ভারতে মাস্ক না পরায় পুলিশের হাতে 'ছাগল' গ্রেফতার!

  

পিএনএস ডেস্ক: করোনা মহামারিতে গোটা দুনিয়ায় যতোটা আতঙ্ক ছড়িয়েছে। তারচেয়ে বেশি হাস্যরস ছড়িয়েছে আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারত। মহামারি করোনা নিয়ে তাদের যেন ‘অবাক কাণ্ডের’ শেষ নেই। কখনো তারা লকডাউন ভেঙে ভিড় জমাচ্ছে মদের দোকানে। আবার কখনো করোনা রোধে জোড় দিচ্ছে গোমূত্র পানে। কয়েক হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসতেও পিছুপা হয়নি। মাস্ক হিসেবে স্বর্ণের ব্যবহারেও তারাই এগিয়ে। সবকিছুকে ছাপিয়ে গেছে মহামারি করোনার আঘাত। ক্ষণে ক্ষণে দীর্ঘ হচ্ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর তালিকা। করোনা মোকাবিলায় রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার টালমাটাল হয়ে পড়ছে।

এমন মুহূর্তে দেশটির পুলিশের কাণ্ডে অবাক হয়েছে গোটা নেট দুনিয়া। করোনার মধ্যে মাস্ক না পরায় দুটি ছাগলকে গ্রেফতার করেছে তারা। এ ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক আলোচনা চলছে।

চোখ ছানাবড়া এ বিচিত্র ঘটনা ঘটেছে কানপুরের বেকনগঞ্জ এলাকায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া খবর অনুযায়ী, মাস্ক না পরে বাইরে ঘোরাঘুরি করার অপরাধে একটি ছাগলকে নাকি ‘গ্রেফতার’ করেছে পুলিশ।

পরে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, একটি ছেলেকে মাস্ক না পরে ওই ছাগলটি নিয়ে রাস্তায় ঘুরতে তারা দেখেছিলেন। পুলিশ দেখেই ছাগলটিকে ফেলে ওই ছেলেটি পালয়ে যায়। আর সে কারণেই তারা ওই ছাগলটি নিয়ে থানাতে আসেন।

জি নিউজ জানিয়েছে, গ্রেফতার করে ওই ছাগলটিকে পুলিশ জিপে করে থানায় নিয়ে গিয়েছিল। খবর পেয়ে ছাগলটির মালিক থানায় গিয়ে অনুরোধ করে ছাগলটি ছাড়িয়ে আনেন। আর ছাগল যাতে বাইরে না ঘুরে বেড়ায় তা নিয়ে ওই ছাগলের মালিককে সতর্ক করেছে পুলিশ।

ঘটনার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই দ্রুত ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকেই বিষয়টির তীব্র সমালোচনা করেন।

তবে যে পুলিশ কর্মকর্তা ছাগলটিকে থানায় নিয়ে আসেন, তিনি স্বীকার করেছেন ছাগলটি মাস্ক না পরায় লকডাউন আইন লঙ্ঘন করা হয়েছে। তিনি প্রশ্ন করেন এই পরিস্থিতিতে অনেক মানুষ নিজেদের বাড়ির পোষা কুকুরকে পর্যন্ত মাস্ক পরিয়ে রাখছেন তাহলে কেন ছাগলটিকে মাস্ক পরান হবে না।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন