প্রিয়াঙ্কাকে নিয়ে আপত্তিকর নিবন্ধ, পরে প্রত্যাহার!

  

পিএনএস ডেস্ক : বলিউড তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া নিজের স্বার্থেই মার্কিন গায়ক নিক জোনাসকে বিয়ে করেছেন! তাঁদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হতে না হতেই এক নিবন্ধে এমন আপত্তিকর মন্তব্য প্রকাশ করেছিল নিউজিল্যান্ডের জনপ্রিয় ওয়েব ম্যাগাজিন ‘দ্য কাট’। এতে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা প্রিয়াঙ্কার ভক্তরা।

গত পয়লা ডিসেম্বর শেষ হয় প্রিয়াঙ্কা–নিকের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। ভারতীয় কনে আর মার্কিন বর হওয়ায় এ বিয়ে ছিল সারা পৃথিবীর কাছে আলোচিত। বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে সবার নজর ছিল এ বিয়ের দিকে। ভক্তরা ছাড়াও বিনোদন অঙ্গনের সবাই শুভেচ্ছা জানাচ্ছিলেন নবদম্পতিকে। এমনই সময়ে তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে নেতিবাচক এক নিবন্ধ প্রকাশ করে ভক্তদের তোপের মুখে পড়ে ‘দ্য কাট’।

মারিয়া স্মিথ নামের এক লেখকের ওই প্রবন্ধের শিরোনাম ছিল ‘প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও নিক জোনাসের প্রেম কি সত্য?’ ওয়েব সংস্করণে সেই নিবন্ধের নিচে পাঠকেরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। পরে নিবন্ধটি প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয় ‘দ্য কাট’ কর্তৃপক্ষ। শুধু তাই নয়, সম্পাদকের পক্ষ থেকে অবিবেচনাপ্রসূত নিবন্ধটি প্রকাশের জন্য দুঃখ প্রকাশ করা হয়। সেখানে বলা হয়, ‘পাঠকের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে অবিবেচনাপ্রসূত ওই নিবন্ধটি আমরা প্রত্যাহার করে নিচ্ছি।’

পাঠকেরা সেখানে লিখেছিলেন, ‘কারও সাফল্য ও মঙ্গল দেখতে ভালো লাগে না যাদের, তারাই এ ধরনের মন্তব্য করে। যে পত্রিকা নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে লেখা প্রকাশ করে, তারাই প্রিয়াঙ্কাকে নিয়ে এমন মন্তব্য প্রকাশ করতে পারে?

নিবন্ধটি প্রকাশের নিন্দা করেছেন অনেক তারকা। এমনকি প্রিয়াঙ্কার ভাশুরের বাগ্‌দত্তা অভিনেত্রী সোফি টার্নার টুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তিনি টুইট করার ঘণ্টাখানেকের মধ্যে লেখাটি মুছে ফেলে পত্রিকা কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে বলিউড তারকা সোনম কাপুর, সোনা মহাপাত্ররাও ওই প্রকাশনার সম্পাদককে ট্যাগ করে টুইটারে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন

আপত্তিকর ওই নিবন্ধ প্রত্যাহার করা ছাড়া নিজেদের ভুল স্বীকার করে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও নিক জোনাসের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন সম্পাদক। তবে ওই নিবন্ধ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি প্রিয়াঙ্কা বা নিক। দ্য ইনসাইডার।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech