রাজিবের দুই ভাইকে এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

  

পিএনএস ডেস্ক: রাজধানীতে দুই বাসের চাপায় হাত হারানো ও পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রাণ হারানো তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী রাজিব হাসানের দুই ভাইকে এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (৮ মে) বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই রায় দেন। আদালত এই রায়ের পরবর্তী শুনানির তারিখ ২৫ জুন নির্ধারণ করেন। আদালতের আদেশ অনুসারে এসময় উপস্থিত ছিলেন রাজিবের খালা জাহানারা পরভীন। সঙ্গে মামা ও দুইভাই।

আদালতে রাজিবের পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, বিআরটিসি ও স্বজন পরিবহনকে এক মাসের মধ্যে ক্ষতিপূরণের অর্ধেক টাকা রাজিবের দুই ভাইকে পরিশোধ করে আদালতকে জানাতে হবে। বাকি ৫০ লাখ টাকা দিতে ২৫ জুন পরবর্তী আদেশ আসতে পারে।

তিনি আরও জানান, এই এক কোটি টাকা রাখার জন্য যৌথ অ্যাকাউন্ট খোলা হবে মতিঝিলের সোনালী ব্যাংকের প্রধান শাখায়। যাদের অ্যাকাউন্টে এই ক্ষতিপূরণের টাকা রাখা হবে তারা হলেন, রাজিবের খালা জাহানারা বেগম ও রাজিবের গ্রামের বাড়ি দাসপাড়া এলাকার সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের ছেলে কাস্টমস কর্মকর্তা ওমর ফারুক।

রুহুল কুদ্দুস জানান, চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করার কথা থাকলেও দুই পরিবহন কর্তৃপক্ষের কেউ রাজিবের পাশে দাঁড়ায়নি। রাজিবের ঠিকমতো ট্রিটিমেন্টও হয়নি।

শুনানির সময় বিআরটিসির পক্ষে আইনজীবী ব্যারিস্টার মুনিরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আদেশের বিষয়ে আপত্তি রয়েছে। ঘটনার সময় বিআরটিসি বাস নিরাপদে দাঁড়িয়েছিল। অন্য একটি বাস এসে বিআরটিসিকে ধাক্কা দেয়। বিআরটিসির অবহেলা ছিল না তার দায় নির্ধারণ না করে আদেশ দেওয়া হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, গত ৩ এপ্রিল দুই বাসচালকের বেপরোয়া গাড়ি চালানোর শিকার হন তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী রাজিব হাসান। ওই ঘটনায় দুই বাসের চাপে হাত কাটা পড়ে তার। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনা নিয়ে সংবাদ প্রকাশের পর গত ৪ এপ্রিল রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech