নাইজেরিয়াই ছাগল ধর্ষণ, অত:পর...

  

পিএনএস ডেস্ক:গর্ভবতী (গাভীন) ছাগলকে ধর্ষণ করার অভিযোগে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে এক তরুণকে। ওই তরুণকে তার নিজ ঘর থেকে হাতে ধরে ফেলে এলাকাবাসী। এরপর ছাগলের দড়ি দিয়ে গলা বেঁধে রাখা হয়। সবার সামনেই নগ্ন করা হয় ওই তরুণকে। সেই সঙ্গে তাঁর মা-বাবাকেও গ্রাম ছাড়া করেছে এলাকাবাসী।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক পত্রিকা দ্য সান এই খবর প্রকাশ করেছে। নাইজেরিয়ার উগো নামক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ২০ বছর বয়সী শিনা র‍্যাম্বো নামের তরুণের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করা হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, ওই তরুণের ঘর থেকে ছাগলের ডাক শোনা যাচ্ছিল। এরপর জোর করে দরজা খোলা হয়। একটি গর্ভবতী ছাগলের সঙ্গে আপত্তিকর কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় তাঁকে ধরা হয়। এরপর তাঁকে এলাকার কর্তা ব্যক্তিদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

স্থানীয় একটি গণমাধ্যম জানিয়েছে, ওই গ্রামের এক নেতা জানান, র‍্যাম্বো প্রায়ই বিকৃত কাজে লিপ্ত থাকে। আজই প্রথম সে এমন কাজ করেনি। এসব কাজ করার জন্য এর আগেও দুটি গ্রাম থেকে তাকে বের করে দেওয়া হয়। চুরিও করত সে। তার মা-বাবাকেও গ্রাম ছাড়তে বলা হয়েছে। ওই তরুণের বাবা খুব ভালো মানুষ বলেই, র‍্যাম্বোকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া তাকে কিছু জরিমানাও করা হবে বলে জানান ওই নেতা।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech