ঢাবির অধিভুক্ত ৭ কলেজের ২২৯ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কারের সুপারিশ

  

পিএনএস ডেস্ক: পরীক্ষায় নকল করা, হলে মোবাইল রাখা, বাইরে থেকে খাতা নেওয়াসহ শৃঙ্খলা ভঙ্গের বিভিন্ন অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হওয়া সরকারি সাত কলেজের ২২৯ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কারের সুপারিশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে শৃঙ্খলা পরিষদের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এসব শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে সর্বনিম্ন ছয় মাস থেকে সর্বোচ্চ দুই বছরের জন্য বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে। বহিষ্কার হতে যাওয়া শিক্ষার্থীরা সবাই স্নাতকোত্তর পর্যায়ের শিক্ষার্থী।

পরীক্ষার হলে অসদাচরণ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলাবিরোধী কাজে জড়িত থাকায় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে।

শৃঙ্খলা পরিষদের একটি সূ্ত্র জানায়, অধিভুক্ত কলেজগুলোর দুই শতাধিক শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় নকলের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বাকিদের কেউ পরীক্ষার হলে মুঠোফোন নিয়ে এসেছিলেন, কেউ বাইরে থেকে খাতা আনার চেষ্টা করেছিলেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিখা চিরন্তনে মারামারি, লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে দুই পক্ষের সংঘর্ষ ও মনোবিজ্ঞান বিভাগে এক শিক্ষকের সঙ্গে পরীক্ষার হলে অসদাচরণ করার পৃথক তিনটি ঘটনায় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কারের সুপারিশ করেছে শৃঙ্খলা পরিষদ। তবে এই সংখ্যাটি নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

শৃ্ঙ্খলা কমিটির সদস্য সচিব ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর এ কে এম গোলাম রব্বানী জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করায় এই বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থীর শাস্তির সুপারিশ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরবর্তী সিন্ডিকেট সভায় এদের সম্পর্কে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech