বাকৃবিতে চাকরির প্রলোভনে অর্থ আত্মসাৎ

  



পিএনএস ডেস্ক: বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) কর্মচারী পদে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে সুমাইয়া আক্তার সুমা (২৪) নামের এক নারীকে আটক করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মীরা।

এ ঘটনায় ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দীন হাওলাদার স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দীন হাওলাদার জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের পাশে তানভীর ইসলাম নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পরে সুমা। চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণার বিষয়টি অবগত হলে তাদের আটক করে নিরাপত্তা কর্মীরা।

তানভীর ইসলাম বাবুল, আনন্দ বণিক, হাসান মির্জা তানভীর, পূর্ণিমা, রিপা আক্তার এবং তানজিলা আক্তার নামের ছয় ব্যক্তিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পদে চাকরি দেয়ার নামে সর্বমোট এক লাখ ৪২ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছে আটককৃত সুমাইয়া।

নিয়োগে প্রতারণার বিষয়টি স্বীকার করে সুমাইয়া বলেন, বেগম রোকেয়া হলের কর্মচারী মো. হেলালের প্ররোচনায় কর্মচারী পদে চাকরি দেয়ার নামে ওই টাকা নেয়। এর মধ্যে হেলালকে এক লাখ টাকা এবং নন্দন নামের ব্যক্তিকে ৪২ হাজার টাকা দিয়েছি।

বেগম রোকেয়া হলের কর্মচারী মো. হেলাল বলেন, হলে কর্মচারীর কোনো চাকরি আছে কিনা জানতে কিছুদিন আগে সুমাইয়া আমার কাছে এসেছিল। কিন্তু নিয়োগের বিষয়ে তার সঙ্গে কোনো কথা হয়নি। চাকরি দেয়ার নামে আমি তার কাছে কোনো টাকা নেয়নি। আমাকে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ফাঁসানোর চেষ্টা চলছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. আজহারুল হক বলেন, প্রতারণাচক্রের সঙ্গে কর্মচারী হেলালের সম্পৃক্ততা আছে কিনা সেটি তদন্ত করা হবে। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পিএনএস/হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন