কলেরার জীবাণু শনাক্ত হবে ১৫ মিনিটে

  

পিএনএস ডেস্ক: ঘরে বসে নির্দেশনা অনুযায়ী নিজেই একটি কিট দিয়ে ১৫ মিনিটের মধ্যে কলেরার জীবাণু শনাক্ত করা যাবে।

বাংলাদেশের কলেরা গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইসিডিডিআরবি’র বিজ্ঞানীরা এই কিটটি আবিস্কার করেছেন। স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত কলকিট নামে একটি ডিপস্টিক ভিব্রিও কলেরি নামক কলেরার জীবাণু চিহ্নিত করতে পারবে।

আইসিডিডিআরবি স্থানীয় ওষুধ কোম্পানি ইনসেপ্টার সাথে মিলে এই কলকিটটি উৎপাদন করবে।

বাংলাদেশ এবং বহির্বিশ্বে এই কিট কলেরা রোগ সংক্রমণের কাজে ব্যবহার করা হবে।

গত তিন বছরে কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রিত গবেষণা ও উন্নয়ন প্রক্রিয়ার শেষে সাশ্রয়ী মূল্যের এই কিটের মাধ্যমে দ্রুত (আরডিটি) রোগনির্ণয় করা যাবে।

এটি এমন একটি ইমিউনোক্রোমাটোগ্রাফিক ডিপস্টিক পরীক্ষা পদ্ধতি যা মলের নমুনাযুক্ত টিউবের মধ্যে ডুবালে সর্বোচ্চ ১৫ মিনিটের মধ্যে যথাযথ ফলাফল (খালি চোখে দৃশ্যমান রঙ্গীন ব্যান্ড) প্রদর্শন করে।

কলকিটের গবেষণাগার ও মাঠ পর্যায়ের পরীক্ষা-সংক্রান্ত একটি নিবন্ধ সম্প্রতি ‘প্লস নেগলেক্টেড ট্রপিক্যাল ডিজিজে’ নামক বিজ্ঞানভিত্তিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

নিবন্ধে বলা হয়, মাঠ পর্যায়ে ভিব্রিও কলেরি নির্ণয়ের ক্ষেত্রে কলকিটের সংবেদনশীলতা ও নির্দিষ্টতা বিদেশি আরডিটি’র অনুরূপ। এই মূল্যায়ন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে মোট সাত হাজার ৭২ রোগীর মলের নমুনা পরীক্ষা করা হয় যেখানে দেখা গেছে, কলকিটের সংবেদনশীলতা ৭৬ শতাংশ ও নির্দিষ্ট ফল পাওয়া যাবে ৯০ শতাংশ।

অপরদিকে অন্যান্য প্রচলিত আরডিটির ক্ষেত্রে পরীক্ষার ফল যথাক্রমে শতকরা ৭২ ও ৮৬.৮ শতাংশ।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech