আসিফের রিমান্ড চায় পুলিশ - আইন-আদালত - Premier News Syndicate Limited (PNS)

আসিফের রিমান্ড চায় পুলিশ

  

পিএনএস ডেস্ক : বাংলাদেশের একসময়ের তুমুল জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরকে গ্রেফতারের পর রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করা হয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় এফডিসির পার্শ্ববর্তী একটি এলাকা থেকে মঙ্গলবার (৫ জুন) মধ্যরাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সঙ্গীতশিল্পী শফিক তুহিনের করা মামলায় গ্রেফতার হন আসিফ। তার বিরুদ্ধে প্রতারণা ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

বুধবার (৬ জন) সকাল ১১টা ২৫ মিনিটে আসিফ আকবরকে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের হাজতখানায় আনা হয়। দুপুর দেড়টা নাগাদ এই রিমান্ড আবেদনের শুনানি হবে বলে জানা গেছে।

তেজগাঁও থানায় সুরকার ও কণ্ঠশিল্পী শফিক তুহিনের দায়ের করা একটি মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোল্যা নজরুল ইসলাম। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মামলার নম্বর ১৪ এবং এই মামলায় আসিফ ছাড়াও আরো ৪/৫ জন অজ্ঞাত আসামি রয়েছে।

মামলার এজাহারে শফিক তুহিন অভিযোগ করেছেন, গত ১ জুন আনুমানিক রাত ৯টার দিকে চ্যানেল ২৪-এর সার্চ লাইট নামের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন, আসিফ আকবর তার অনুমতি ছাড়াই তার সংগীতকর্মসহ অন্যান্য গীতিকার, সুরকার ও শিল্পীদের ৬১৭টি গান সবার অজান্তে বিক্রি করেন।

বিভিন্ন মাধ্যমে যোগাযোগ করে তিনি জানতে পারেন, আসিফ আকবর আর্ম এন্টারটেইনমেন্টের চেয়ারম্যান হিসেবে বিভিন্ন মাধ্যমে গানগুলো ডিজিটালে রূপান্তর করে ট্রু-টিউন, ওয়াপ-২, রিংটোন, পিআরবিটি, ফুলট্রেক, ওয়াল পেপার, অ্যানিমেশন, থ্রি-জি কন্টেন্ট ইত্যাদি হিসেবে বাণিজ্যিক ব্যবহার করে অসাধুভাবে ও প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল অর্থ উপার্জন করেছেন।

পরে ওই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি গত ২ জুন রাত ২টায় তার ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে 'অনুমোদন ছাড়া গান বিক্রির এই ঘটনা' উল্লেখ করে একটি পোস্ট দেন। তার ওই পোস্টের নিচে আসিফ আকবর নিজের একটি অ্যাকাউন্ট থেকে অশালীন মন্তব্য ও হুমকি দেন।

তিনি আরও উল্লেখ করেছেন যে, পরদিন রাত ৯টা ৫৯ মিনিটে আসিফ আকবর ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে লাইভে আসেন। এ পেজ অনুসরণ করেন ৩১ লাখেরও বেশি মানুষ। ৫৪ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড লাইভ ভিডিওর ২২ মিনিট থেকে তার বিরুদ্ধে অবমাননাকর, অশালীন ও মিথ্যা-বানোয়াট বক্তব্য দেন।

ভিডিওতে আসিফ আকবর তাকে (শফিক তুহিন) শায়েস্তা করবেন এ কথা বলার পাশাপাশি ভক্তদের উদ্দেশে বলেন, তাকে যেখানেই পাবেন সেখানেই প্রতিহত করবেন।

এই নির্দেশনা পেয়ে আসিফ আকবরের ভক্তরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে হত্যার হুমকি দেয়। আসিফ আকবরের এই বক্তব্য লাখ লাখ মানুষ দেখেছে।

তিনি উসকানি দিয়েছেন। এতে তার (শফিক তুহিন) মানহানি হয়েছে। বিষয়টি সংগীতাঙ্গনের সুপরিচিত শিল্পী, সুরকার ও গীতিকার প্রীতম আহমেদসহ অনেকেই জানেন বলেও উল্লেখ করেছেন শফিক তুহিন।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech