দিল্লিতে ফের বায়ু দূষণ

  



পিএনএস ডেস্ক: দিল্লিতে বায়ু দূষণ অতি মাত্রায় দেখা দিয়েছে। স্থবির হয়ে পড়েছে গোটা দিল্লি। পরিবেশ দূষণ নিয়ে সরকারকে আগামী ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট। এ বিষয়ে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে আগামী ৩ ডিসেম্বরের মধ্যে তার প্রতিবেদন দিতে কেন্দ্রকে নির্দেশ দিয়েছেন এ সর্বোচ্চ আদালত।

এমন দূষণের কবলে পড়ে আগামী ১৫ নভেম্বর (শুক্রবার) পর্যন্ত দিল্লি ও তার আশপাশের জেলার সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

একইসঙ্গে পরিশোধিত জ্বালানি ব্যবহার হয় না এমন সব শিল্প কারখানাকে একই সময় পর্যন্ত কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে পরিবেশ দূষণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (ইপিসিএ)।

গরম পদার্থ মিশ্রণ প্লান্ট, পাথর ভাঙার মেশিনগুলো আগামী ১৫ নভেম্বর সকাল পর্যন্ত বন্ধ রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে, যা রাজধানীর আঞ্চলিক এলাকার জন্যও প্রযোজ্য হবে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে দূষণ-প্রতিরোধী সংস্থা।

এছাড়া কয়লা এবং জ্বালানি নির্ভর অন্যান্য শিল্প কারখানা, যারা এখনও প্রাকৃতিক গ্যাস ব্যবহার করছে না; ফরিদাবাদ, গুরুগ্রাম, নয়দা, গ্রেটার নয়দা, সোনিপাত, পানিপাত, বাহাদুরঘর, বাইদি এলাকার জন্যও এ নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোতে এ সংক্রান্ত সংবাদে বিবৃতির বিষয়ে উল্লেখ করা হয়, বায়ু দূষণের এমন অবস্থায় শিশুদের শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত স্কুলগুলো বন্ধ রাখার পরামর্শ দেওয়া হল। নয়দা, গুরগ্রাম এবং গাজিয়াবাদও এ পরামর্শ মেনে চলবে।

গত মাসে দিওয়ালি উৎসবের পরপরই ভারতের রাজধানী দিল্লির বায়ু দূষণ চরম পর্যায়ে পৌঁছে। এ অবস্থায় দূষণ কমাতে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়। সে সময়ও সাময়িক বন্ধ করে দেওয়া হয় স্কুল-কলেজ। এক পর্যায়ে দূষণ কিছুটা কমে দিল্লির বাতাসের উন্নতি হলে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে এরইমধ্যে আবার আগের সিদ্ধান্তে ফিরে যেতে হলো কর্তৃপক্ষকে।

পিএনএস/ হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech