টিসিবির জব্দ পেঁয়াজ নিলামে বিক্রির নির্দেশ

  

পিএনএস ডেস্ক : ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) কাছ থেকে নেওয়া ১ হাজার ৩৬৪ কেজি পেঁয়াজ কালোবাজারে বিক্রির সময় গত শুক্রবার রাতে ধরে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। গ্রেপ্তার করা হয় ঠিকাদারসহ দুই ব্যক্তিকে। তাঁরা হলেন ঠিকাদার আসাদুজ্জামান ও তাঁর সহযোগী হ‌ুমায়ূন কবির।

টিসিবির জব্দ করা সেই পেঁয়াজ প্রকাশ্যে নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করে সেই টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার ঢাকার ভারপ্রাপ্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) মো. কায়সারুল ইসলাম এই আদেশ দেন।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের সিটি করপোরেশনের পাকা মার্কেটের পশ্চিম পাশ থেকে ট্রাকভর্তি টিসিবির ১ হাজার ৩৬৪ কেজি পেঁয়াজ জব্দ করে র‍্যাব। এ ঘটনায় র‍্যাব-২–এর পুলিশ পরিদর্শক মো. ইকবাল হোসেন বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে তিনজনের নাম উল্লেখ করে তেজগাঁও থানায় মামলা করেন।


মামলার এজাহারে বলা হয়, স্বল্প আয়ের মানুষদের মধ্যে পেঁয়াজ, চাল, আটা, তেল, চিনি রেশনিংয়ের মাধ্যমে নির্ধারিত পয়েন্টে বিক্রি করার জন্য কিছু ঠিকাদার নিয়োগ করেছে সরকার। কিন্তু কিছু কুচক্রী অসাধু মজুতদার বেশ কিছুদিন ধরে টিসিবির নির্ধারিত পণ্য সরকারি গুদাম থেকে তুলে তা খোলাবাজারে বিক্রি করছিল না। বরং বিভিন্ন আড়তদারের মাধ্যমে টিসিবির পণ্য মজুত করে চড়া দামে বিক্রি করে আসছিল। টিসিবির পেঁয়াজ খোলাবাজারে বিক্রি না করে বাজার অস্থিতিশীল করার জন্য তা মজুত রাখে। র‍্যাবসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার ব্যাপক নজরদারি ও তদারকির ফলে মজুতদার ও কালোবাজারের চক্রটি টিসিবি থেকে পেঁয়াজ তুলেও তা বিক্রি করার সুযোগ পাচ্ছিল না।

মামলায় ইকবাল হোসেন বলেন, ১৩ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টার সময় জানতে পারেন, কারওয়ান বাজারে ট্রাকভর্তি পেঁয়াজ নিয়ে দুই থেকে তিনজন ব্যক্তি অবস্থান করছেন। ট্রাকে থাকা পেঁয়াজ বিক্রি করার চেষ্টা করছেন। তখন র‍্যাব সদস্যরা সেখানে উপস্থিত হয়ে ট্রাকের চালকের সিটের পাশে দুজনকে দেখতে পান। এই পেঁয়াজ কোথা থেকে এসেছে, জিজ্ঞাসা করার সঙ্গে সঙ্গে পেঁয়াজভর্তি ট্রাকের চালক জসীম পালিয়ে যান। ট্রাকে থাকা দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে পারেন, টিসিবির গুদাম থেকে মেসার্স পিয়ার এন্টারপ্রাইজ ওই পেঁয়াজ আনে। সচিবালয়ের সামনে ওই পেঁয়াজ খোলাবাজারে বিক্রি করার কথা ছিল।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তেজগাঁও থানার উপপরিদর্শক (এসআই) দেওয়ান মোহাম্মদ সবুর বলেন, টিসিবির পেঁয়াজ খোলাবাজারে বিক্রি না করে তা কালোবাজারে বিক্রির চেষ্টা করেন মেসার্স পিয়ার এন্টারপ্রাইজের মালিক আসাদুজ্জামান এবং তাঁর সহযোগী হ‌ুমায়ূন কবির। তাঁদের ১৫ ফেব্রুয়ারি ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করা হয়। আদালত তাঁদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এসআই জানান, টিসিবির জব্দ করা ১ হাজার ৩৬৪ কেজি পেঁয়াজ রাখা হয়েছে তেজগাঁও থানায়। মামলার আসামি পলাতক ট্রাকচালক জসীমকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন