অযত্নে জাবির পুকুর থেকে হারিয়ে যাচ্ছে পদ্মফুল!

  

পিএনএস, মো. ফারুক হোসেন (জাবি প্রতিনিধি) : অপরূপ সৌন্দর্য্যরে লীলাভূমি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ শ্যামল প্রকৃতি, লেকের দৃষ্টিনন্দন লাল শাপলা, শীতের অতিথি পাখি প্রভৃতির সুনাম দেশব্যাপী। তবে এসবের বাইরে বেশ কয়েক বছর ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দর্য্যে নতুন পালক যুক্ত করেছে পদ্ম ফুল।এখানকার দুইটি লেকে দৃষ্টিনন্দন গোলাপী পদ্ম পাওয়া যায়। এর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের চৌরঙ্গী মোড় সংলগ্ন পদ্ম ফোয়ারা লেক ও অন্যটি জহির রায়হান মিলনায়তনের সামনের একটি লেক। তবে অযত্নে ও অবহেলায় জহির রায়হান মিলনায়তনের সামনের লেকের পদ্ম ফুল হারিয়ে যেতে বসেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, জহির রায়হান মিলনায়তনের সামনের মাঝারি আয়তনের লেকের প্রায় পুরোটাই কচুরিপনা ও আগাছায় ভরে গেছে। এসবের ভিড়ে দুএকটি পদ্ম গাছ কোন রকমে টিকে আছে। কিছু কিছু পদ্ম গাছের মরা পাতা দৃশ্যমান। তবে চৌরঙ্গী মোড় সংলগ্ন পদ্ম ফোয়ারা লেকে শোভা পাচ্ছে দৃষ্টি নন্দন গোলাপী পদ্ম। এই লেকের পুরোটাই পদ্মে ভরা।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে পদ্মের দেখা মিললেও এই পদ্ম ফোটানোর চেষ্টা বহু আগে থেকে।

সূত্র জানায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধির জন্য প্রথমে জহির রায়হান মিলনায়তনের সামনের দুইটি লেকে পদ্ম রোপন করা হয়। তবে তা বাঁচানো সম্ভব হয়নি। পরে ২০১৩ সালে একটি কমিটি করে চৌড়ঙ্গী মোড় সংলগ্ন স্থানে একটি ছোট লেক খনন করা হয়। কমিটির প্রচেষ্টায় এই লেকে গাজীপুর ও বরিশাল থেকে সংগৃহীত ৩০টি পদ্ম রোপন করা হয়। এরপর আর পেছনে ফিরে তাঁকাতে হয়নি। প্রতি বছর দৃষ্টি নন্দন পদ্ম ফুল উপহার দিয়ে যাচ্ছে এই লেক। এরপর ২০১৬ সালে এই লেক থেকে বেশ কিছু পদ্ম নিয়ে জহির রায়হান মিলনায়তনের সামনের একটি লেকে রোপন করা হয়। এতে সেখানে সুফল পাওয়া যায়। গোলাপী পদ্ম ফোটে ওই লেকে। এরপর গত বছরও এই লেকে প্রচুর দৃষ্টি নন্দন পদ্ম ফুল ফোটে। তবে সংরক্ষণের অভাবে দু’বছরের মধ্যে হারিয়ে যেতে বসেছে এই লেকের পদ্ম।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় এস্টেটের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও মুখ্য উদ্যানতত্ত্ববিদ মো. নুরুল আমিন বলেন, ‘এই লেকে পদ্ম বেশি হবে না। কারণ পদ্মের জন্য প্রচুর কাদা মাটি প্রয়োজন। যেটা ওই লেকে নেই।’ তিনি আরো বলেন, ‘কচুরিপনা পরিষ্কারের জন্য আমাদের নৌকা প্রয়োজন। আমরা একটি নৌকা সংস্কারের জন্য বিজ্ঞান কারখানাকে চিঠি দিয়েছি। তবে তারা এখনো ঠিক করে দেয়নি। নৌকা পেলে আমরা পরিষ্কার করতে পারতাম।’

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech