মাদক ব্যবসা : ‘বাঁচতে চাইলে কারাগারেই থাকুন’

  

পিএনএস ডেস্ক : দেশের অবৈধ মাদক-বাণিজ্য ও গ্যাংভিত্তিক অপরাধ নির্মূলের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় আসা ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তের নানা কর্মকাণ্ড ও মন্তব্য নিয়ে সমালোচনা ব্যাপক।

তবে তিনি এসব তোয়াক্কা করেন না। এবার তিনি কারাবন্দী সন্দেহভাজন মাদক ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বললেন, যদি বেঁচে থাকতে চান, তাহলে কারাগারে থাকাটাই ভালো হবে।

দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট ও এবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকাল মঙ্গলবার ম্যানিলায় এক বক্তব্যে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তের সেবু প্রদেশে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে যারা সম্পদ গড়েছে, তাদের বিরুদ্ধে তীব্র ভাষায় সমালোচনা করেন।

এ সময় হুমকির সুরে তিনি বলেন, ‘আমি যদি আপনাদের মতো কেউ হতাম, আমি কারাগারেই থাকতাম। বেশি দিন বাঁচতে চান? কারাগারেই থাকুন।’ তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ‘প্রয়োজনে কারাগারে বেশি দিন কীভাবে থাকা যায়, সেই উপায় খুঁজুন, কিন্তু কোনোভাবেই ওই স্থান থেকে বের হবেন না। এটাই আপনার জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে।’

রদ্রিগো দুতার্তের নির্দিষ্ট করে কারও কথা উল্লেখ করতে ব্যর্থ হলেও যারা মাদক ব্যবসা করে ধনী হয়েছে, তাদের ইঙ্গিত করে বলেছেন। তিনি বলেন, ‘আপনার জানেন, আমি যদি আপনাদের দলের লোক হতাম, তবে কারাগারেই থাকতাম।

আপনারাও যদি বেঁচে থাকতে চান, তবে কারাগারেই থাকুন।’ তিনি আরও বলেন, কারাগার থেকে বের হবেন না। এটা আপনাদের জন্য ভালো হবে না।

এর আগে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে মাদক ব্যবসায়ীদের বাড়িতে বোমা ছুড়ে মারার হুমকি দিয়েছিলেন। এ-ও বলেছেন যে তার নিজের ছেলের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগ যদি সত্য হয়, তবে তিনি নিজেই তাকে খুন করতে দ্বিধা করবেন না।

প্রায় দুই বছর আগে ফিলিপাইনের ক্ষমতা গ্রহণের পর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে। তাঁর এই যুদ্ধ ছিল অবৈধ মাদকের বিরুদ্ধে। এই যুদ্ধের নিহত মানুষের সঠিক সংখ্যা পুলিশ জানে না।

সন্দেহভাজন মাদকসেবী ও বিক্রেতার লাশ অন্ধকারে, ব্রিজের নিচে ও ময়লার স্তূপে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। অনেক সময় নিহত ব্যক্তির গলায় কার্ডবোর্ডে লেখা থাকে, ‘আমি একজন মাতাল। আমাকে পছন্দ করবেন না।’

ধারণা করা হয়, মাদকের বিরুদ্ধে এই যুদ্ধে নিহত মানুষের সংখ্যা চার হাজারের বেশি। পুলিশের হেফাজতেও গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারাতে হয়েছে কুখ্যাত এ মাদক ব্যবসায়ীদের। এক মেয়র রোল্যান্ডো এসপিনোসাকে পুলিশ হেফাজতে গুলি করে হত্যা করা হয়।

ফিলিপাইনের মাদকযুদ্ধে নিহত মানুষের সংখ্যা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। মানবাধিকারগোষ্ঠী, সংবাদমাধ্যম ও পুলিশের নিহত মানুষের সংখ্যা নিয়ে পৃথক পরিসংখ্যান রয়েছে।

সরকার নিজেই জানিয়েছে, ২০১৬ সালের জুলাই থেকে মাদক-সংশ্লিষ্ট হত্যাকাণ্ডের সংখ্যা ছিল ২০ হাজারের বেশি। এর মধ্যে ১৬ হাজার ৩৫৫টি হত্যাকাণ্ডের তদন্ত চলছে এবং ৩ হাজার ৯৬৭টি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে পুলিশি অভিযানে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech