মিরপুরে ব্যাপক উচ্ছেদ অভিযান

  

পিএনএস ডেস্ক : অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে ব্যাপক অভিযান চালিয়েছে ঢাকা সিটি করপোরেশন উত্তরের (ডিএনসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ফুটপাতসহ সিটি করপোরেশনের জায়গার ওপর নির্মিত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে ব্যাপক অভিযান চালিয়েছে ঢাকা সিটি করপোরেশন উত্তরের (ডিএনসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানে প্রায় ৩৫০ টি অবৈধ স্থাপনা বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

সোমবার ডিএনসিসির ভারপ্রাপ্ত মেয়র মো. জামাল মোস্তফার নেতৃত্বে এই অভিযানে মিরপুর এক নম্বর গোলচত্বর, শাহ আলী মার্কেট এলাকা, মাজার রোড, কাঁচা বাজার গলি, কোনাবাড়ি বাস স্টপেজসহ আশপাশের এলাকায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। মঙ্গলবার অভিযান চালানো হবে মিরপুর ১০ নম্বর এলাকায়।

ম্যাজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার বলেন, সোমবারের অভিযানে প্রায় ৪০ হাজার স্কয়ার ফিট জায়গা অবৈধ দখলমুক্ত করা হয়েছে এবং অন্তত ৩৫০ টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

হঠাৎ করে অভিযান চালানোয় বিপাকে পড়েন ব্যবসায়ীরা। এতে তাদের মালামালের ব্যাপক ক্ষতি হয়। বিশেষ করে কাঁচাবাজারের হকার ব্যবসায়ীদের ক্ষতি হয়েছে বেশি। তারা অভিযোগ করেন, নোটিশ না দিয়ে হঠাৎ অভিযান চালানোয় তারা মালামাল সরানোর সময় পায়নি। তাদের ব্যবসা করার জন্য কোনো স্থানও ঠিক করে দেয়নি সরকার।

নোটিশ দেওয়ার ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত মেয়র জামাল মোস্তফা সাংবাদিকদের জানান, ‘নোটিশের তো প্রশ্নই আসে না। কারণ এটা অবৈধ স্থাপনা। সিটি করপোরেশনের রাস্তার ওপর স্থাপনা তৈরি করে তারা জনগণের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করেছে। তাদের ইজারা বা মৌখিকভাবে অনুমতিও দেনা হয় নাই। নোটিশ দিতে হবে কেনো?’

গরিব ব্যবসায়ীদের জন্য পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তাদের জন্য সান্ধ্যকালীন এবং কিছু হলিডে মার্কেট করার পরিকল্পনা আমাদের আছে। তবে সময় লাগবে। কারণ আগে তো জায়গা নির্ধারণ করতে হবে। হকার যেকোনো জায়গায় বসানো যাবে না।’

অভিযানের ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত মেয়র বলেন, ‘সিটি করপোরেশনের জায়গার ওপরে যেকোনো ধরনের স্থাপনাই হোক না কেনো সেগুলোই আমরা উচ্ছেদ করব। যত দিন পর্যন্ত ঢাকা শহর তার নিজস্ব রূপ ফিরে না পাবে তত দিন পর্যন্ত এই অভিযান চলমান থাকবে।’ আবার যাতে স্থাপনা তৈরি করতে না পারে সে জন্য উচ্ছেদকৃত এলাকাগুলোতে পুলিশ টহল রাখার ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান তিনি।

উচ্ছেদ অভিযানে এ সময় মেয়রের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সাংসদ আসলামুল হক ও ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কাজী টিপু সুলতান।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech