‘কাশ্মীর তো বটেই, গিলগিট-বালতিস্তানও ভারতের অংশ’

  


পিএনএস ডেস্ক: কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রসঙ্গ নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে সরব পাকিস্তান। এরই মধ্যে এই ইস্যুতে পাকিস্তানের অবস্থানের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে চীন ও তুরস্কসহ অর্ধশতাধিক রাষ্ট্র। অন্যদিকে আগামীকাল ১৩ সেপ্টেম্বর কাশ্মীর নিয়ে বিশ্বকে বার্তা দিতে মহাসমাবেশের ডেকেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তারপরও জাতিসংঘ দ্বিপাক্ষিক এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না বলে ফের স্পষ্টভাবে নিজেদের অবস্থান জানিয়েছে।

বুধবার জাতিসংঘের এমন বক্তব্যের পর পাকিস্তান এমনিতেই অস্বস্তিতে। এরমধ্যে ইউরোপীয় কমিশনের প্রাক্তন এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ব্রায়ান টোলের এক বিতর্কিত মন্তব্যে সে অস্বস্তি আরও বেগতিক আকবার ধারণ করেছে। তার কথায়, 'গিলগিট-বালতিস্তানও নাকি ভারতের অংশ।'

কাশ্মীর ও ভারত-পাকিস্তান সম্পর্ক নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে টোল বলেন, 'সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনার সময় ও গিলগিট-বালতিস্তান এর অবস্থানও আলোচনায় উঠে আসবে। ধীরে ধীরে এই ইস্যুও বিশ্ব-পর্যায়ে আলোচিত হবে, যা পাকিস্তানের ইসলামাবাদ নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে না।' এরপরই তার মন্তব্য, 'গিলগিট-বালতিস্তান যে ভারতেরই অংশ, তা বলাই যায়।' এমনকি জম্মু-কাশ্মীরের উত্তর-পশ্চিমাংশে অবস্থিত, পাকিস্তান অধিকৃত গিলগিট-বালতিস্তানে যে মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে, সে বিষয়ে 'ইসলামাবাদ চুপ' বলেও জানান তিনি।

ভারতীয় গণমাধ্যমের দাবি, ২০১৭ সালে গিলগিট-বালতিস্তান অঞ্চলকে দেশের পঞ্চম প্রদেশ হিসেবে ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ইসলামাবাদ। সেই প্রস্তাবের নিন্দা করে ব্রিটেনের পার্লামেন্টে প্রস্তাবও পাশ করা হয়েছিল। যাতে বিতর্কিত ওই অঞ্চলকেও ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল। এমনকি, গিলগিট-বালতিস্তান হয়ে যে অর্থনৈতিক করিডর চীন-পাকিস্তান তৈরি করছে, তাকেও অবৈধ আখ্যা দিয়েছিল ব্রিটেন। দীর্ঘ সময় পর্যন্ত জম্মু-কাশ্মীরের উত্তর-পশ্চিম অংশ গিলগিট-বালতিস্তান ভারতের অংশ ছিল। সূত্র : এই সময়।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech