কালীগঞ্জে প্রশ্ন ফাঁসে ৩ পরীক্ষার্থী আটক, ৬ জনের পরীক্ষা বাতিল ! - শিক্ষা - Premier News Syndicate Limited (PNS)

কালীগঞ্জে প্রশ্ন ফাঁসে ৩ পরীক্ষার্থী আটক, ৬ জনের পরীক্ষা বাতিল !

  

পিএনএস, কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরের কালীগঞ্জে গণিত পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে ৩ পরীক্ষার্থী আটক, দায়িত্ব ও কর্তব্য অবহেলায় ২ শিক্ষককে বহিস্কার এবং ৬ জনের পরীক্ষা বাতিল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের নোয়াপাড়া ময়েজউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে। এ বিষয়ে নোয়াপাড়া ময়েজউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্র সচিব মো. গোলজার হোসেন বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় ৩ পরীক্ষার্থীর নামে মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, নোয়াপাড়া ময়েজউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রের কক্ষসমূহ পরিদর্শন কালে ৬ নং কক্ষে পরীক্ষার্থী প্রণয় দাস রেজি: নং- ১৪১০৮৩৫৯৯৬, রোল নং- ৭৫৪৫৩০ সিম্পনি মোবাইলের এইচ ৬০, আই এম ই আই-৩৫৫৩৫৬০৭১৮২৫৯৮৫, ৩৫৫৩৫৬০৭১৮৭৬০৮৭ মোবাইল ব্যবহার করে @ প্রশ্ন-ধারা-৫৩, ssc exam(math final group), math…group, ssc…math…final group, এস.এস.সি একা্রাম. ২০১৮ (গণিত) এই পাঁচটি মেসেনঞ্জার গ্রুপ ব্যবহার করে আনুমানিক সকাল ৯ টায় গণিত এমসিকিউ খ সেটের প্রশ্ন ও উত্তরপত্র ফাঁস করে পরীক্ষা দিতে থাকে। মেসেনঞ্জার গ্রুপে ফাঁসকৃত প্রশ্নের সাথে আজকের পরীক্ষার হুবহু মিল পাওয়া যায়।

পরীক্ষার্থী প্রনয় দাস তার নিজ নামে খোলা “ প্রনয় দাস ” মেসেনঞ্জার আইডি হতে অপর পরীক্ষার্থী সঞ্জয় শীল রোল নং-৭৫৪৫২২, রেজি : নং-১৪১০৮৩৬০০৯ এর নামে খোলা “ সঞ্জয় শীল ” মেসেনঞ্জার আইডিতে এবং আরেকজন পরীক্ষার্থী সজীব দাস রোল নং-৭৫৪৫২৩, রেজি: নং-১৪১০৮৩৬০১১ এর নামে খোলা “ সজীব দাস হৃদয় ” মেসেনঞ্জার আইডিতে আনুমানিক সকাল ৯.৩০ ঘটিকায় ফাঁসকৃত প্রশ্ন ও উত্তর পত্র প্রেরণ করে।

ওই ৩ পরীক্ষার্থীসহ একই কক্ষে আসাদুল ইসলাম, মো. সাগর, মো. সালমান, রাজু আহমেদ, হাফিজুর রহমান ও মাহাবুব আলম বিভিন্ন সেট কোডের প্রশ্ন হাতে থাকা সত্বেও ফাঁসকৃত প্রশ্নে পরীক্ষা দিতে থাকে। কক্ষের দায়িত্বরত পর্যবেক্ষক চুপাইর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক সঞ্জীব কুমার দেবনাথ ও জাঙ্গালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের আইসিটি শিক্ষক মো. নজরুল ইসলাম যে সেটের প্রশ্ন পেয়েছে সেই কোডে উত্তরপত্রে পরীক্ষা দিচ্ছে কিনা নিশ্চিত করার দায়িত্ব থাকলেও সেটা তারা না করে দায়িত্ব ও কর্তব্য অবহেলার কারণে ওই দুই শিক্ষককে বহিস্কার করা হয়েছে।

ঘটনাটি জানাজানি হলে নোয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে পরিদর্শনে যান ইউএনও খন্দকার মু. মুশফিকুর রহমান ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সোহাগ হোসেন। ওই তিন পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা বাতিল করে তাদের কালীগঞ্জ থানায় নিয়ে যায়। গণিত পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসকারী ওই তিন পরীক্ষার্থী চুপাইর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

এছাড়া পরীক্ষার্থী আসাদুল ইসলাম, মো. সাগর, মো. সালমান, রাজু আহমেদ, হাফিজুর রহমান তারা নরুন উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও মাহাবুব আলম চুপাইর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বিভিন্ন সেট কোডের প্রশ্ন হাতে থাকা সত্বেও ফাঁসকৃত প্রশ্নে পরীক্ষা দেয়ায় তাদের গণিত পরীক্ষা বাতিল করা হয়। কিন্তু তারা পরের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে বলে কেন্দ্র সচিব মো. গোলজার হোসেন জানান।

নোয়াপাড়া ময়েজউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্র সচিব মো. গোলজার হোসেন জানান, পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইলের মাধ্যমে প্রশ্ন ফাঁস করে এবং একই সেটের এমসিকিউ প্রশ্ন (সেট কোড খ) ব্যবহার করে পরীক্ষা দেয়ায় ৩ পরীক্ষার্থীকে আটক করা হয় এবং তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনের অবহেলার জন্য দুই শিক্ষককে বহিস্কার করা হয়েছে। ৬ পরীক্ষার্থীর গণিত পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে। তবে ওই ৬ পরীক্ষার্থী পরের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech