৪০ বছর পর বাবড়ি চুল ফেলে দিলেন বাউল শিল্পী আলম

  

পিএনএস ডেস্ক : বাউল শিল্পী আলম দেওয়ান। রাষ্ট্রীয় খরচে হজ করতে বর্তমানে সৌদি আরবের মক্কায় অবস্থান করছেন। সারাজীবন গান-বাজনা করেছেন। ছোটবেলা থেকেই রেখেছেন লম্বা চুল। শেষ কবে চুল ছোট ছিল তাও এখন আর মনে করতে পারেন না। তবে পবিত্র হজ পালন করতে গিয়ে ইসলামি রীতিনীতি মেনে ওমরাহ শেষে সেলুনে গিয়ে মাথার চুল ফেলে ন্যাড়া হয়েছেন।

আলম দেওয়ান জানান, হজ পালন শেষে দেশে ফিরে আর লম্বা বাবড়ি চুলে হয়তো আর তাকে দেখা যাবে না। চালচলনে আনবেন পরিবর্তন।

রাষ্ট্রীয় খরচে পবিত্র হজ পালন করতে আসার প্রেক্ষাপট তুলে ধরে তিনি জানান, সরকারি মেহমান হিসেবে তালিকায় নাম আসার সপ্তাহখানেক আগে তিনি স্বপ্নে দেখেন তিনি হজ করতে সৌদি আরব যাচ্ছেন। সকালে ঘুম থেকে স্ত্রীকে স্বপ্নের কথা জানান। স্বপ্ন স্বপ্নই ভেবে দৈনন্দিন কাজ নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। সপ্তাহখানেক পর তিনি জানতে পারেন তিনি রাষ্ট্রীয় খরচে হজ করতে মনোনীত হয়েছেন।

বাউল শিল্পী আলম দেওয়ান বলেন, গানের শিল্পী হিসেবে তিনি একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে হজ পালনের সুযোগ পেয়েছেন। স্বপ্ন যে কখনও কখনও সত্যি হয় তিনিই তার বড় প্রমাণ।

তিনি বলেন, আল্লাহর হুকুম হলে সব অসম্ভবই সম্ভব। আলম দেওয়ান নিজে সারাজীবন গানবাজনা নিয়ে কাটালেও দুই ছেলেমেয়ের কাউকে এ লাইনে আনেননি। সন্তানদের ওপর নিজের ইচ্ছা অর্থাৎ গান গাইতে বাধ্য করেননি। ওদেরকে নিজের মতো চলার স্বাধীনতা দিয়েছেন।

মাথা ন্যাড়ার পর সবাই অন্য চেহারার হজ করতে গিয়ে হোটেলে পাশাপাশি কক্ষে অনেকেই থাকছেন। ওমরাহর শেষ পর্যায়ে মাথার চুল ফেলে ইহরাম ভাঙছেন। চুল ফেলার পর সবার চেহারারয় এক ধরনের পরিবর্তন আসছে। আর তাইতো চুল ফেলার পর পরিচিত ব্যক্তিটিকে অচেনা মনে হয়। ক্ষণিকের জন্য অনেকেই পরিচিতজনকে চিনতে না পেরে জিজ্ঞাসা করেন আপনি যেন কে?

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech