জেলে মহিলার সঙ্গে ভয়ঙ্কর সহবাস পুলিশের!

  

পিএনএস ডেস্ক : জেলে বন্দি মহিলা কয়েদীদের সঙ্গে জোর করে শারীরিক সম্পর্র স্থাপণের অপরাধে এক পুলিশ কর্মীকে তার পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে৷ ৪৬ বছয় বয়সি পুলিশ অফিসার রিচার্ড ইভানকে সাউথ ওয়েলস পুলিশ সাসপেণ্ড করেছে৷

অভিযোগ, ইভান কেবল মহিলা বন্দিদেরই নয় তার সঙ্গে কর্মরত মহিলা পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গেও অভব্য আচরণ করেন৷ বিগত ২৫ বছর ধরে পুলিশ বিভাগে কর্মরত রিচার্ড মহিলার সঙ্গে জোর করে সহবাস করনে ও তাদের যৌনাঙ্গে আঘাত করেন বলে অভিযোগ৷ যদিও রিচার্ড সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে৷

এই মামলার শুনানি চলছে আদালতে৷ যদিও অভিযুক্তকে রেহাই দেওয়া হয়েছে কিন্তু পুলিশের তরফ থেকে বিভাগীয় তদন্ত করে তাকে তার পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে৷ রিচার্ডের বিরুদ্ধে মোট ৪১টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে, যার মধ্যে ৩২টি অভিযোগ যৌন উৎপীড়নের৷

সংবাদ সংস্থা ডেলি মেলের খবর অনুযায়ী, রিচার্ডের বিরুদ্ধে অভিযোগ, একটি মামলায় সে এক মহিলাকে গ্রেফতার করে ও তাকে পুলিশ ভ্যানের ভিতরেই চুম্বনের চেষ্টা করে৷ এরপর থানার একটি ঘরে সে তাকে ধর্ষণ করে৷ অন্য এক মহিলা অভিযোগ জানিয়েছেন, রিচার্ড তাকে ছেড়ে দিলেও তার মেয়ের সঙ্গে অশ্লীল ব্যবহার করে৷ তৃতীয় মহিলা তার বয়ানে জানিয়েছেন, অভিযুক্ত রিচার্ড তাকে গ্রেফতার করার পর তাকে জোর করে চুম্বন দেয় ও তার গোপণ অঙ্গে আঘাত করে৷ অভিযোগকারিনী মহিলা জানিয়েছেন, তিনি যখন জেলের ভিতর পোশাক বদল করছিলেন সেসময় রিচার্ড সেখানে লাগান পর্দা সড়িয়ে ফিরতে আসে তার সঙ্গে অসভ্যতা করে৷

যদিও এই সমস্ত ঘটনার কোনও প্রমাণ না থাকায় আদালত রিচার্ডকে ছেড়ে দিয়েছে৷
সাউথ ওয়েলসের পন্টিপুলের বাসিন্দা ইভানের বিরুদ্ধে ইন্টারনেটের মাধ্যমে দুর্ব্যবহার করার অভিযোগ করা হয়৷ তার সিনিয়র অফিসাররাও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে৷ এর মধ্যে হেফাজতে থাকা বন্দি ও মহিলা সহকর্মীদেরও অভিযোগ সামিল ছিল৷

ডেপুটি চিফ কনস্টেবল ক্রেগ গিল্ডফোর্ড জানিয়েছেন, রিচার্ডের ব্যবহার লজ্জাজনক ছিল৷ মহিলাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করার সময় সে উচ্চ পদস্থ আধিকারিকদেরও গালিগালাজ করতেন৷ এছাড়াও রিচার্ড নিজের কর্তব্যে গাফিলতি করেছে ও মহিলার সম্মান নিয়ে খেলা করেছে৷ এই ঘটনায় বিভাগীয় তদন্ত হওয়ার পর তার বিরুদ্ধে প্রমাণ পেশ করা হলে তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়৷

পিএনএস/জে এ মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech