আপিল বোর্ডে নিষিদ্ধ তিন চলচ্চিত্র

  

পিএনএস ডেস্ক: প্রথা অনুযায়ী চলচ্চিত্রের নির্মাণ কাজ শেষে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির অনুমতির জন্য সেন্সর বোর্ডে প্রদর্শন করা হয়। সেন্সর বোর্ডের অনুমতি পেলেই সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দিতে পারে এর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান। ‘নামতা’, ‘প্রেমিক ছেলে’ এবং ‘মুখ ও মুখোশ, রূপ ও রূপক’ নামের তিনটি সিনেমা সেন্সর বোর্ডে জমা দেয়া হয়। সেন্সর বোর্ডে সিনেমাগুলো প্রদর্শিত হলে অসংগতির কারণে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে সেন্সর বোর্ড কর্তৃপক্ষ।

নিয়ম অনুযায়ী নিষিদ্ধ সিনেমাগুলো আপিল বোর্ডের মাধ্যমে পুনরায় প্রদর্শন করার সুযোগ থাকে। ‘নামতা’, ‘প্রেমিক ছেলে’ এবং ‘মুখ ও মুখোশ রূপ ও রূপক’ নামের তিনটি সিনেমা আপিল বোর্ডে জমা দেয়া হয়।

সেন্সর সূত্রে জানা যায়, আগামী ১৩ মার্চ এই তিনটি সিনেমা সাতসদস্য বিশিষ্ট আপিল বোর্ড দেখবেন। অসংগতির কারণে সেন্সর বোর্ড সিনেমা তিনটি নিষিদ্ধ করেন। এখন আপিল বোর্ড সিনেমা তিনটি দেখবেন। তাদের কাছে যদি মনে হয় কোনো অসংগতি নেই, প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার মতো তা হলেই সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র প্রদান করা হবে।

প্রেমিক ছেলে সিনেমার পরিচালক এজে রানা এ প্রসঙ্গে বলেন, প্রেমিক ছেলে সিনেমাটি আপিল বোর্ড দেখবেন। আমরা এখন আপিল বোর্ডের অনুমতির অপেক্ষায় আছি।

মুখ ও মুখোশ রূপ ও রূপক সিনেমাটি পরিচালক গোলাম মোস্তফা শিমুল জানান, এ সিনেমায় মানুষের সঙ্গে মানুষের সম্পর্কের টানাপোড়েনে কীভাবে মানুষের মুখোশ পাল্টে যায়, তা দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে। মুখ ও মুখোশ, রূপ ও রূপক-এর কাহিনী, চিত্রনাট্য, সংলাপ ও গীত রচনা করেছেন পরিচালক নিজেই।

মুখ ও মুখোশ, রূপ ও রূপক সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন কাজী রাজু, নাফিসা চৌধুরী নাফা, দীপান্বিতা মার্টিন, কামাল আহমেদ, খায়রুল আলম সবুজ, মঞ্জুরুল আলম পান্না প্রমুখ।

ঢাকা, সিলেট ও নোয়াখালীর বিভিন্ন স্থানে এর দৃশ্যধারণের কাজ হয়েছে। এতে দুটি গান রয়েছে। একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন সুবীর নন্দী ও ফাতেমা তুজ্ জোহরা।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech