। এদিকে লন্ডনে চিকিৎসার জন্য যাওয়ার আগেও তিনি সেই পাসপোর্ট জমা দেননি। কিন্তু ব্লু পাসপোর্টের জন্য আবেদন জানান। যা এখনও পর্যন্ত তার হাতে আসেনি। এবার পাকিস্তান সরকার তাঁকে নতুন পাসপোর্ট দেওয়ার আগেই তার পুরানোটি বাতিল করে দিল। যার জেরে বর্তমানে ‘রাজ্যহারা’ প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী ইসহাক দার ও তাঁর স্ত্রী৷

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech