গ্রেনেড হামলার রায়: আদালতের কার্যক্রম শুরু

  


পিএনএস ডেস্ক: ১৪ বছর আগে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে চালানো গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ বুধবার ঘোষণা করতে যাচ্ছেন আদালত। এ লক্ষ্যে সকালে ১১টায় আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

বহুল আলোচিত এই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘিরে সারা দেশে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে রায়ের আগে ও পরে সারা দেশের সড়কপথ, রেলপথ, নৌপথে নেওয়া হয়েছে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

এর আগে বুধবার সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে আসামিদের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আনা হয়। তাদের নাজিমউদ্দিন রোডের অস্থায়ী আদালতের নিকটবর্তী পুরান ঢাকার আলিয়া মাদরাসা মাঠে বিডিআর বিচারের জন্য তৈরি করা আদালতে রাখা হয়েছে।

২১ আগস্টের ওই হামলায় ভাগ্যক্রমে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে গেলেও তার দলের ২৪ জন নেতা-কর্মীর প্রাণ যায়। ওই হামলায় দলীয় কর্মী, সাংবাদিক, পুলিশসহ আরও কয়েক শতাধিক মানুষ আহত হন। ভয়াবহ এ হামলার ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে করা দুটি মামলার বিচারকাজ শেষে আজ রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য হয়। রায় নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা চলছে সব মহলে। রায় কী হবে, এটাই জানতে চায় সবাই।

বলা চলে আজ দেশের ১৬ কোটি মানুষেরই দৃষ্টি থাকবে নাজিমউদ্দিন রোডে পুরাতন কারাগারের পাশে স্থাপিত বিশেষ আদালতের দিকে।

হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দায়ের করা দুই মামলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার আমলের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুত্ফুজ্জামান বাবরসহ আসামি ৪৯ জন। এর মধ্যে তারেক রহমান, হারিস চৌধুরীসহ পলাতক ১৮ জন।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech