যেভাবে ঘরে বসেই পাবেন ই-টিআইএন!

  


পিএনএস ডেস্ক : জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আগের ট্যাক্স আইডেনটিফিকেশন নাম্বারের (টিআইএন) পরিবর্তে এখন চালু করেছে ই-টিআইএন।

আগের টিআইএনধারীদেরও এখন ই-টিআইনএন নিতে হচ্ছে। নতুন যেসব করদাতা আসছেন তাদেরও ই-টিআইএন নিতে হচ্ছে। ই-টিআইএন নেয়ার পদ্ধতিও অনেক সহজ করেছে এনবিআর। অনলাইনে ঘরে বসেই এখন ই-টিআইন করা সম্ভব হচ্ছে।

বর্তমানে যাদের টিআইএন আছে তাদেরও নতুন পদ্ধতির টিআইএন এর রি-রেজিস্ট্রেশন করে ই-টিআইএন পেতে হবে। নতুন পদ্ধতিতে টিআইএন রেজিস্ট্রেশন ও রি-রেজিস্ট্রেশনের শুরুতে প্রত্যেককে অবশ্যই অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে।

যেভাবে একাউন্ট তৈরি করবেন : এজন্য প্রথমেই যেতে www.incometax.gov.bd ওয়েবসাইটটে। এটি এনবিআরের আয়কর বিভাগের একটি ওয়েবসাইট। এর হোমপেজের রেজিস্ট্রার বাটনে ক্লিক করলে রেজিস্ট্রেশন ফরম পাওয়া যাবে।

ফরমে মোবাইল ফোন নাম্বার দিতে হবে। এতে তাৎক্ষণিকভাবে একটি কোড পৌঁছে যাবে মোবাইল ফোনে। পর্দাই প্রদর্শিত ডায়ালগ বক্সে মোবাইল ফোনে দেয়া কোডটি দিয়ে একটিভ বাটনে ক্লিক করলেই পর্দায় দেখতে পাবেন টিন সফল হওয়ার তথ্য।

তখন টিন এপিকেশন মেন্যুতে ক্লিক করলে এবার রেজিস্ট্রেশন বা রি-রেজিস্ট্রেশন ফরমে প্রদর্শিত শূন্যস্থান পূরণ করে পরবর্তী পেজে যেতে হবে। নতুন করদাতারা রেজিস্ট্রেশন বাটনে এবং পুরনো করদাতারা যাদের টিআইএন নম্বর আছে তারা রি-রেজিস্ট্রেশন বাটনে ক্লিক করবেন।

এতে ফরমে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে শূন্যস্থান পূরণ করে আবার পরে পেজে যেতে হবে। প্রাপ্তবয়স্ক ও অপ্রাপ্তবয়স্ক বাংলাদেশি নাগরিকের (যাদের জাতীয় পরিচিতি নম্বর নেই) নতুন-ই-টিআইএন রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে এ পর্যায়ে এসে ডিজিটাল ফরমেটে সদ্য তোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি আপলোড করতে হবে। প্রিভিউতে ফরমে প্রদর্শিত আপনার দেয়া তথ্যগুলো সঠিক আছে কিনা, তা শেষবারের মতো যাচাই করতে হবে।

সবকিছু ঠিক থাকলে ফাইনাল প্রিভিউর একেবারে নিচে চেক বক্সে টিক চিহ্ন দিতে হবে। এরপর সাবমিট বাটনে ক্লিক করলেই রেজিস্ট্রেশন বা রি-রেজিস্ট্রেশনকারী নতুন ১২ ডিজিটের টিআইএন পাবেন।

এ নাম্বারের আলোকে আপনাকে আয়কর রিটার্ন জমা দিতে হবে। তবে প্রাপ্তবয়স্ক ও অপ্রাপ্তবয়স্ক আবেদনকারী, যাদের জাতীয় পরিচিতি নম্বর নেই এবং যিনি পাসপোর্টের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন বা রি-রেজিস্ট্রেশন করতে চান। তিনি একটি টিকিট পাবেন।

টিকিট প্রিন্ট করে তাতে উল্লেখিত নিয়ম অনুসরণ করে টিকিটে উল্লেখিত আয়কর কার্যালয়ে যোগাযোগ করতে হবে। তাহলে ওই ব্যক্তিও পেয়ে যাবেন ই-টিন নাম্বার।

অনলাইনে টিআইএন রেজিস্ট্রেশন এবং রি-রেজিস্ট্রেশনের জন্য যা লাগবে : ব্যক্তির ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচিতি নম্বর বা পাসপোর্ট নম্বর, অভিভাবকের ১২ ডিজিটের টিআইএন, সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজ ছবি, পূর্বের টিআইএন (রি-রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে)।

পিএনএস :এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech