জাবির নাট্যতত্ত্ব বিভাগের আয়োজনে মঞ্চায়িত ‘সম্রাট জোনস’

  

পিএনএস, জাবি প্রতিনিধি: একসময় রেলগাড়ির স্লিপিং চেয়ার কোচে কুলির চাকরি করতো জোন্স । সে ওয়েস্ট ইংরেজের নাম না জানা একটি দ্বিপে পালিয়ে আসে। যে দ্বীপে পালিয়ে আশ্রয় নেয় জোন্স, সেই দ্বীপের একজন স্থানীয় বাসিন্দা তাকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করে কিন্তু গুলিটি জোন্সের শরীরে লাগে না। বেঁচে থাকা জোনসের নাটকের শেষ পর্যায়ে জোনসের কর্মফল হিসেবে তার উপরে আসে চরম পরিণতি। এরকম আর্থ-সামিজক ও রাজনৈতিক বিভিন্ন ঘটনা প্রবাহের মাধ্যমেই এগিয়ে যেতে থাকে সম্রাট জোনস নাটকটি।

সোমবার (০৩ ডিসেম্বর) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের পরিক্ষার্থীবৃন্দ ২য় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা প্রযোজনার অংশ হিসেবে মঞ্চায়িত করেছে আমেরিকান নাট্যকার ইউজিন ও’নীল রচিত নাটক “সম্রাট জোন্স”। বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনে নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ল্যাব কক্ষে এ নাটকটি মঞ্চায়িত হয়।

জনপ্রিয় এই নাট্যপান্ডুলিপিটি বিভাগীয় কোর্স শিক্ষক ও সহকারী অধ্যাপক রেজা মোহাম্মদ আরিফের সার্বিক তত্ত্বাবধানে, পরিকল্পনা ও নির্দেশনা প্রদান করেন একই বিভাগের প্রভাষক মহিবুর রৌফ - শৈবাল। প্রথম মঞ্চায়নে কলা-কুশলী হিসাবে এই নাটকটিতে অভিনয় করেছে ২য় বর্ষের ২৭ জন শিক্ষার্থী। আগামীতে নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের প্রযোজনা হিসাবে নাটকটি নিয়মিত মঞ্চায়নের জন্যও প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে নির্দেশক নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের প্রভাষক মহিবুর রৌফ - শৈবাল বলেন, নাটকও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের কোর্সের অংশ হিসেবে পাশ্চাত্য নাট্য-ধারা ও দর্শনবোধের সাথে শিক্ষার্থীদের সম্যক পরিচয় ও গবেষণাধর্মী নাট্য-প্রযোজনারীতি সর্ম্পকে হাতে-কলমে কুশলতা অর্জনের যৌথলক্ষ্যে প্রখ্যাত মার্কিন নাট্যকার “ইউজিন ও’ নীল” এর সম্রাট জোনস নাটকটিকে বাছাই করা হয়েছে। বাংলা রূপান্তরিত নাট্য প্রযোজনার সঙ্গে, রচনা পরিচালনা, প্রযোজনা বা অভিনয় প্রসঙ্গে সরাসরি যুক্ত থেকে নাটকের বাংলা নাট্য প্রযোজনায় মূল নাটকের বিভিন্ন দিক সুনিপুনভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। নিরীক্ষাধর্মী এই প্রযোজনারীতিতে আফ্রিকান ‘ফেস্টিভ মাস্ক’, বাস্তবানুরূপ পোষাক ও সেট প্রপস, গণসঙ্গীত, বাদ্যযন্ত্র, বর্ণিল আলোক প্রক্ষেপন, ডিজিটাল সাউন্ড ইফেক্ট, দৃশ্যপরিকল্পনা ও মঞ্চ সজ্জ্বার ক্ষেত্রে গবেষণা সুত্র হিসেবে ব্যাবহার হয়েছে। ভরত মুনির নাট্যবেদে বর্নিত বিকৃষ্ট মঞ্চের আদলে পরিবেশ ও পরিস্থতি মূল্যায়নে এনভায়রনমেন্টাল প্যান্টোমাইমিক স্টেজ শো অভিধায় নামাঙ্কিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ গুরুত্ত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে, যা জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল



 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech