‘খুলনা ও গাজীপুর নির্বাচনে সেনা মোতায়েন হবে না’

  

পিএনএস ডেস্ক : খুলনা ও গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করা হবে না। আজ বৃহস্পতিবার নির্বাচন ভবনে এ দুটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে আইনশৃঙ্খলা নিয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

হেলালুদ্দিন আহমদ বলেন, সাধারণত স্থানীয় সরকার নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করা হয় না। এবারও হবে না। তবে পর্যাপ্তসংখ্যক নিয়মিত বাহিনীর (পুলিশ, র‍্যাব, বিজিবি, আনসার) সদস্য থাকবেন। তিনি জানান, আগামী ১৫ মে নির্বাচনের দিন গাজীপুরে গার্মেন্টস কারখানাগুলো বন্ধ রাখা হবে। এটা নিয়ে বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএমইএ) ও পোশাকশিল্প প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সঙ্গে মতবিনিময় করবেন।

এ সময় সচিব বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যে বিভিন্ন ধরনের অপপ্রচার হয়—সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনার উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, এটা কীভাবে ঠেকানো যায়, তা নিয়ে কিছু প্রস্তাব এসেছে। ইসি বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সঙ্গে এ বিষয়ে মতবিনিময় বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেবে। ভোটকেন্দ্রে সংবাদ সংগ্রহ করার বিষয়ে সংবাদকর্মীরা কীভাবে কাজ করবেন, এ নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে ইসি একটি মতবিনিময় সভা করবে। তবে এ বিষয়ে এখনো তারিখ চূড়ান্ত হয়নি।

এক প্রশ্নের জবাবে হেলালুদ্দিন আহমদ বলেন, নির্বাচন-সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে একটি পারস্পরিক বোঝাপড়া তৈরির জন্য সব ধরনের মতবিনিময় বৈঠকের বিষয়ে তাঁরা চিন্তা করছেন। তিনি জানান, খুলনা ও গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সুষ্ঠু নির্বাচনের বিষয়ে সবাই আশাবাদী। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলো করছে না।

বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদাসহ সব নির্বাচন কমিশনার উপস্থিত ছিলেন। পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারী বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া র‍্যাব, বিজিবি, আনসারসহ বিভিন্ন বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সম্প্রতি সিইসির সঙ্গে দেখা করে দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি জানায় বিএনপি।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech