ঘূর্ণিঝড় তিতলির প্রভাবে ঢাকাসহ সারাদেশে বৃষ্টি

  

পিএনএস ডেস্ক : বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য অন্ধ্র প্রদেশ ও উড়িষ্যা উপকূলে আঘাতের পর বাংলাদেশেও কিছু আঘাত হেনেছে। তিতলির আঘাতে টেকনাফে বেশকিছু ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। ভারি বর্ষণ ও প্রবল ঢেউয়ের তোড়ে বিধ্বংস হয় কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার শাহপরীর দ্বীপের বসতিগুলোতে।

শুক্রবার (১২ অক্টোবর) ঘুর্ণিঝড়টি দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হওয়ায় বাংলাদেশের কোথাও কোথাও ভারী ও মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হচ্ছে। সবচেয়ে বিশে বৃষ্টিপাত হচ্ছে চট্টগ্রামে। পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিস শুক্রবার সকাল ৯টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় ৪৫ দশমিক ২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, আজ সারা দিনই এমন বৃষ্টি হতে পারে। তবে দক্ষিণাঞ্চলে অতিভারী বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে। ভারতের উড়িষ্যা ও সংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় তিতলি সামান্য উত্তর-পূর্ব দিকে এগিয়ে দুর্বল হয়ে পড়েছে। ঝড়টি এখন একই এলাকায় নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech