জাবির দুই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তির অভিযোগ

  

পিএনএস, জাবি প্রতিনিধি : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষণ ও সমাবেশের ছবি বিকৃতি এবং শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (১০ মে) সন্ধ্যায় অভিযুক্তদের আজীবন বহিষ্কারের দাবিতে প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছে শাখা ছাত্রলীগ।

অভিযুক্তরা হলেন, মার্কেটিং বিভাগের ৪৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ফাহিম হোসেন এবং নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ৪৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ক্যামেলিয়া শারমিন চূড়া।

অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়, 'ফাহিম হোসেন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় নিজের ফেইসবুক আইডি থেকে বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অসম্মান করে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও ভাষণের ছবি বিকৃত করে প্রচার করে।

অন্যদিকে ক্যামেলিয়া শারমিন চূড়া বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবমাননা করে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য প্রচার করে।

তাই জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ অভিযুক্ত দুইজনকে দ্রুত বিচারের আওতায় এনে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কারের দাবি জানাচ্ছে।'

অভিযুক্ত ফাহিম হোসেনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

অপর অভিযুক্ত ক্যামেলিয়া শারমিন চূড়া বলেন, ‘আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কোনো কটূক্তি করিনি। আমাদের বাড়িতে একটা মেয়ে থাকে, তার নাম হাসিনা। তাকে নিয়ে আমি পোস্টটা দিয়েছিলাম। সেটা আমি ওই পোস্টেই উল্লেখ করেছি। কিন্তু দেড় বছর আগের একটি পোস্ট নিয়ে হামজা রহমান অন্তর কেন এত বড় স্টেপ নিলেন সেটা বুঝতে পারছি না।‘

শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল রানা বলেন, অভিযুক্তদের বিচারের জন্য সাংগঠনিকভাবে প্রশাসনের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছি। পরবর্তীতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সঙ্গে পরামর্শ করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে বিকল্প সিন্ধান্ত নিবো।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ পেয়েছি। আমরা এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে প্রতিবেদন দেবো।

এর আগে শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনায় নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ৪১তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হামজা রহমান অন্তর আশুলিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আশুলিয়া থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মনিরুজ্জামান বলেন, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। এখনো মামলা হয়নি। তদন্ত চলছে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech