ট্রাম্পের বিরুদ্ধে কথা উঠার পর চুপ ট্রুডো

  


পিএনএস ডেস্ক: কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডকে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্তৃক হত্যার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে এখনো বিক্ষোভ চলছে। গত ২৫ মে গ্রেফতারের পর পুলিশী হেফাজতে হত্যা করা হয় ফ্লয়েডকে। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা ও ঐক্যের ডাক না দিয়ে স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় ডোনাল্ড ট্রাম্প বিক্ষোভ দমাতে সামরিক বাহিনী নামানোর ঘোষণা দিয়েছেন। এরপর হোয়াইট হাউজের নিকটস্থ চার্চে বাইবেল হাতে ট্রাম্পের ফটোসেশনের জন্য সেখানে আগে থেকে অবস্থান নেওয়া শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের ওপর কাঁদুনে গ্যাস ছোড়া হয়, রাবার বুলেট নিক্ষেপ করা হয়। রীতিমতো বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলে পড়ে নিরাপত্তা বাহিনী।

ট্রাম্পের এ আচরণের বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়েছে কানাডিয়ান প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোকে। প্রশ্ন শুনে ২০ সেকেন্ড চুপ করে ছিলেন ট্রুডো। এসময় তার চোখ-মুখ জুড়ে ছিল অস্বস্তির চাপ। দীর্ঘ সময় চুপ থাকার পর ট্রুডো বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যা চলছে আমরা সবাই তার ত্রাস ও ভয়াবহতা দেখেছি। এখনই সময়, সবাইকে ডেকে তাদের কথা শোনার, কোথায় অবিচার হয়েছে তা জানার। দশকের পর দশকের উন্নতির ধারায় এগিয়ে চললেও এসব অবিচার অব্যাহত রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের ঢেউ লেগেছে কানাডাতেও। সেখানেও বিক্ষোভকারীরা কানাডার নেতৃত্বকে বিদ্যমান বর্ণবৈষম্যের বিষয়টি স্বীকার করতে আহ্বান জানিয়েছেন। ট্রুডোও এ বিষয়ে কথা বলেছেন। তিনি বলেন, কৃষ্ণাঙ্গ কানাডিয়ানরাও প্রতিনিয়ত বর্ণবৈষম্যের শিকার হচ্ছেন। পদ্ধতিগতকারণে নানাভাবে তারা এ বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন। এ বিষয়ে আমাদের সবাইকে পদক্ষেপ নিতে হবে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন