একাধিক ক্যাম্পাস পরিচালনা করলেই আইনি ব্যবস্থা

  

পিএনএস ডেস্ক : শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় তাদের প্রতিষ্ঠান পরিচালনার নির্ধারিত শর্ত পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। আবার কেউ কেউ মুনাফার লক্ষ্য নিয়ে চলছে। তাদের বিরুদ্ধে অব্যাহত চাপ রেখেও সঠিক ধারায় আনা কঠিন হয়ে পড়েছে। যারা নির্ধারিত সময়েও নিজস্ব ক্যাম্পাসে যেতে পারেনি, একাধিক ক্যাম্পাস পরিচালনা করছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ ছাড়া আর কোনো পথ খোলা নেই।

গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আহছানউল্লা ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির সমাবর্তনে সভাপতির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। সমাবর্তনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান। সমাবর্তন বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট ও এক্সিকিউটিভ ভাইস চ্যান্সেলর ড. মোহাম্মদ এ করিম। এ ছাড়া বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান কাজী রফিকুল আলম, উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এম এম শফিউল্লাহ প্রমুখ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, 'বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে জ্ঞানচর্চা, গবেষণা ও নতুন জ্ঞান অনুসন্ধান করতে হবে। নতুন জ্ঞান সৃষ্টি করতে হবে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সৃষ্ট জ্ঞান আমাদের জাতির মেৌলিক ও বিশেষ সমস্যাগুলোর সমাধান দিতে পারে। এ জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে সে ধরনের পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ এবং গুণগত মান বৃদ্ধির জন্য অব্যাহত প্রচষ্টো চালিয়ে যেতে হবে। এ জন্য বিষয় বাছাই, শিক্ষাক্রম উন্নয়ন, শিক্ষাদানের পদ্ধতি অব্যাহতভাবে উন্নত ও যুগোপযোগী করতে হবে।'

মন্ত্রী বলেন, 'আমরা সরকারি বা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকারী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে কোনো পার্থক্য করি না। তারা সকলেই আমাদের সন্তান এবং জাতির ভবিষ্যত্। তাদের সকলের জন্যই আমরা মানসম্মত শিক্ষা এবং সকল সুযোগ নিশ্চিত করতে চাই।'

মন্ত্রী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সংশি্লষ্ট সবাইকে ব্যবসা ও মুনাফার চিন্তা ত্যাগ করে জনকল্যাণে ও সেবার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। পাশাপাশি তিনি জনগণের আর্থসামাজিক অবস্থা বিবেচনা করে টিউশন ফি নির্ধারণের অনুরোধ জানান।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech